দুর্নীতির তদন্ত করতে হাবিপ্রবিতে ইউজিসি


Published: 2021-03-15 21:32:26 BdST, Updated: 2021-06-19 18:27:51 BdST

হাবিপ্রবি লাইভ: হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) কর্মরত শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতি অনয়িমের অভিযোগের তদন্ত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) প্রতিনিধি দল। সোমবার সকাল ১০ টায় ইউজিসির একটি প্রতিনিধি দল স্বশরীরে তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনা করেন।

জানা গেছে, ইউজিসির সদস্য প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ চন্দের নেতৃত্বে এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর ড. আবু তাহের, আমিরুল ইসলাম শেখ ও জামাল উদ্দিন। তদন্ত কমিটির সুবিধার্থে সকাল থেকে দুপুর তিনটা পর্যন্ত ধাপে ধাপে অভিযুক্ত ব্যক্তিবর্গের সাক্ষাৎকার নিতে দেখা যায় তদন্ত কমিটিকে।

এদিকে তদন্ত কমিটির সাক্ষাৎকার শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হোন প্রফেসর ড. বিশ্বজিৎ চন্দ। এসময় তিনি তদন্তের পূর্বেই হাবিপ্রবির শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীর অভিযুক্ত করে বিভিন্ন পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এ সময় তিনি আরো বলেন, "অভিযোগ কারীর (সাজ্জাদুল করিম) কোন অস্তিত্ব পাওয়া যায়নি। বেনামে চিঠি ইউজিসি গ্রহণ করতো না কিন্তু দুদক বিষয়টি মার্ক করায় ইউজিসি এ বিষয়ে তদন্ত করছে। তবে চিঠিতে নাম না থাকলেও আমরা তদন্তের স্বার্থে নির্দিষ্ট ব্যক্তির বাহিরেও অনেকের সাথে কথা বলেছি। আমরা আমাদের মতো তদন্ত করছি। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন পুনরায় দুদকে পাঠানো হবে। এর আগে আমরা কিছুই বলতে পারছি না আবার কাউকে কোন অভিযুক্তও করছি না"।

সার্বিক বিষয়ে রেজিস্ট্রার বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রফেসর ডা. মো. ফজলুল হক বলেন," আমরা আমাদের জায়গায় শতভাগ পরিষ্কার। এ ধরণের অভিযোগ এর আগেও একটি মহল ইউজিসিতে দিয়েছিল, আমরা ওই সময়ে ইউজিসিকে সকল প্রকার তথ্য প্রমাণ দিয়েছিলাম। সেই সময় ইউজিসিকে বিভ্রান্ত করতে ব্যর্থ হয়ে পরবর্তীতে তারাই পরিচয় গোপন করে একই অভিযোগ গুলো দুদকে দেয়। সৎ সাহস থাকলে তারা অবশ্যই সঠিক পরিচয়ে প্রমাণ সহ অভিযোগ দিতো, তারপরও আমরা আবারো সকল দালিলিক তথ্য প্রমাণ বিস্তারিত ভাবে উনাদের সামনে উপস্থাপন করেছি"।

উল্লেখ্য যে, ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাজ্জাদুল করিম নামে এক ব্যক্তি দুর্নীতি দমন কমিশন দিনাজপুরের উপ-পরিচালক বরাবর অভিযোগ করেন (অভিযোগ নং-৪০৮/২০১৯)। পরে অভিযোগটি দুদক দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয় ২০২০ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি দুদক প্রধান কার্যালয়ে পাঠায়। এর প্রেক্ষিতে দুদকের নির্দেশে ইউজিসির প্রতিনিধি দল তদন্ত করতে হাবিপ্রবিতে আসে। যদিও সাজ্জাদুল করিম নামে কাউকেই হাবিপ্রবিতে খুঁজে পায়নি তদন্ত কমিটি।

ঢাকা, ১৫ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।