Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | রবিবার, ১৯শে মে ২০২৪, ৫ই জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
teletalk.com.bd
thecitybank.com

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রঙের জোয়ার

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২৩, ১৭:৩৬

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে রঙের জোয়ার

রায়হান আবিদ,বাকৃবি: সুজলা-সুফলা, শস্য-শ্যামলা সবুজের ছাঁয়া ঘেরা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) দেখা দিয়েছে রঙের জোয়ার। সড়কের দুইধারে, অনুষদ ভবনের সামনে, বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ে কিংবা হলগুলোর ভেতরে রং ছড়িয়ে দিচ্ছে লাল, গোলাপি ও হলুদ রঙের ফুলের গাছ। জৈষ্ঠ্য মাসের সূর্যের কিরণের সাথে রঙ-বেরঙের ফুলগুলো যেন আরোও প্রজ্বলন ছড়াচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যলয়ের প্রধান ফোটক জুড়ে ফুটেছে লাল আভা প্রজ্বলিত ফুল কৃষ্ণচূড়া। কৃষ্ণচূড়ার ফুল দেখে মনে হয় গাছের ডালে ডালে যেন আগুন লেগেছে। তবে যে তাকাবে তার চোখে এক স্নিগ্ধতার ছোঁয়া দিতে যেন ভুলে না এই লাল ফুল গুলো। ক্যাম্পাসের সড়কগুলোর দু’পাশে বিশাল বিশাল ছাতার মতো নিজেকে মেলে ধরেছে এই বৃক্ষগুলো।

ফুটেছে লাল আভা প্রজ্বলিত ফুল কৃষ্ণচূড়া

কৃষ্ণচূড়ার আরেক নাম ‘গুলমোহর’। গাছটির উৎপত্তি এশিয়া মহাদেশেই। মে মাসে শুরু হয় এই গাছের ফুল ধরা। বাকৃবির ফসল উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো ছোলায়মান আলী ফকির বলেন, দুই ধরনের কৃষ্ণচূড়া দেখা যায় এদেশে। যার মধ্যে একটি সম্পূর্ণ গাছ জুড়ে লাল ফুলে ভরে যায়। আরেকটি গাছ আছে লাল ফুলের পাশাপাশি সবুজ পাতাও দেখা যায়। মূলত শোভাবর্ধনের জন্য কৃষ্ণচূড়া গাছ ব্যবহার করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষদ ভবনের সামনে ও ব্রহ্মপুত্র নদের পাড় জুড়ে হলুদের আভা ছড়াতে দেখা যায় বাঁদর লাঠিকে। অনেকে হয়তো ‘সোনালু নাম’ বললে চিনতে পারবেন। হলুদ রঙের ফুলে ছেয়ে যায় সম্পূর্ণ গাছটি। এ গাছের বীজও ধরতে দেখা যায় মে মাসেই। প্রকৃতিকে নয়নাভিরাম রূপে সাজাতে যেন এই গাছটির জন্ম। ব্রহ্মপুত্র নদের পাড় ঘেঁষে পরিবেশের শোভা বর্ধনে সারিবদ্ধ ভাবে লাগানো রয়েছে সোনালু গাছ। উদ্ভিদ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ড. মো ছোলায়মান আলী ফকির বলেন, সড়কের দুই পাশে সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য সারিবদ্ধ ভাবে এই ধরনের গাছ লাগানো হয়। তবে সোনালু গাছের রয়েছে ঔষধি গুণাগুণ। সোনালু গাছের বাকল এবং পাতা থেকে ঔষধি নির্যাস পাওয়া যায়। ডায়রিয়া ও বহুমূত্র রোগের চিকিৎসাতেও ব্যবহার হয় সোনালু। আয়ুর্বেদ চিকিৎসায় সোনালু গাছের বীজের রয়েছে ব্যাপক চাহিদা।

লাবণ্যময় বার্মিজ গোলাপি সোনালু

বিশ্ববিদ্যালয়ের পশুপালন অনুষের সামনে দাঁড়ালেই চোখে পড়ে গোলাপি ফুলের এক গাছ। অনেকে বার্মিজ গোলাপি সোনালু নামে চিহ্নিত করলেও আাসলে এটি ক্যাসিয়া রেনিগেরা। কাছাকাছি দেখতে এমন আরেকটি গাছ আছে যাকে বাংলায় লাল সোনাইল বলা হয়। গোলাপি রঙের সৌন্দর্যতায় যে কেউ মুগ্ধ হবেই। এই গাছের তেমন কোনো ঔষধি গুণাগুণ না থাকলেও রয়েছে সৌন্দর্য বর্ধনের গুণ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফোটক থেকে শুরু করে শেষ মোড় পর্যন্ত সড়কের দু’পাশ জুড়ে ফুটে রয়েছে লাল আভা প্রজ্বলিত ফুল কৃষ্ণচূড়া, হলুদের শোভনে আচ্ছাদিত সোনালু ও গোলাপির লাবণ্যময় বার্মিজ গোলাপি সোনালু। সুশোভিত রঙিন ক্যাম্পাস দেখতে দূরদুরান্ত থেকে ঘুরতে আসছেন দর্শনার্থীরা। তারা সেলফি আর ছবি তুলতেই বেশি ব্যস্ত। বেশিরভাগই আসছেন বন্ধু-বান্ধব নিয়ে।

ঢাকা, ২৭ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএফ

 


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ