43818

৬ জেলায় যাবে পাবিপ্রবির বাস, সাধারণ শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

৬ জেলায় যাবে পাবিপ্রবির বাস, সাধারণ শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

2021-07-15 09:44:46

পাবিপ্রবি লাইভ: পরীক্ষা দিতে এসে শাটডাউনে আটকে পড়া শিক্ষার্থীদের বাড়ী পৌঁছে দিতে ৬টি রুটে বাস দিচ্ছে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। গতকাল বুধবার বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন পুলের প্রশাসক ড. কামরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এটি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্ততিতে বলা হয় আগামী ১৬ এবং ১৭ই জুলাই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬টি বাস পাবনা থেকে রংপুর, বগুড়া, টাঙাইলের এলেঙ্গা, ঝিনাইদহ, কুষ্টিয়া এবং রাজশাহীতে সকাল ৭টা এবং ৯টায় রওনা হবে। তবে অন্য জেলার শিক্ষার্থীরা কীভাবে বাসায় যাবে সেটা বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়নি।

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ফেনী থেকে পরীক্ষা দিতে আসা ফার্মাসি বিভাগ শিক্ষার্থী আবদুল আলী ক্যাম্পাসলাইভকে জানান “অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলো যখন বিশ্ববিদ্যায়ের বাসে সব জেলার শিক্ষার্থীদের পৌঁছে দিচ্ছে তখন আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় মাত্র কয়েকটা জেলায় বাস দিচ্ছে যেটা সত্যি নাম মাত্রই মনে হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন চাইলে সব জেলার শিক্ষার্থীরদের পোঁছে দিতে পারতো কিন্তু সেটা করেনি। আমরা চাই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে সব জেলার শিক্ষার্থীদের পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসুক এবং আটকে পড়া সব শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করেই বাড়ী ফেরা হোক"।

জামালপুর থেকে আসা পরিসংখ্যান বিভাগের শিক্ষার্থী হৃদয় হাসান ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন- “এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটা খামখেয়ালি সিদ্ধান্ত। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সব শিক্ষার্থীরে নিয়ে চিন্তা করা উচিত ছিলো, সব বিভাগীয় শহরে অন্তত একটা করে বাস দিতে পারতো। মাত্র ৬ জেলায় বাস দিয়ে দায়সারা কাজের পরিচয় দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন”।

আটকে পড়া শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে বাড়ী পৌঁছে দিতে শুরু থেকে আহ্বান জানিয়ে আসছিলো বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। বাসের রোডম্যাপ সম্পর্কে জানতে চাইলে পাবিপ্রবি বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক ফরিদুল ইসলাম বাবু জানান-“আমরাই (বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ) আবেদন করি সাধারণ শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি নিরসনে বাস দিতে। কিন্তু এটা দুঃখজনক যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাদের সাথে কোন আলোচনা না করেই হটকারিতায় এমন একটা অযোক্তিক রোডম্যাপ প্রকাশ করেছে। আমরা এরকম সিদ্ধন্তের নিন্দা জানাই এবং এটাকে বয়কট করলাম”।

এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন প্রশাসক প্রফেসর ড. মো: কামরুজ্জামান ক্যাম্পাসলাইভকে জানান, ”এখানে আমার করার মতো তেমন কিছু নেই, আমাকে কর্তৃপক্ষ যে কোন নির্দেশ দিলেই আমি স্বাক্ষর করে দিব”।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. হাসিবুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে উনাকে ফোনে পাওয়া যায়নি।

সহকারী প্রক্টর ফারুক আহমেদের সাথে যোগাযোগ করলে এই বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না বলে জানান।

ঢাকা, ১৫ জুলাই (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এএএম//এমজেড

প্রধান সম্পাদক: আজহার মাহমুদ
যোগাযোগ: হাসেম ম্যানসন, লেভেল-১; ৪৮, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, তেজগাঁ, ঢাকা-১২১৫
মোবাইল: ০১৬৮২-৫৬১০২৮; ০১৬১১-০২৯৯৩৩
ইমেইল:[email protected]