ইবির শাপলা ফোরামের নির্বাচনে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন


Published: 2021-11-27 17:57:12 BdST, Updated: 2022-01-17 10:35:56 BdST

ইবি লাইভ: ইসলামী বিশ্বিবদ্যালয় (ইবি) শাপলা ফোরামের নির্বাচনে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সংখ্যালঘু পক্ষ। শনিবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের শিক্ষক লাউঞ্জে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ফোরামের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও ইলেকট্রিক এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান।

এদিকে পরিবহন প্রশাসক ও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনকে সভাপতি এবং ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর ড. মামুনুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

সংবাদ সম্মেলনে নির্বাচনের ফলাফলে কারচুপির আশঙ্কা করে আটটি অভিযোগ তুলেছেন বক্তারা। তারা বলেন, নির্বাচনে প্রতি পক্ষ থেকে দুইজন পর্যবেক্ষকের পরিবর্তে একজন পর্যবেক্ষকের অনুমুতি দেওয়া হয়েছে। কমিশন কর্তৃক প্রচারিত ভোট প্রদানের নির্দেশনার ২ ও ৫ ধারা লঙ্ঘন করে অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ৭ নং ধারার অপপ্রয়োগ করা হয়েছে। ভোট গণনা শুরুর আগে উভয় পক্ষের নেতৃবৃন্দকে ভোট গণনা কার্যক্রম অনলাইনে সম্প্রচার করার অনুমুতি প্রদান করলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি। একইসাথে ফলাফল কারচুপির উদ্দেশ্যে প্রকাশে অস্বাভাবিক সময় নেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ আনা হয়েছে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে।

এদিকে ব্যক্তিগত ভোট বালিতের প্রক্রিয়াটিও গোপন করা হয়েছে এবং পর্যবেক্ষককেও গোপন করতে অনুরোধ করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশন উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ভোট বাতিল করতে মোবাইল ক্যামেরা জুম বা ম্যাগনিফাইয়িং প্রযুক্তি ব্যবহার করেছেন। নিয়ম অনুযায়ী ভোট গণনাকালে সংশ্লিষ্টদের মোবাইল বন্ধ থাকার কথা থাকলেও প্রতিপক্ষের কেউ কেউ কমিশনের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করে ফলাফল প্রভাবিত করার চেষ্টা করেছেন। এছাড়া নির্বাচন পরবর্তী বিভিন্ন প্রশাসনিক পদের রদবদল শাপলা ফোরামের নির্বাচনে প্রশাসনের পরোক্ষ হস্তক্ষেপ ছিল বলে দাবি করেছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে ফোরামের সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান বলেন, ফলাফল ঘোষণার পর আমরা নির্বাচন কমিশনের কাছে লিখিত দিয়েছিলাম। এরপর থেকে কমশিন আমাদের দায়িত্বশীলদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করছে। কমিশন বলেছে, আমরা বুঝেছি আমাদের ভুল হয়ে গেছে। তারা আমাদের দায়িত্বশীলদের বলেছে, ভোট পুনঃগণনা করলে হয়তো ফলাফল উল্টে যাবে।’

এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশনের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. সরওয়ার মোর্শেদ বলেন, ‘প্রেস কনফারেন্স তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। ভোট গণনা কালে তাদের পক্ষের প্রতিনিধি ছিল। যদি পক্ষপাতিত্ব হয়ে থাকে তবে তাদের প্রতিনিধিকে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত করানো প্রয়োজন ছিল। আমরা তিনজন যথেষ্ট স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সাথে কাজ করেছি।’

সম্মেলনে শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. কাজী আখতার হোসেন, ফোরামের সদ্য সাবেক সভপতি প্রফেসর ড. রেজওয়ানুল ইসলাম, সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান, আইসিটি বিভাগের প্রফেসর ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ, একই বিভাগের প্রফেসর ড. তপন কুমার জোদ্দার, হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের প্রফেসর ড. শেলীনা নাসরীন, ইংরেজি বিভাগের প্রফেসর ড. মেহের আলী, ইবি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সরকার মাসুম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুমি নোমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকা, ২৭ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।