Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | সোমবার, ৫ই জুন ২০২৩, ২২শে জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
teletalk.com.bd
thecitybank.com

মাধ্যমিকে যমজ ভাই-বোনের ভর্তি সহজ করতে উপকমিটি

প্রকাশিত: ২২ ডিসেম্বার ২০২২, ১৮:৫৯

ফাইল ছবি

লাইভ প্রতিবেদক: রাজধানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে প্রথম থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের ভর্তি সহজ করতে তিন সদস্যের যাচাই-বাছাই উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। বুধবার (২১ ডিসেম্বর) মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তর থেকে এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এতে সই করেছেন মাউশির উপপরিচালক (মাধ্যমিক) মোহাম্মদ আজিজ উদ্দিন।

নির্দেশনায় বলা হয়, গঠিত ভর্তি উপকমিটি রাজধানীর যেসব শিক্ষার্থী (সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোন) লটারিতে ভর্তির সুযোগ পায়নি, তাদের যাচাই-বাছাই করে ভর্তির ব্যবস্থা করবে।

এছাড়া ঢাকা মহানগরী ছাড়া অন্যান্য মহানগরী ও জেলার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ভর্তি নীতিমালা-২০২২ এ গঠিত কমিটি সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের ভর্তির আবেদন উল্লিখিত নির্দেশনার আলোকে যাচাই-বাছাই করে ভর্তির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে।

নির্দেশনা অনুযায়ী কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে সঠিক থাকার পরও সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনকে ভর্তি করা না হলে এবং পরবর্তী সময়ে তা প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্টরা দায়ী থাকবেন।

অফিস আদেশে আরও বলা হয়েছে- ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে মহানগরী ও জেলার সদর উপজেলা পর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী ভর্তি নীতিমালা-২০২২ জারি করা হয়েছে। ওই নীতিমালায় সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই/বোনের ভর্তি সংক্রান্ত বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে। নীতিমালায় ভর্তি কমিটি আবেদন যাচাই-বাছাই করে ভর্তির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন মর্মে উল্লেখ রয়েছে। ঢাকা মহানগরীর প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষেত্রে অভিভাবক ও সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের কোটায় ভর্তিচ্ছুদের ভর্তির বিষয়টি সহজ করার লক্ষ্যে শুধুমাত্র সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের ভর্তির জন্য যাচাই-বাছাই উপ-কমিটি গঠন করা হলো।

ভর্তি যাচাই-বাছাই উপকমিটি কমিটিতে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক আহ্বায়ক থাকবেন। সদস্য দুই জনের মধ্যে প্রথম সদস্য থাকবেন সহকারী প্রধান শিক্ষক/সিনিয়র শিক্ষক, আর দ্বিতীয় সদস্য থাকবেন সহকারী শিক্ষক।

অফিস আদেশে বলা হয়, গঠিত উপ-কমিটি ভর্তি নীতিমালার আলোকে ঢাকা মহানগরী সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের ভর্তির আবেদন যাচাই-বাছাই করে ভর্তির জন্য সুপারিশ করবেন এবং সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান ভর্তির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

উপকমিটির কাজ:

১) যেসব সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোন (প্রথম থেকে নবম শ্রেণি) কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির জন্য নির্বাচিত হতে পারেনি, তাদের যাচাই-বাছাই করে ভর্তি করতে হবে।

২) সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে আগে থেকে অধ্যয়নরত সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের বিষয়ে প্রতিষ্ঠান প্রধান দেওয়া প্রত্যয়নপত্রে বাবা-মায়ের নাম, জন্ম তারিখ, অধ্যয়নরত শ্রেণি, শিক্ষার্থীর আইডি নম্বর উল্লেখ থাকতে হবে।

৩) আবেদনের সঙ্গে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর জন্ম সনদের সত্যায়িত কপি, জন্ম সনদের অনলাইন কপি, পিতা-মাতার জন্ম সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্রের সব মূল কপির সঙ্গে মিলিয়ে দেখতে হবে।

৪) বাবা-মায়ের মাধ্যমে সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের বিষয়ে একটি লিখিত অঙ্গীকারনামা থাকতে হবে।

৫) এ সুবিধা কোনো দম্পতির সর্বোচ্চ দুই সন্তানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে।

৬) সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধানকে তার প্রতিষ্ঠানে সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের প্রাপ্ত আবেদনগুলো নিষ্পত্তি করতে হবে।

৭) আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে তালিকা করে ঢাকা মহানগরী ভর্তি কমিটির সভাপতি বরাবর পাঠাতে হবে।

৮) সহোদর/সহোদরা বা যমজ ভাই-বোনের ভর্তির বিষয়ে অভিভাবকের দাখিল করা প্রতিটি আবেদনসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র যথাযথভাবে যাচাই-বাছাই করতে হবে। যাচাই পরবর্তী কোনো আবেদন ভর্তির জন্য বিবেচিত না হলে, তার উপযুক্ত কারণ উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানের নোটিশ বোর্ডে প্রদর্শন করতে হবে।

ঢাকা, ২২ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ