Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ই ফাল্গুন ১৪৩০
teletalk.com.bd
thecitybank.com

রাবিতে শীতের পিঠার আড্ডা, মান নিয়ে প্রশ্ন

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বার ২০২২, ০২:০৮

রাবিতে শীতের পিঠার আড্ডা

রাবি লাইভ: কালের অবগাহনে ডুব দিয়ে কুয়াশার আলপনা আঁকতে আঁকতে ঘটে শীতের আগমন। শীত যেন আসে এক বিধবা নারীর বেশে। মনে হয় প্রকৃতি তার সমস্ত দুঃখ-কষ্ট এই জগৎ-সংসার থেকে আড়াল করে রাখতে চায় কুয়াশার চাদর মুড়ি দিয়ে। শীতের আগমনী বার্তা মানেই বিভিন্ন রকমের পিঠা খাওয়ার প্রতিযোগীতা। বিগত বছরগুলোতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শীতকে খুব উপভোগ করে আসছে। প্রতিবছরের ন্যায় শীতকে উৎসবমুখর করতে এবারও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) রোকেয়া ও তাপসী রাবেয়া হলের সামনের বটতলায় জমে উঠেছে পিঠা আড্ডা। বিকেল হলেই সেখানে পিঠা খেতে শিক্ষার্থীদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়। তবে দামের তুলনায় পিঠার মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন শিক্ষার্থীরা। অন্যদিকে হলের সামনে বহিরাগতদের অবাধ বিচরণে নিরাপত্তা নিয়েও শঙ্কিত তারা।

পিঠার মান নিয়ে শিক্ষার্থীরা বলছেন, শীতের আমেজ বাড়াতে পিঠা অবশ্যই সহায়ক। শীতে ছুটি কম থাকায় আমরা অনেকে বাড়ি যেতে পারি না। ফলে এখানে খেয়েই পিঠার স্বাদ উপভোগ করি। তবে ক্যাম্পাসের দোকানগুলোতে নিম্নমানের আটা দিয়ে তৈরী হচ্ছে এসব পিঠা। ক্রেতা ধরে রাখতে তাড়াহুড়ো করে পিঠা তৈরী করছেন দোকানিরা। ফলে ভিতরে শক্ত ও আটা থেকে যায়। এদিকে শখের বসে বন্ধুদের সাথে পিঠা খেয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে। অনেকে পিঠা খেয়ে অসুস্থও হচ্ছেন।

রাবির আবাসিক শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, পিঠা আড্ডাকে কেন্দ্র করে ছাত্রী হলের আশেপাশে বহিরাগতদের বিচরণ বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা সুযোগ পেলেই মেয়েদের দিকে অশালীন অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন করছেন এবং ছোট রাস্তায় দ্রুত গতিতে বাইক নিয়ে চলাফেরা করছে। এতে যেকোন সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই এই জায়গা থেকে অন্যত্র দোকান সরিয়ে নেয়ার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সৈয়দ ইসমাঈল হোসেন সিরাজী ভবন, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের সামনে এবং রোকেয়া ও তাপসী রাবেয়া হলের সামনের বটতলায় পিঠার দোকান বসেছে। ইতোমধ্যে বৃহৎ পরিসরে জমে উঠেছে বটতলার এই পিঠা আড্ডা। ফলে বিকেল হলেই পিঠা খেতে বহিরাগতসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ভিড় জমান। এই আড্ডা চলে রাত ৯টা পর্যন্ত। এসময় বহিরাগত অনেকে বাইক নিয়ে মেয়েদের দিকে অশালীন অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন করেন এবং হলের আশেপাশে অবাধে বিচরণ করেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শীতের আমেজকে উৎসবমুখর করতে এসব দোকানে তৈরী হচ্ছে নানা রকম পিঠা। এরমধ্যে চিতই পিঠা, ভাপা পিঠা, তেলের পিঠা রয়েছে। তবে চিতই পিঠা আগে পাঁচ টাকা বিক্রি হলেও এখন দাম বাড়িয়ে ৮/১০ টাকা, ভাপা পিঠা ১০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫ টাকা এবং তেলের পিঠা ১৫ টাকা থেকে ২০ টাকা করা হয়েছে। এমনকি বিভিন্ন ধরণের ভর্তাবাটির জন্য আলাদা ১০ টাকা দিতে হয়।

পিঠার দাম বেশি নিচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে বটতলার পিঠা বিক্রেতা মাসুদ আলী বলেন, দ্রব্যসামগ্রীর দাম বেড়েছে। তাই পিঠার দাম আগের থেকে কিছুটা বাড়ানো হয়েছে। তাছাড়া ক্রেতার অধিক চাহিদার জন্য অনেক সময় পিঠা ঠিকমতো ভাজা সম্ভব হচ্ছে না। তবে এবিষয়ে অধিক সচেতন হবো।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, পিঠা আড্ডাকে কেন্দ্র করে ছাত্রী হলের আশেপাশে বহিরাগতদের অবাধ বিচরণ সম্পর্কে অবগত আছি। কোন অপ্রীতিকর ঘটনা প্রতিরোধে প্রক্টরিয়াল টিম কাজ করছে। একইসাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী আবাসিক হলের চারপাশ নিরাপদ রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।

ঢাকা, ১৫ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//ওএফ//এমএ


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ