পরীর হাতে নতুন বার্তা, নেট দুনিয়ায় তোলপাড়


Published: 2021-09-15 14:42:50 BdST, Updated: 2021-10-16 06:06:53 BdST

শোবিজ লাইভ: মাদক মামলায় হাজিরা দিতে বুধবার দুপুরে আদালতে আসেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। বেলা ১২টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত সিকদারের আদালতে হাজিরা দেন তিনি।

পরীমণি

 

এসময় সবার উদ্দেশে আবারও নতুন বার্তা পাঠালেন পরীমণি। এবার ডান হাতের তালুতে লিখলেন ‘...ক (গালি) মি মোর’। আদালত প্রাঙ্গণে হুডখোলা গাড়িতে দাঁড়িয়ে অপেক্ষমাণ ভক্তদের স্যালুট জানানোর সময় মেহেদিতে লেখা সেই বার্তাটি ধরা পড়ে ছবি শিকারিদের চোখে।

পরীমণি

 

কিন্তু ঠিক কি কারণে এই বার্তা? এখন তো সবই আপনার অনুকূলে। কার উদ্দেশে এটি বলেছেন? জবাবে পরীমণি বলেন, ‘যারা আমার জীবন নিয়ে খেলতে চায় বা ঘাঁটতে আসে, তাদের সবাইকে আমি ওয়েলকাম করছি। আসো। ওয়েলকাম। আমি প্রস্তুত তোমাদের সঙ্গে এই খেলায় অংশ নিতে। দম যতদিন আছে, আমি শেষ অবধি এই খেলায় লড়ে যাবো।’

পরীর হাতে নতুন বার্তা

 

এদিকে এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পাওয়ার পর থেকেই তাকে তুলোধুনো করছেন নেটিজেনরা। প্রকাশ্যে হাতের তালুতে অঙ্কিত ‘মিডল ফিঙ্গার’ প্রদর্শন করে তিনি অশ্লীল আহ্বান জানিয়েছেন বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করছেন সকল মহলের মানুষ।

পরীমণি

 

একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালের ফেসবুক পেজে শেয়ার করা নিউজের নিচে কমেন্ট বক্সে Shakil Ashraf নামের এক নেটিজেন মন্তব্য করেন- ‘কথায় আছে, একবার নাক কাটলে যায় জংগলে, লজ্জায়।আর বার বার নাক কাটলে যায় দুয়ারে দুয়ারে। লজ্জাহীন হয়ে গেছে।তার আর এসবে কিছু যায় আসে না।’

আগের স্লোগান ‘ডোন্ট লাভ মি বিচ’ সম্পর্কে পরী তখনই বলেছিলেন, ‘এই স্লোগান তাদের উদ্দেশে, যারা সামনে একরকম, পেছনে অন্যরকম। যারা বহুরূপী- তাদের জন্য এই বার্তা দিয়েছি।’

আগের স্লোগান ‘ডোন্ট লাভ মি বিচ’

 

এর আগে ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে পরীমণির জামিন মঞ্জুর করেন। পরদিন গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগার থেকে কারামুক্তি হন পরীমণি।

গত ৪ আগস্ট সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পরীমণিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

কারামুক্ত পরীমণি

 

ওইদিনই রাত ৮টা ১০ মিনিটে পরীমনিকে একটি সাদা মাইক্রোবাসে র‌্যাব সদরদফতরে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত ১২টা পর্যন্ত তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে র‌্যাব। পরদিন ৫ আগস্ট বিকেল ৫টা ১২ মিনিটে পরীমণি, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের দুই সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে বনানী থানার উদ্দেশে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর র‌্যাব বাদী হয়ে রাজধানীর বনানী থানায় পরীমণি ও তার সহযোগী দীপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে। পরে তাকে আদালতে হাজির করলে প্রথমে চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। পরে আরও দুই দফায় তিন দিনের রিমান্ডে তাকে রিমান্ডে নেয়া হয়।

ঢাকা, ১৫ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।