"ডায়াবেটিস ভীতি দূর করবে সচেতনতা"


Published: 2021-03-03 17:59:18 BdST, Updated: 2021-04-18 21:27:56 BdST

মোঃ মোহাইমিনুল: ডায়াবেটিস রোগ সম্পর্কে জনসাধারণের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ ডায়াবেটিস সমিতির উদ্যোগে প্রতিবছরই বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহনের মাধ্যমে ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস পালিত হয়ে থাকে। ১৯৫৬ সালের ২৮ শে ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ ডায়াবেটিস সমিতি প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠা দিবসেই ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস পালন করা হয়ে থাকে। এর উদ্যোক্তা ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ডাঃ মোহাম্মদ ইব্রাহিম।

বর্তমান বিশ্বে মানুষের মৃত্যুর অন্যতম কারণ হিসেবে ডায়াবেটিসকে চিহ্নিত করা হয়েছে। যেকোনো বয়সের নারী-পুরুষ ডায়াবেটিস দ্বারা আক্রান্ত হতে পারে। এক গবেষণার ফলাফলে উঠে এসেছে, আক্রান্ত রোগীর সংখ্যার দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বে দশম। বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের চেয়ে শহরাঞ্চলে ডায়াবেটিসে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি এবং নারীদের তুলনায় পুরুষদের আক্রান্ত হওয়ার হার বেশি।

আইডিএফ, IDF (International Diabetes Federation) এর প্রকাশিত এক তথ্যমতে, বর্তমান বিশ্বে প্রায় ৫০ কোটি ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগি থাকলেও তা বৃদ্ধি পেয়ে আগামী ২৫ বছরের মধ্যে ৭০০ মিলিয়ন অর্থাৎ ৭০ কোটিতে পৌঁছাতে পারে। অর্থাৎ বলা যায় যে, দিনদিন আশঙ্কাজনক হারে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে।আন্তজার্তিক স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে যে, উন্নত দেশগুলোর তুলনায় নিম্ন ও নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশে ডায়াবেটিস আক্রান্তের হার বেশি।

ইনসুলিন নামক এক প্রকার হরমোনের অভাবজনিত কারনে অথবা যদি দেহে উৎপাদিত ইনসুলিনের কার্যকারিতা কমে যায় তাহলে রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যায়। মানবদেহের এই পরিস্থিতিকেই ডায়াবেটিস বলে অভিহিত করা হয়ে থাকে।

কেউ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হলো কি না সেটা বুঝবো কীভাবে? সাধারণত রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণের আধিক্যের উপরে ডায়াবেটিস রোগ নির্ভর করে।খালি পেটে অর্থাৎ অভুক্ত অবস্থায় যদি গ্লুকোজের পরিমাণ ৭.১ এর বেশি থাকে এবং খাবার গ্রহনের দু'ঘন্টা পরে যদি গ্লুকোজের পরিমাণ ১০ এর উপরে থাকে, তাহলে ডায়াবেটিস আক্রান্ত বলে ধরে নেয়া হয়। ডায়াবেটিস সাধারণত কখনও ভালো হয় না তবে এই রোগ নিয়ন্ত্রণে রেখে জীবনে স্বাভাবিকতা ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

ঘন ঘন প্রসাব, ঠিকমতল আহার গ্রহনের পরেও স্বাস্থ্য ঠিক না থাকা, কাঁটা-ছেড়া স্থান দ্রুত সেড়ে না ওঠাও ডায়াবেটিসের ইঙ্গিত বহন করে। তবে, ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত রোগিদের বিশেষ করে পায়ের যত্ন নিতে হয়। কারণ, পায়ে পচন ধরে গ্যাংগ্রীন হয়ে গেলে পঙ্গুত্ব বরণ করে নেয়া ছাড়া উপায় থাকে না।

ডায়াবেটিস আক্রান্ত রোগিদের নিয়মিত ব্যায়ামের পাশাপাশি খাদ্যাভ্যাসেও পরিবর্তন আনতে হয় আইডিএফ থেকে প্রদত্ত এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে,সপ্তাহে ৩-৫ দিন কমপক্ষে হলেও ৩০-৩৫ মিনিট কায়িক শ্রম করা উচিত।খাদ্যাভ্যাসের ক্ষেত্রে চিনি ও ফ্যাট জাতীয় খাবার পরিহার করতে হবে। তামাকের ব্যবহার এড়ানো এবং এলকোহল রোগীদের জন্য একাবারে নিষিদ্ধ। পর্যাপ্ত পরিমাণ সবুজ শাকসবজি,তাজা ফল গ্রহন করা উচিত।

বাংলাদেশে দিনদিন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েই চলছে। এ রোগ থেকে ভালো থাকার উপায় এবং গণসচেতনতা সৃষ্টি করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ডায়াবেটিস সমিতি তার প্রতিষ্ঠা দিবসকে ডায়াবেটিস সচেতনতা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে।

লেখক: মোঃ মোহাইমিনুল
শিক্ষার্থী, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা, ০৩ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।