'ফল নিয়ে যারা অভিযোগ করেছে এটা তাদের ভুল, আমাদের ভুল নেই'- ডিন


Published: 2021-10-12 18:16:31 BdST, Updated: 2021-10-19 05:05:52 BdST

রাবি লাইভ: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ ও ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের অনুষদভুক্ত 'বি' ইউনিটের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষার ফল সোমবার রাত সাড়ে ১২টায় প্রকাশ করা হয়। তবে প্রকাশিত ফলে অসঙ্গতি দেখা দেয়ায় মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সকালে ওয়েবসাইট থেকে তা সরিয়ে নেওয়া হয়।

পরবর্তীতে দুপুর ১টার দিকে ভর্তি পরীক্ষার ত্রুটিপূর্ণ ফল সংশোধন করে পুনরায় প্রকাশ করে আইসিটি সেন্টার। তবে এ সংশোধিত ফলাফল নিয়েও অভিযোগ তুলেছেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। তৈরি হয়েছে নানা আলোচনা- সমালোচনা। বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যমতে, গত ৬ অক্টোবর তিনটি গ্রুপে 'বি' ইউনিটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৩১ হাজার ৫১৭ জন ভর্তিচ্ছু অংশ নেন।

পরবর্তীতে গতকাল সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত ফলাফলে ছিলো অনেক গরমিল । অ-বাণিজ্য থেকে গ্রুপ-২-এ যারা পরীক্ষা দিয়েছে, সেখানে একটা সমস্যা হয়েছে। সেখানে অনেককে পাস, ফেল এবং গ্রুপ-২ এর এক হাজার ৬২৭ শিক্ষার্থীকে একসঙ্গে অনুপস্থিত দেখানো হয়।

ফলাফল নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে ভর্তিচ্ছুরা বলছেন, তাদের প্রত্যাশার তুলনায় অনেক কম মার্কস এসেছে যা সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। এমনকি যারা অ-বানিজ্য গ্রুপে প্রথম রেজাল্ট প্রকাশের পর যারা চান্স পেয়েছিলো তারা অনেকেই সংশোধিত ফলাফলে চান্স পায়নি।

অনামিকা ইয়াসমিন রিতু নামে এক শিক্ষার্থীর 'বি' ইউনিটে অ-বানিজ্য গ্রুপে প্রথম ফল প্রকাশের সময় প্রাপ্ত স্কোর ছিলো ৭১, পজিশন ছিলো ২৩২। তবে সংশোধিত ফলাফলে তার স্কোর আসে ৪০, পজিশন আসে ৩৪০৮। অপরদিকে একই সমস্যা পরেছেন বখতিয়ার মাহমুদ নামে এক শিক্ষার্থী। তারও প্রথম রেজাল্ট প্রকাশের সময় প্রাপ্ত স্কোর ছিলো ৫৫.৮৫, পজিশন ছিলো ১৪৮৭।
সংশোধিত রেজাল্টে তার স্কোর ৪৭.৮০, পজিশন ২৪৬৭। মেহেরিন মাহবুব নামে আরেক ভর্তিচ্ছুর 'বি' ইউনিটে (অ-বানিজ্য) প্রথম স্কোর আসে ৬৯.৫৫ এবং পজিশন ৩১৪। সংশোধিত ফলাফলে স্কোর আসে ৪৭.৩৫ পজিশন ২৫২৩।

শুধু 'বি' ইউনিট নয় বিজ্ঞান ও কৃষি অনুষদভুক্ত 'সি' ইউনিট এবং ‘এ’ ইউনিটের অধীনে কলা অনুষদ, আইন অনুষদ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ, চারুকলা এবং শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের রেজাল্ট নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে অনেক ভর্তিচ্ছু।
ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, বিজ্ঞান ও কৃষি অনুষদভুক্ত 'সি' ইউনিটে তিনটি শিফটে ৪৪ হাজার ১৯৪ জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়ার কথা থাকলেও এর মধ্যে অংশ নিয়েছেন ৩৩ হাজার ৫৪৩ জন শিক্ষার্থী। যেখানে উত্তীর্ণ হয়েছে ১৫ হাজার ২৮৪জন এবং উত্তীর্ণ হয়নি ১৮ হাজার ২৫৯ জন ভর্তিচ্ছু।

জাহিদ প্রামাণিক নামে এক শিক্ষার্থী 'সি' ইউনিটে তার প্রাপ্ত স্কোর আসে ৫২.২০। তবে তার মতে মার্কস ৭০ এর বেশী পাওয়ার কথা। একই অভিযোগ তুলেছেন, সুমাইয়া বিনতে মুর্শেদ। 'সি' ইউনিটে তার প্রাপ্ত স্কোর ৫০.৭৫। ৬০ এর বেশী উত্তর কারেক্ট হয়েছে।

ক্ষোভ প্রকাশ করে ভর্তিচ্ছু জাহিদ ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন,' আমি বাসায় এসে প্রশ্নপত্রের সাথে উত্তর মিলিয়ে দেখেছি ৬০টি মত উত্তর কারেক্ট হয়েছে। সে অনুযায়ী ৭০শতাংশ মার্কস আসার কথা। কিন্তু প্রাপ্ত ফলাফলে দেখেছি ৫০ শতাংশ মার্কস এসেছে বিশ্বাস করতেও কষ্ট হয়ে যাচ্ছে শুধু আমার নয় আমার বন্ধুদের ও এরকম হয়েছে, আমরা খাতা পুনর্মূল্যায়ন চাই।'

'এ' ইউনিটের রেজাল্ট আশানুরূপ হয়নি এমন অভিযোগ তুলে তাসমিনা তন্বী নামে এক ভর্তিচ্ছু বলেন, আমি 'এ' ইউনিটে থার্ড শিফটে পরীক্ষা দিয়েছিলাম। প্রশ্নের সাথে উত্তর মিলিয়ে দেখেছি ৬২ এর বেশী স্কোর থাকার কথা কিন্তু পেয়েছি ৫০। আমি এ রেজাল্টের পুনর্মূল্যায়ন চাই।'

'বি' ইউনিটের রেজাল্ট নিয়ে বিবিএ ১ম বর্ষ ভর্তি কমিটির চীফ কো- অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. জিন্নাত আরার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বেগম ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন,'যে সকল শিক্ষার্থী রেজাল্ট নিয়ে কনফিডেন্স রয়েছে এবং পুনর্মূল্যায়ন চায় তারা যেনও আমার সাথে যোগাযোগ করে। আমি তাঁদের খাতা দেখার সুযোগ করে দিবো।'

'সি' ইউনিটের ফলাফল ত্রুটিমুক্ত হয়েছে দাবি করে ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. ইকরামুল হামিদ ক্যাম্পাস লাইভকে বলেন, আগে এরকম ভুল হতো এখন ভুল হওয়ার সুযোগ নেই। যে সসব শিক্ষার্থীরা এসব বলতেছে তারাই ভুল করেছে।' পরীক্ষার খাতা বাতিল হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, 'পরীক্ষার সময় খাতায় ভুল হলে সেটা শিক্ষার্থীদের দায়। হ্যা, অনেক শিক্ষক রয়েছে যাদেরও ভুল হয়। তবে ওটা শিক্ষার্থীদের দায়িত্বটাই বেশী। তবে এ ধরনের ভুল খুব কম হয়েছে।'
খাতা পুনর্মূল্যায়ন নিয়ে তিনি বলেন, 'এ ধরনের কোন সুযোগ আমাদের হাতে নেই।' 'এ' ইউনিটের রেজাল্টের ত্রুটির বিষয়ে জানতে কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড.ফজলুল হকের সাথে মুঠোফোন যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো ভিসি সুলতান-উল ইসলাম ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, 'এ বিষয়টা ভর্তি কমিটি ও ডীনগণ ভালো বলতে পারবেন। আমরা এসব দায়িত্বে নাই।'

ঢাকা, ১২ অক্টোবর (ক্যাম্পাসইভ২৪.কম)//এমজে

 

 

 

 

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।