আট বছর স্কুলে না গিয়েই বেতন তোলেন নেতার ভাই


Published: 2021-04-10 15:38:36 BdST, Updated: 2021-05-08 04:58:27 BdST

সিরাজগঞ্জ লাইভ: নেতার ভাই বলে কথা। কোন নিয়ম-নীতি সেখানে অচল। কারণ তিনি স্থানীয় চেয়ারম্যান ও আ'লীগ নেতার ভাই। তাই তিনি স্কুলে শিক্ষকতা না করেই গেল আট বছর ধরে বেতন-ভাতা তুলে নিচ্ছেন। এছাড়া ওই চেয়ারম্যান ওই স্কুলের সভাপতিও বটে। তাই কাউকে তোয়াক্কা করেন না তিনি। ঘটনাটি সিরাজগঞ্জ জেলার।

ওই জেলার শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরি ইউনিয়নের চরকৈজুরি গ্রামে অবস্থিত কৈজুরি উচ্চ বিদ্যালয় অ্যান্ড কলেজের স্কুল শাখার সহকারী শিক্ষক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৫)। দীর্ঘ ৮ বছর ধরে বিদ্যালয়ে না গিয়েই নিয়মিত বেতন ভাতা তুলছেন তিনি।

এলাকাবাসী জানায়, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ওই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি, কৈজুরি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও শাহজাদপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলামের ছোট ভাই। আর এ সুবাদেই তিনি ঢাকার মিরপুর-১ এর শাহা আলী বাগ কলওয়ালপাড়ায় গার্মেন্টস সুতার রঙের কারখানার ব্যবসা করেন।

এদিকে স্কুলে উপস্থিত না থেকেও নিয়মিত বেতন-ভাতা তুলছেন। কাগজে কলমে তার হাজিরা ঠিক থাকলেও তিনি কোনোদিন স্কুলে উপস্থিত থাকেন না। ক্লাস রুটিনে তার কোনো নাম নেই। ফলে কৈজুরি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হারুনার রশিদ সম্প্রতি এলাকাবাসীর পক্ষে ও জনস্বার্থে এ অনিয়ম দুর্নীতির বিরুদ্ধে সিরাজগঞ্জ জেলা শিক্ষা অফিসার ও দুর্নীতি দমন কমিশনসহ বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার সকালে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. শামসুজ্জোহা, শাহজাদপুর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাসুদ হোসেন ও শাহজাদপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. শাহাদাৎ হোসেন ওই প্রতিষ্ঠানে হাজির হয়ে এ বিষয়ে তদন্ত শুরু করেন।

জানাগেছে উভয় পক্ষের দীর্ঘ শুনানি শেষে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো শামসুজ্জোহা উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, এটা প্রাথমিক তদন্ত। এ বিষয়ে আরও তদন্তের প্রয়োজন। তাই ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটি আরও অধিক তদন্ত করবে। তারপর এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

অভিযোগকারী মো. হারুনার রশিদ জানান, মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জীবনে কখনোই বিদ্যালয়ে গিয়ে ছাত্রদের ক্লাস নেননি। ক্লাস রুটিনে তার নামও নেই। তিনি ঢাকার মিরপুর-১ শাহআলীবাগ কলওয়ালাপাড়ার ব্লক-এফ এর ১/এফ৩/১৪ নম্বরে মা টুয়েস্টিং অ্যান্ড ডাইং নামের গার্মেন্টস সুতার রঙের ব্যবসা করেন।

এ প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ তার বড় ভাই আব্দুল খালেক আর সভাপতি আপন সেজ ভাই সাইফুল ইসলাম। এছাড়া তার মেজ ভাই আব্দুল মালেক এ প্রতিষ্ঠানের সহকারী শিক্ষক। ফলে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি তাদের পারিবারিক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে।

ঢাকা, ১০ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।