40220

মাতৃগর্ভে প্রথম করোনা আক্রান্ত হলো শিশু

মাতৃগর্ভে প্রথম করোনা আক্রান্ত হলো শিশু

2021-03-02 22:37:50

লাইভ ডেস্ক: প্রথম মাতৃগর্ভে করোনা আক্রান্ত হলো একজন নিস্পাপ শিশু। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এটাই বিশ্বের প্রথম শিশু। এর আগে এমনটি শুনা যায়নি। ঘটনাটি সুইডেনের। পেটে প্রচুর ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সম্ভাব্য কোভিড আক্রান্ত এক গর্ভবতী নারী।

সংশ্লিস্টরা জানান, সু্ইডেনের স্কেন বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তির পর সেখানকার চিকিৎসকরা গর্ভে থাকা শিশুটির শারিরীক কার্যক্রমে কিছু অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করেন।

পরীক্ষার পর তারা জানান, শিশুটির হার্টরেট একদমই কমে গেছে। তারা ধারণা করেন, মাতৃগর্ভে শিশুটি পর্যাপ্ত অক্সিজেন পাচ্ছেনা বলেই এমন হচ্ছে। এরপরই জরুরিভিত্তিতে অপারেশন করে ডেলিভারি করেন চিকিতসকরা।

জন্মের পরই তার রক্ত পরীক্ষা করে জানা যায়, শিশু ও মা উভয়েই করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। তাদের শরীরে পাওয়া ভাইরাসের জিনোম সিকুয়েন্স বিশ্লেষণ করে নিশ্চিত হওয়া গেছে, মাতৃগর্ভে থাকা অবস্থায়ই শিশুটি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিল।

গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেন, মায়ের থেকেই শিশুটি করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। কিন্তু জন্মের পরপরই শিশুটিকে আইসোলেশনে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এতেই নিশ্চিত হওয়া যায় শিশুটি জন্মের আগেই করোনা আক্রান্ত ছিল।

গবেষকরা বলছেন, এটিই বিশ্বে প্রথম এমন ঘটনা। এর আগে মাতৃগর্ভে বসে করোনা আক্রান্ত হওয়ার কোনো ঘটনা ঘটেনি। বিজ্ঞান বিষয়ক ওয়েবসাইট সায়েন্স এলার্টে এ খবরটি প্রকাশিত হয়েছে ৷

কিন্তু প্রশ্ন একটাই মাতৃগর্ভে থাকাকালীন কীভাবে ভাইরাস তার শরীরে বাসা বাঁধল? যদিও এ বিষয়ে কোনো সুস্পষ্ট তথ্য নেই চিকিৎসকদের কাছে। নর্থ মিডলসেক্স হাসপাতালের চিকিৎসকদের অনেকেই মনে করছেন, শিশুটির মা ভাইরাস আক্রান্ত ছিলেন। তাই গর্ভে থাকাকালীন শিশুর শরীরেও তা সংক্রামিত হয়েছিল।

আবার কেউ কেউ বলছেন, প্রসবের প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ভাইরাস তার শরীরে থাবা বসিয়েছে। এই ঘটনার পর থেকে শিশু এবং বৃদ্ধদের সাবধানে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

সেখানে আরো বলা হয়েছে, শিশুর দেহে থাকা ভাইরাসটির মিউটেশন শনাক্ত করেছেন বিজ্ঞানীরা। জন্মের ৫ দিনের মাথায়ই এই মিউটেশন শুরু হয়।

মায়ের গর্ভে থাকার তুলনায় আলাদা পরিবেশে আসায় এই মিউটেশন শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। চারদিনের মাথায়ই ওই শিশুর মা সুস্থ হয়ে যান। তবে শিশুটিকে এখনো পর্যবেক্ষণে রেখেছেন চিকিত্সকরা। এনিয়ে বিভিন্ন গবেষকরা গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

ঢাকা, ০২ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

প্রধান সম্পাদক: আজহার মাহমুদ
যোগাযোগ: হাসেম ম্যানসন, লেভেল-১; ৪৮, কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউ, তেজগাঁ, ঢাকা-১২১৫
মোবাইল: ০১৬৮২-৫৬১০২৮; ০১৬১১-০২৯৯৩৩
ইমেইল:[email protected]