পড়াশোনার ছলে বাসায় নিয়ে শিক্ষকের অপকর্ম, অন্ত:সত্ত্বা ছাত্রী!


Published: 2018-11-07 01:13:13 BdST, Updated: 2018-11-16 22:33:43 BdST

নীলফামারী লাইভ : পড়াশোনার কথা বলে বাসায় ডেকে নিয়ে এক ছাত্রীর সঙ্গে অপকর্মে লিপ্ত হয়েছেন শিক্ষক। এভাবে বেশ কয়েকবার ডেকে নিয়ে যাওয়ার পর ধর্ষণের শিকার হয়েছে ওই ছাত্রী। এতে ওই ছাত্রী অন্ত:সত্ত্বা হয়ে গেলে লাপাত্তা হয়ে যান সেই লম্পট শিক্ষক। অবশেষে বিষয়টি প্রকাশ পেলে ওই শিক্ষককের চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে। বরখাস্ত হওয়া ওই শিক্ষকের নাম হাকিনুর রহমান। তিনি মাগুরা মুন্সিপাড়া দাখিল মাদ্রাসার এবতোয়ি শাখার ক্বারী শিক্ষক। মঙ্গলবার ওই মাদ্রাসার সুপার রফিকুল ইসলাম ওই লম্পট শিক্ষকের বরখাস্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ধর্ষণের শিকার ওই মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রী ৭ মাসের আন্তঃসত্ত্বা হয়। এঘটনায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ গত ৯ মে অভিযুক্ত ক্বারী শিক্ষক হাকিনুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করে। তদন্ত কমিটি ঘটনার সত্যতা উল্লেখ করে প্রতিবেদন দেয়ায় গত শনিবার মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ তাকে চূড়ান্ত বরখাস্ত করেন।

বিভিন্ন অজুহাতে ক্বারী শিক্ষক সবুজপাড়া গ্রামে ওই ছাত্রীর বাড়িতে যাতায়াত করতেন। কৌশলে পড়াশোনার কথা বলে ওই ছাত্রীকে তার নিজ বাড়ি বড়ভিটায় নিয়ে যেতেন। সেখানে তাকে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করায় ওই ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হয়। গত ৮মে ঘটনা প্রকাশ পাওয়ায় অভিযুক্ত ওই শিক্ষক মাদ্রাসা আসা বন্ধ করে দেন।

অভিযুক্ত শিক্ষক হাকিনুর রহমান জানান, এঘটনার পরে তিনি ওই ছাত্রীকে বিয়ে করছেন। অবসরে যাওয়ার জন্য মাদ্রাসা সুপারের নিকট পদত্যাগ পত্র প্রেরণ করেছেন।

ঢাকা, ০৭ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।