ঢামেকে কর্মচারীর ওপর শিক্ষার্থীর হামলা, আলটিমেটাম


Published: 2022-01-11 17:16:47 BdST, Updated: 2022-01-19 06:46:02 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মো. শাকিল আহমেদের (জনি) ওপর এক শিক্ষার্থীর হামলার ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চেয়ে ৪৮ ঘণ্টার আলটিমেটাম দিয়েছে বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী সমিতি।

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) চতুর্থ শ্রেণির নেতারা সকাল ১০টার দিকে হাসপাতালের প্রশাসনিক ব্লকের সামনে এক প্রতিবাদ সভায় এই আলমেটাম দেন।

প্রতিবাদ সভায় নেতারা বলেন, আগাম কর্মসূচী অনুযায়ী গতকাল বাংলাদেশ চতুর্থ শ্রেণি কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে আউট সোর্সিংয়ে জনবল নিয়োগের প্রতিবাদে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের সামনে শান্তিপূর্ণ ভাবে অবস্থান করছিলাম।

এ সময় কলেজের কিছু ছাত্ররা সংগঠনের ক্রীড়া সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মো. শাকিল আহমেদ জনিকে কলেজ চত্বর থেকে মারধর করে। জনি দৌড়ে পালিয়ে হাসপাতালের ১০৯ নম্বর ওয়ার্ডে গেলে সেখানেও গিয়ে মারধর করে এবং শৌচাগারে আটকিয়ে রাখে।

নেতারা আরও বলেন, পরিচালক মহোদয় কর্মকর্তা কর্মচারীদের সঙ্গে নিয়ে জনিকে উদ্ধার করে। জনি বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছে। এই ঘটনায় ঢামেক হাসপাতাল ছাড়াও সারা বাংলাদেশের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীরা নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ও ঢামেক পরিচালক বরাবর স্মারক লিপি দিয়েছি। ৪৮ঘণ্টার মধ্যে এর সুষ্ঠু বিচার করতে হবে। অন্যথায় আমরা বৃহৎ কর্মসূচীতে যাব। সেখানে কোন কোন অবাঞ্ছিত ঘটনা ঘটলে তার দায় দায়িত্ব কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে।

এ ব্যাপারে হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির সভাপতি আবু সাঈদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা কলেজের অধ্যক্ষ ও হাসপাতালের পরিচালক বরাবর চিঠি দিয়েছি। এই ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা না নিলে আমরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করব। তিনি আরও জানান, কর্তৃপক্ষ আমাদের আশ্বস্ত করেছে তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

এ ব্যাপারে ঢাকা মেডিক্যাল পরিচালক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. নাজমুল হক জানান, তদন্ত সাপেক্ষে অতি গুরুত্বের সঙ্গে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।

ঢাকা, ১১ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।