ভিসি পুলিশ কমিশনার হয়ে যেভাবে অভিনয় করলেন!নানান চরিত্রে ভিসি কলিমউল্লাহ, তুমুল ঝড়!


Published: 2021-06-12 13:41:30 BdST, Updated: 2021-07-30 06:26:42 BdST

লাইভ প্রতিবেদক:ভিসি কলিমউল্লাহ। একটি নাম। একটি আলোচিত চরিত্র। নানান ঘটনার সাথে তিনি জড়িয়ে আছেন। একেক সময় একেক বিষয়ে তিনি নতুন নতুন বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। কখনও শিক্ষার্থীদের সাথে ড্যান্স করে, কখনও ক্যাম্পাসে না থেকেও ভার্চুয়াল নিয়োগের ভাইভা নিয়ে আবার কখনও কখনও রাত ৩টায় নাটকীয়ভাবে ক্লাস নিয়েও তিনি সমালোচিত ও আলোচিত। এবার তিনি পুলিশ কমিশনারের চরিত্রে অভিনয় করে পড়েছেন নানান সমালোচনা ও বিতর্কে। এসব চরিত্র নিয়ে তুমুল ঝড় বইছে নেট দুনিয়ায়। তার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তার পুরো নাম নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। তিনি বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি। সাবেক আলোচিত স্বারস্ট্রমন্ত্রী মহিউদ্দীন খান আলমগীর ও প্রফেসর বোরহান উদ্দীন খান জাহাঙ্গীরের আপন ভাগিনা। প্রফেসর মুনতাছির মানুনের আত্মীয়। এবার তিনি নতুন করে ফের বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন। গেল বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় অনলাইনে ভার্চ্যুয়াল ক্লাস নিয়ে সমালোচিত হয়েছেন তিনি।

এবার বাংলা সিনেমায় অভিনয়ের একটি ভিডিও প্রকাশ হয়েছে তার। যা রীতিমতো ভাইরাল। সংশ্লিস্টরা জানান, ভিডিওতে দেখা যায়, ভিসি কলিমউল্লাহ ঢাকা পুলিশ কমিশনারের ভূমিকায় সিনেমায় অভিনয় করেছেন। সেখানে তিনি শহরের গডফাদারদের ধরতে পুলিশের অন্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিচ্ছেন। বলেছেন গডফাদার রাখা যাবে না। যে কোন মূল্যে তাদের আইনের আওতায় আনতে হবে।

বিশ্ববিদ্যারয়ের একজন সিনিয়র প্রফেসর বলেছেন, ভিসি হয়ে সিনেমায় অভিনয় করাটা সমীচিন হয়নি। তিনি এমনটি করলেন কেন তা বুঝে আসে না। অনেকেই ওই অভিনয়কে নেতিবাচক হিসেবে দেখলেও তিনি ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখছেন। এতে দোষ কিছু মনে করছেন না। এটাকে স্বাভাবিক বলেই তার মন্তব্য। তার এই বক্তব্যকে অনেকেই হাস্যরস হিসেবে মনে করছেন।

ভিসি নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ বলেন, ফেসবুকে ভিডিওটি নিয়ে সমালোচনা তৈরি হয়েছে, সেই সিনেমায় আমি প্রথম অভিনয় করি। যেটি ব্যাপক ব্যবসা সফল হয়। এতে আমাকে ঢাকার পুলিশ কমিশনারের চরিত্রে দেখা গেছে। আমার অভিনয় নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হলে আমি স্বার্থক। কারণ একজন অভিনেতার প্রধান কাজ দর্শককে আনন্দ দেওয়া। তিনি মনে করেন এটা তার সফলতা।

প্রসঙ্গত, রাষ্ট্রপতির নিয়োগ আদেশ অনুযায়ী উপাচার্য নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর চার বছর মেয়াদ পূর্ণ হয় গত ৩১ মে। তবে উপাচার্য কলিমউল্লাহর দাবি, তিনি যোগদান করেছেন ২০১৭ সালের ১৪ জুন। সে হিসাবে তার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ২০২১ সালের ১৩ জুন। আগামী কাল তার মেয়াদ শেষ হবে।

মধ্যরাতে ক্লাস:


মধ্যরাতের ক্লাস নিয়ে তুমুল ঝড় বইছে। বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের (বেরোবি) ভিসি নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ মধ্যরাতে অনলাইনে বিশ্ববিদ্যালয়ের জেন্ডার অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের ক্লাস নিয়েছেন। বুধবার (০৯ জুন) দিনগত রাত ৩টা ২৫ মিনিটে ক্লাস শুরু করে ৩টা ৫০ মিনিটে ক্লাস শেষ করেন। এটাকে অনেকেই পাগলামি বলেও আখ্যা দিয়েছেন।

বিভাগ সূত্রে জানা যায়, করোনাভাইরাসের কারণে এতোদিন অনলাইনে ক্লাস না নিতে পারলেও উপাচার্য হিসেবে বিদায় নেওয়ার শেষমুহূর্তে ৬ জুন থেকে ৯ জুন পর্যন্ত মাত্র ৪টি ক্লাস নেন তিনি। এতে ক্লাসে ৬০ জনের মধ্যে ২৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। তবে শেষ পর্যন্ত মাত্র ১২ জন যুক্ত ছিলেন। এ ব্যাপারে বেরোবি স্টুডেন্ট রাইটস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ আহমেদ বলেন, অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার জন্য শিক্ষকদের বারবার বলা হয়েছে কিন্তু ক্লাস নেয়নি।

এখন ভিসি মেয়াদ শেষের দিকে এসে রাত সাড়ে ৩টায় ক্লাস নিয়ে আবার বেরোবিকে বিতর্কিত করলেন। আমি এর তীব্র নিন্দা জানাই। বেরোবির অনেক প্রফেসর এ বিষয়টিকে হাস্যকর বলে মনে করেন।

ঢাকা, ১২ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।