পাখি হয়েই উড়ে গেল সেই ছাত্র সাজ্জাদ!


Published: 2018-10-24 00:01:51 BdST, Updated: 2018-11-17 23:51:00 BdST

কিশোরগঞ্জ লাইভ : পড়াশোনার পাশাপাশি গান গাওয়া, ইউটিউবে নিজের পেজের জন্য ট্রল বানানোই ছিল ফাহিম আরমান সাজ্জাদের নেশা। বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ছুটে বেড়ানো উচ্ছ্বল সেই ছেলেটি চলে গেছে না ফেরার দেশে। ইউটিউবের জন্য চলন্ত রেলের ভিডিও ধারন করতে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়েছিল তার দুই। আশংকাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হয়েছে। রাজধধানীর পঙ্গু হাসপাতালে তিনি মারা গেছেন।

সাজ্জাদের ফেসবুক এ্যাকাউন্টে সর্বশেষ পোস্ট ছিলো “নিজের মন যা চায়, তাই করতে চাই, আমি পাখি হতে চাই।” দুরন্ত সাজ্জাদের সেই স্ট্যাটাসই সত্য হয়েছে। পাখি হয়েই তিনি উড়ে গেছেন না ফেরার দেশে।

জানা গেছে, রোববার একদল সহপাঠী ও বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে কিশোরগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশনে ইউটিউবে তার লোকাল পেজের জন্য ভিডিও চিত্র ধারণ করতে গিয়ে দুই পা হারায় সাজ্জাদ। তাকে প্রথমে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে এবং পরে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মধ্যরাতে না ফেরার দেশে পাড়ি জমায় সে। তার অকাল ও মর্মান্তিক মৃত্যুর খবরে কিশোরগঞ্জ শহর ও গ্রামের বাড়ি জেলার পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের চরকাওনা বেলতলী গ্রামে শোকের ছায়া নেমে আসে। সোমবার সকালে গ্রামের বাড়িতে মরদেহ পৌঁছলে তাকে শেষ বারের মতো একনজর দেখতে ভিড় করে বন্ধু-স্বজনসহ শোকার্ত হাজারো এলাকাবাসী। সাজ্জাদ পাকুন্দিয়ার চরকাওনা বেলতলী গ্রামের মৃত আমিনুল হক তপনের ছেলে ও ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র। তার মা পরিবার পরিজন নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ কিশোরগঞ্জ শহরের হয়বতনগর এলাকায় বসবাস করছেন। সাজ্জাদ গ্রামের বাড়ি থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠ চুকিয়ে কিশোরগঞ্জ শহরে এসে মাধ্যমিক পর্যায়ের লেখাপড়া শেষে ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি হন। রোববার সহপাঠি ও বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে সে ব্যাক্তিগত ইউটিউব পেজের জন্য রেললাইনে দাঁড়িয়ে ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জ স্টেশনে প্রবেশের সময় আন্তঃনগর কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনের ভিডিও চিত্র ধারণ করছিলো। এসময় ভিডিও চিত্র ধারণে সে এতই মনোযোগী হয়ে উঠে যে, এসময় সে হিতাহিত জ্ঞান শুন্য হয়ে পড়ে। আশপাশের লোকজন ডাকচিৎকার শুনে স্থান ত্যাগের আগেই ট্রেনের নিচে দুই পা কাটা পড়ে তার।

ঢাকা, ২৩ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।