হেফাজত নেতা হারুন ইজহার আটক


Published: 2021-04-29 19:03:32 BdST, Updated: 2021-06-19 18:14:52 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক হারুন ইজাহারকে আটক করেছে র‍্যাব। বুধবার (২৮ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর খুলশী থানার লালখানবাজারে জামেয়াতুল উলুম আল-ইসলামিয়া মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

পরে নগরীর পতেঙ্গায় র‌্যাবের চট্টগ্রাম জোনের কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর হাটহাজারীতে তাণ্ডবের ঘটনায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে তাকে।

হারুন ইজাহার হেফাজতের সাবেক নায়েবে আমির ও ইসলামী ঐক্যজোটের (একাংশ) সভাপতি মুফতি ইজাহারুল ইসলামের ছেলে। যে মাদ্রাসা থেকে হারুনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেই মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা হচ্ছেন মুফতি ইজহার। জঙ্গি কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকাসহ নানা কারণে বেশ আলোচিত-সমালোচিত এই বাবা-পুত্র।

র‌্যাব চট্টগ্রাম জোনের অধিনায়ক লে. কর্নেল মশিউর রহমান জুয়েল হারুন ইজহারকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, 'হারুন ইজাহারকে আমরা আটক করেছি। এরপর ২৬ মার্চ থেকে তিনদিন ধরে হাটহাজারীতে চলা তাণ্ডব ও সহিংসতার বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে হাটহাজারীতে তাণ্ডবের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় তাকে মদদ দাতা হিসেবে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।'

২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর মুফতি ইজহার ও মুফতি হারুন পরিচালিত লালখান বাজার মাদ্রাসায় গ্রেনেড বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছিল। ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় কমপক্ষে পাঁচ জন আহত হন। তাদের মধ্যে দুইজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। পুলিশ ওই মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে চারটি তাজা গ্রেনেড এবং ১৮ বোতেল এসিড উদ্ধার করে।

সেই ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়ে দীর্ঘদিন কারাগারে ছিলেন মুফতি হারুন। এ ঘটনায় তিনটি ও হেফাজতের নাশকতার ৮ মামলাসহ মোট ১১টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ ছাড়া রাজধানীর শাপলা চত্বরে হেফাজতের লংমার্চের সময় সংঘর্ষ ও নাশকতার ঘটনায় দায়ের হওয়া তিনটি মামলার আসামি এই হেফাজত নেতা।

ঢাকা, ২৯ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।