ছেলেকে দেখতে কারাগারে গেলেন শাহরুখ খান


Published: 2021-10-21 13:52:01 BdST, Updated: 2021-12-02 22:22:11 BdST

শোবিজ ডেস্ক: কারাগারে বন্দি থাকা ছেলেকে দেখে এলেন ‘বলিউড বাদশা’ শাহরুখ খান। বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের মুম্বাইয়ের আর্থার রোড জেলে গিয়ে তিনি মাদক মামলায় গ্রেপ্তার আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করেন।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর হাতে ছেলে গ্রেপ্তার হওয়ার পর এই প্রথম তার সঙ্গে কারাগারে গিয়ে দেখা করলেন শাহরুখ।

সকাল ৯টার দিকে কারাগারে পৌঁছান বলিউড বাদশা। তার সঙ্গে ছিল আইনজীবীদের একটি দল। কারাগারে ভেতর প্রায় ১৫ মিনিট ছিলেন শাহরুখ। দ্রুত সাক্ষাৎ সেরে বেরিয়ে যান তিনি। তার সঙ্গেই ফেরত যায় আইনজীবীদের দলটিও।

ছেলের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়টি আড়ালেই রাখতে চেয়েছিলেন বলিউড তারকা। যে কারণে বড় কনভয় বা বড় গাড়ি নিয়ে তিনি আর্থার রোড কারাগারে যাননি। তিনি পৌঁছান একটি ছোট গাড়িতে। গাড়ির কাচ কালো। তখনও দেশের বাণিজ্যনগরীতে অফিস টাইম ঠিকঠাক শুরু হয়নি।

তবে শাহরুখের আসার খবর আগে থেকেই পেয়ে গিয়েছিল সংবাদমাধ্যমের একাংশ। ফলে তারা আর্থার রোড কারাগারের মূল ফটকের বাইরে ভিড় করেছিল। জমায়েত ছিল জেলের প্রহরীদেরও।

আর্থার রোড জেলটি মুম্বাই শহরের মধ্যেই। একটা সময়ে সেখানে বিশেষ টাডা আদালতে বিচার হয়েছিল বলিউডের নায়ক সঞ্জয় দত্তের। সেখানে বেশ কিছুদিন বন্দিও ছিলেন তিনি। বন্দি ছিল ২৬/১১ মামলায় অভিযুক্ত পাক জঙ্গি আজমল আমি কসাবও। শহরের মধ্যে একটি ব্যস্ত রাস্তার উপর ওই জেলের ফটকে অল্প লোক জমায়েত হলেই তা ভিড়ের চেহারা নেয়। বৃহস্পতিবার সকালেও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

জেলের মূল ফটকের সামনেই গাড়ির পিছনের আসন থেকে নামেন শাহরুখ। পরনে খুব সাধারণ একটি গোল-গলা টি-শার্ট এবং জিনসের ট্রাউজার্স। মুখ ঢাকা কালো মাস্কে। চোখে কালো রোদচশমা। মাথার লম্বা চুল পনিটেলে বাঁধা। দেহরক্ষী পরিবৃত হয়ে তিনি দ্রুত জেলের ভেতরে চলে যান।

প্রশাসনের অনুমতির ভিত্তিতে সাধারণত এই ধরনের সাক্ষাৎ ৫ থেকে ১০ মিনিটের হয়ে থাকে। শাহরুখ জেলের ভেতরে ছিলেন প্রায় ১৫ মিনিট। তবে ওই সময়ের পুরোটাই তিনি আরিয়ানের সঙ্গে ছিলেন, এমন কথা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

সূত্রের খবর, বুধবারেই জেল কর্তৃপক্ষের থেকে পুত্রের সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেয়েছিলেন শাহরুখ। সেই মতো বেলা গড়ানোর আগেই তিনি পৌঁছান জেলে।

আরিয়ানের সঙ্গে দেখা করে জেল থেকে বের হওয়ার পর শাহরুখ সংবাদমাধ্যমের কাছে মুখ খোলেননি। যেমন মুখ খোলেননি ভেতরে যাওয়ার সময়েও। লম্বা-চওড়া চেহারার দেহরক্ষী তাকে ঘিরে দ্রুত গাড়িতে তুলে দেন। অনতিবিলম্বে জেলচত্বর ছেড়ে যান শাহরুখ। তার সঙ্গে বেরিয়ে যায় তার আইনজীবীর দলও।

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর একটি প্রমোদতরী থেকে আরিয়ানসহ আটজনকে মাদক মামলায় আটক করা হয়। পরদিন তাদের গ্রেপ্তার দেখায় মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো। তার পরে ওই মামলায় আরও অনেককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

৩ অক্টোবর থেকেই আরিয়ানরা মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর হেফাজতে। গত ৮ অক্টোবর আদালতে হাজির করানো হলে আরিয়ানকে জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। এর মধ্যে একাধিক বার তার জামিনের আবেদন খারিজ হয়ে গিয়েছে। ফলে তিনি এখনও জেলেই বন্দি।

ঢাকা, ২১ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।