বর্ণিল সাজে সজ্জিত ইবি


Published: 2018-11-03 22:20:50 BdST, Updated: 2018-11-18 02:15:03 BdST

ইবি লাইভ: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আসন্ন ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষ অনার্স (সম্মান) প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে বর্ণিল সাজে সেজেছে ক্যাম্পাস। পাল্টে গেছে ক্যাম্পাসের পুরনো চিত্র।

সরেজমিনে ক্যাম্পাস ঘুরে দেখা যায়, প্রধান ফটকে নতুন রঙের ছোঁয়া। প্রধান ফটক সংলগ্ন দেওয়ালে শোভা পাচ্ছে নতুন রং। ফটকের ভিতরে "মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব" ম্যুরালের সামনের চত্তরে বিশালাকৃতির রংতুলির আঁচল। আলপনায় ছেঁয়ে গেছে প্রধান প্রধান স্পটগুলো। গাছের গোড়ায় শোভা পাচ্ছে সাদা রংয়ের ছোঁয়া।

এছাড়া নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ করতে এবং সর্বোচ্চ সেবা দিতে প্রস্তুত করা হয়েছে আবাসিক হলগুলো। সন্ধ্যা নামার সাথে সাথে হলগুলোতে দেখা গেল মিটিমিটি আলোর খেলা। পরিষ্কার করা হয়েছে ক্যাম্পাসের প্রত্যেকটি অঙ্গন। কেটে ফেলা হয়েছে ঝোঁপ-ঝাড়। বিশ্ববিদ্যালয় লেককে নবরুপে রাঙ্গিয়ে তোলা হয়েছে।

ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে বর্ণিল সাজে সেজেছে ক্যাম্পাস

 

লেক হতে সব কচুরিপানা উঠানোর ফলে পানিতে এসেছে স্বচ্ছতা। রঙ-বেরঙে সাজানো হচ্ছে বিভিন্ন ভবন ও স্থাপনা। ভর্তিচ্ছুদের কাছে ক্যাম্পাসকে আকর্ষণীয় করে তুলতে শিক্ষার্থীদের আড্ডার কেন্দ্রস্থল ডায়না চত্বরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছে।

সাজানো হয়েছে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি ভাস্কর্য মুক্তবাংলা, স্মৃতিসৌধ এবং শহীদ মিনারকে। নান্দনিক সততা ফোয়ারা দিয়ে ঝরছে ঝর্নাধারার ন্যায় পানির প্রবাহ। অন্ধকার রাতে এ পানি প্রবাহ কখনো নীল কখনো বেগুনী আবার কখনো আসমানী রং ধারন করছে।

এদিকে নতুন শিক্ষার্থীদের বরণ করতে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে শাখা ছাত্রলীগ। মেইন গেটে স্টল বসানো, প্রতিটি হলে শিক্ষার্থীদের থাকার সুব্যবস্থা করা, সমস্ত ক্যাম্পাসে লিফলেট বিতরন, আলপনার কাজ, বঙ্গবন্ধুর ছবি সংবলিত পোস্টার টানানোসহ শিক্ষার্থীদের কল্যানার্থে বর্তমান ব্যস্ত সময় পার করছে নেতা-কর্মীরা।

ভর্তি পরীক্ষাকে সামনে রেখে বর্ণিল সাজে সেজেছে ক্যাম্পাস

 

এবারের ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি শতভাগ সম্পন্ন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। অন্যবারের তুলনায় এবারে প্রক্সিবাজ ও জালিয়াতকারীদের প্রশ্ন জালিয়াতি ঠেকাতে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পাশাপাশি ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে বিএনসিসি,রোভার স্কাউট, পুলিশ, পোশাকধারী- সাদা পোশাকধারী র্যাব, ডিএসবি সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার কড়া নজরদারী থাকবে।

এতোমধ্যে ক্যাম্পাসে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ও র্যাব তাদের গোয়েন্দা নজরদারী বাড়িয়েছে। বর্তমানে পুরো ক্যাম্পাস অত্যাধুনিক পিটিজেট ও বুলেট ক্যামেরার আওতায় রয়েছে। যার মাধ্যমে যেকোন অপরাধীকে তাৎক্ষণিকভাবে সনাক্ত করা সম্ভব। প্রধান ফটক ও ভবন সমূহের গেটে পরীক্ষার্থীদের ইলেক্ট্রিক ডিভাইস শনাক্তকরণের জন্য আর্চওয়ে গেট ও মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে সার্চ করা হবে।

এ বিষয়ে প্রক্টর প্রফেসর ড. মাহবুবর রহমান "ক্যাম্পাস লাইভ'কে বলেন, "আমরা ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে ক্যাম্পাসে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয় তৈরি করছি। কোন চক্র চেষ্টা চালালে আমরা তাদের প্রশমিত করার চেষ্টায় আছি। আবার যদি সেই চক্র কোন প্রকার চক্রান্তের চেষ্টা করে, তবে সে নিশ্চিত ফাঁদে পড়বে।"

ক্যাম্পাসের সার্বিক পরিস্থিতি সম্পর্কে ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী 'ক্যাম্পাস লাইভ'কে বলেন, 'এবারের ভর্তি পরীক্ষায় আমরা বেশ কিছু মৌলিক পরিবর্তন এনেছি। প্রথমবারের মত লিখিত পরীক্ষা সহযোজন এবং শিক্ষার্থীদের ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে ইউনিট কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এছাড়া শতভাগ নকলমুক্ত, সুন্দর এবং সুষ্ঠু পরিবেশে সর্বোচ্চ মেধাবীদের ক্যাম্পাসে আগমন নিশ্চিত করতে সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। আমি এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।'

 


ঢাকা, ৩ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

 

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।