ওমিক্রন অভিশাপ নয়, আশীর্বাদ!


Published: 2021-12-03 10:44:39 BdST, Updated: 2022-01-19 07:04:49 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: গোটা বিশ্বের ত্রাস মহামারি করোনা ভাইরাসের নতুন স্ট্রেন ওমিক্রন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। দক্ষিণ আফ্রিকায় এই মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়েছে স্ট্রেনটি। এই নিয়ে গোটা বিশ্বকে সতর্ক বার্তা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। নতুন এই ওমিক্রন আতঙ্কের মধ্যেই আশার কথা শোনাচ্ছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। তারা বলছেন, করোনা ভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেন ওমিক্রন মূলত অভিশাপ নয়, আশির্বাদ।

বিশেষজ্ঞদের একাংশ জানিয়েছেন, ওমিক্রণ সংক্রমণ একটি ভালো লক্ষণ। ডেল্টা ভ্যারিয়্যান্টের সংক্রমণে করোনা আক্রান্ত রোগীর শরীরে একাধিক উপসর্গ দেখা যেত। এই ভ্যারিয়্যান্ট অত্যন্ত ঘাতক বলে প্রমাণিত হয়েছে। অন্যদিকে, ওমিক্রণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ঠিকই, কিন্তু, আক্রান্তের দেহে অনেক কম উপসর্গ দেখা যায়। এদিকে ওমিক্রন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সেক্ষেত্রে ডেল্টার পরিবর্তে ওমিক্রনকে জায়গা করে দেওয়া যেতে পারে। এটি একটি পজিটিভ খবর বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার একদল চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, করোনা রোগীর যেমন স্বাদ-গন্ধ চলে যাওয়ার সমস্যা থাকে এক্ষেত্রে তা সম্পূর্ণ আলাদা। ওমিক্রনে আক্রান্তদের দেহে ক্লান্তিভাব অনেক বেশি থাকে। এছাড়া গলা ব্যাথা, পেশীতে ব্যাথা, শুকনো কাশির সমস্যা থাকে। গায়ে জ্বর থাকে। ওমিক্রণ অনেক কম ঘাতক হিসেবে সামনে এসেছে এখনও পর্যন্ত , জানা গিয়েছে এমনটাই।

উল্লেখ্য, গত ২৪ নভেম্বর ছড়িয়ে পড়ে ওমিক্রন। প্রথম ওমিক্রন ভ্যারিয্যান্টের সন্ধান পাওয়া যায় দক্ষিণ আফ্রিকায়। এক সপ্তাহের মধ্যেই ১৩টি দেশে এই ভ্যারিয়্যান্ট ছড়িয়ে পড়ার খবর সামনে আসে। ভ্যারিয়্যান্টটি কোভিড টিকাকেও ফাঁকি দিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

ডেল্টা ভ্যারিয়্যান্ট প্রথম ভারতে পাওয়া গিয়েছিল। বর্তমানে বিশ্বের সমস্ত নতুন কোভিড আক্রান্তদের ৯০ শতাংশের দেহতেই পাওয়া যাচ্ছে ডেল্টা স্ট্রেন। ডেল্টা ওমিক্রনের থেকে বেশি ঘাতক বলে মনে করা হচ্ছে। আর এই কারণেই ওমিক্রনকে ডেল্টার সঙ্গে পরিবর্তন করার বিষয়টি বলছেন গবেষকদের একাংশ।


ঢাকা, ০৩ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।