রাবিতে আবাসিক হল খুলে স্থগিত পরীক্ষা নেয়ার দাবি


Published: 2021-06-06 17:52:00 BdST, Updated: 2021-07-24 23:24:56 BdST

রাবি লাইভ: স্বাস্থ্যবিধি মেনে অবিলম্বে হল ও ক্যাম্পাস খুলে দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালুর পাশাপাশি সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ক্লাশ শেষ করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিভিন্ন ইয়ারের পরীক্ষা গ্রহণ ও হল খুলে স্থগিত পরীক্ষাগুলো নেয়ার দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (৬জুন) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের পেছনে এক সংবাদ সম্মেলন বিভিন্ন দাবির কথা জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মহাব্বত হোসেন মিলন বলেন, করোনা মহামারীর কারণে প্রায় ১৫ মাস বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ আছে। দীর্ঘ সময় শিক্ষার্থীরা শিক্ষা কার্যক্রম থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ সেশন জটে পড়ে শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। শিক্ষার্থীরা শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছে। অনেকে ছিটকে পড়ছে শিক্ষা জীবন থেকে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের এই কঠিন সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সম্পূর্ণ দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়ে চলেছে। বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চালু করার কোনো স্বদিচ্ছা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের মধ্যে দেখতে পাচ্ছি না। যার ফলে আমরা শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে আন্দোলনে যেতে বাধ্য হয়েছি।

আমরা আরো বলেছিলাম, কীভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ক্লাশ ও পরীক্ষা নেওয়া যায় তার একটা রোডম্যাপ শিক্ষার্থীদের কাছে উপস্থাপন করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন শিক্ষার্থীদের দাবি উপেক্ষা করে গত ৩ জুন নিজেদের মতো করে মনগড়া সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন বলে মনে করে শিক্ষার্থীরা বলেন, তারা আমাদের আন্দোলনকে দমানোর জন্য কোনো রকম পরিকল্পনা ছাড়া স্থগিত পরীক্ষাগুলো এবং ২০ সালের পরীক্ষাগুলো নেওয়ার তারিখ ঘোষণা করেছে।

একইসাথে হল বন্ধ রেখে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তারা পরীক্ষার তারিখ দিলেও কোন প্রক্রিয়ায় পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে তার কোনো রূপরেখা প্রদান করে নি। আমরা মনে করি, তাদের সিদ্ধান্ত শিক্ষার্থীদের দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ফেলেছে। মাস কয়েক আগেও তাদের এমন সিদ্ধান্তের কারণে শিক্ষার্থীরা বিপাকে পড়েছিল। আমরা প্রশাসনের এমন হঠকারী সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানাই।

এসময় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে কয়েকটি দাবি তুলে ধরে বলেন, "আমরা শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে স্পষ্ট বলতে চাই শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের তালবাহানা বন্ধ করতে হবে। প্রশাসন থেকে পরীক্ষা নেয়ার যে ঘোষণা দিয়েছে দ্রুত সময়ের মধ্যে তার রূপরেখা শিক্ষার্থীদের সামনে হাজির করতে হবে। হল না খুলে পরীক্ষা নেওয়ার অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে অবিলম্বে হল ও ক্যাম্পাস খুলে স্থগিত পরীক্ষাসহ অন্যান্য সকল ইয়ারের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। এক্ষেত্রে যাদের ক্লাশ প্রয়োজন তাদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে ক্লাশ নিয়ে পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে। আগামী ১০ দিনের মধ্যেই আমাদের সামনে একটি পূর্ণাঙ্গ রূপরেখা হাজির করতে হবে।"

দাবি গুলো না মানলে আগামী ১৭ তারিখ থেকে আমরা কঠোর আন্দোলনে নামার কথাও জানান শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, আবাসিক হলসমূহ বন্ধ রাখার শর্তে সশরীরে স্থগিত হওয়া পরীক্ষা নেয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) প্রশাসন। স্থগিত হওয়া পরীক্ষা সমূহ আগামী আগামী ২০ জুনের পর থেকেই শুরু হচ্ছে সেই সাথে ২০ জুনের পর ২০১৯ সালের স্থগিত পরীক্ষা সমূহ, আগামী ৪ জুলাই এর পর ২০২০ সালের পরীক্ষা সমূহ অনুষ্ঠিত হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তবে গত ৩ জুন বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের রুটিন ভিসি, প্রো-ভিসি, ডিন, বিভাগ সভাপতিদের সম্মিলিত এক বৈঠকে পরীক্ষার তারিখ দিলেও কোন প্রক্রিয়ায় পরীক্ষাগুলো অনুষ্ঠিত হবে তার কোনো রূপরেখা প্রদান না করায় এই সিদ্ধান্ত প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা, ৬ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//ওএফ//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।