Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল ২০২৪, ৯ই বৈশাখ ১৪৩১
teletalk.com.bd
thecitybank.com
সাক্ষাৎকারে ববি ট্রেজারার ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া

'বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিতে আরও বেশি কাজ করতে হবে'

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২৩, ০২:৪৩

ববি ট্রেজারার ড. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) দ্বিতীয় ট্রেজারার হিসেবে ২০২২ সালের ১৯ এপ্রিল যোগদান করেন অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া৷ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের প্রাধ্যক্ষ, ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান, ঢাবির সহকারী প্রক্টর হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়াও, তিনি জনপ্রিয় কলামিস্ট এবং টকশো ব্যক্তিত্ব হিসেবে পরিচিত। ট্রেজারার হিসেবে একবছর পূর্ণ করায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে তার স্বপ্ন-ভাবনা ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কথা বলেছেন ক্যাম্পাসলাইভের সঙ্গে। সাক্ষাৎকার নিয়েছেন বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি মো. জাকির হোসেন

ক্যাম্পাসলাইভ: বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার হিসাবে এক বছর পূর্তিতে আপনাকে অভিনন্দন।

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: ধন্যবাদ।

ক্যাম্পাসলাইভ: গত এক বছরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কি কি পরিবর্তন দেখেছেন?

ড. মো.বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: আমি যোগদানের পরে প্রথমে বাজেট নিয়ে কাজ করি। জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সকলকে সাথে নিয়ে প্রত্যেকটা শাখার বাজেট কিভাবে আসলো সেগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করেছি৷ আমার হাত ধরেই ডিজিটাল পদ্ধতিতে বাজেটের উত্থাপন করা হয়েছে এবং কার জন্য কতটুকু বরাদ্দ সেটা সবাই জানতে পেরেছে৷

ক্যাম্পাসলাইভ: বিশ্ববিদ্যালয়ে আবাসন সমস্যা, সেশনজট, শিক্ষক স্বল্পতা সমস্যাগুলো রয়েছে? এগুলো নিয়ে আপনার ভাবনা কি?

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: আবাসন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে আমি এসেই প্রথম ফেজের কাজটা সম্পন্ন করেছি৷ পিসিআর রিপোর্ট জমা দিয়েছি৷ পাশাপাশি ডিপিপি দ্বিতীয় ফেজের কাজের অগ্রগতি হিসাবে আমি আহবায়ক হিসাবে শিক্ষা মন্ত্রালয়ে প্রেরণ করেছি৷ অর্থাৎ এই বিষয়গুলো অনেকদূর এগিয়ে গেছে৷ আশা রাখি সামনের দিনগুলো ভালো ধরণের ফিডব্যাক পাবো৷ সরকারও যথেষ্ট পরিমাণ গুরুত্ব দিচ্ছে৷ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে আমরা সকলে মিলে ছাত্র-শিক্ষকদের আবাসনের ব্যবস্থায় আমরা যথেষ্ট পরিমাণ গুরুত্ব দিচ্ছি৷ মেয়েদের ফজিলাতুন্নেসা মুজিব হলের বিষয়ে উদ্যোগ নিয়ে উপাচার্য মহোদয় ও প্রোভোস্টের সাথে আলোচনা করে কিভাবে দ্রুত হলে উঠানো যায় সেটা কিন্তু সম্ভব হয়েছে৷ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী সকলের আবাসন ব্যবস্থা কিভাবে নিশ্চিত করা যায় সেটাও আমাদের নজরে আছে৷

সেশনজট করোনার কারণে বেড়েছে৷ শিক্ষার্থীরা যেন সময়মতো বের হতে পারে সেটার জন্য কাজ করছি৷ দ্রুত গতিতে শিক্ষার্থীরা যেন বের হতে পারে সেটাই আমাদের মূল কাজ৷ বেশ কয়েকবার ডিন, চেয়ারম্যান, শিক্ষকদের সাথে আলোচনা করেছি৷ শিক্ষার্থীরা যেন সময়মতো বের হতে পারে সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করেছি। সামনের দিনে ইতিবাচকভাবে আমাদের আরও বেশি কাজ করার সুযোগ আছে৷

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট স্বীকার করে তিনি বলেন, এখানে শিক্ষক সংকট প্রকট যা শিক্ষার্থীদের তুলনায় অপ্রতুল্য৷ শিক্ষক অপ্রতুল্য থাকলে শিক্ষার গুণগত শিক্ষা ও মান ঠিক থাকে না৷ শিক্ষকরা প্রচুর চেষ্টা করছে, তারা প্রচুর কর্মঘন্টা দিচ্ছে৷ কিন্তু সল্পতা থাকায় তাদের নাভিশ্বাস উঠে যাচ্ছে৷ সামনের দিনে দ্রুত গতিতে ইউজিসি ও শিক্ষা মন্ত্রালয়ে আমাদের এ বিষয় নিয়ে আরও বেশি কাজ করতে হবে৷

ক্যাম্পাসলাইভ: আপনি শুরু থেকে ইতিবাচকভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া কথা বলছেন। সামনে কিভাবে এই ধারা অব্যাহত রাখবেন?

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষাব্যবস্থাকে কিভাবে নেতৃত্ব দেওয়া যায় এবং শিক্ষার্থীদের মনের ভাষা বুঝে শিক্ষা কার্যক্রমটাকে কিভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নেওয়া যায় এই বিষয়টা কিন্তু আমার শিক্ষাজীবন থেকে দেখেছি৷ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা ফোরামে কাজ করতে যেয়ে আমার উপলব্ধি হয়েছে বিষয়টি৷ বিশ্ববিদ্যালয়টাকে সঠিকভাবে এগিয়ে নিতে কিছু ইতিবাচক কার্যক্রম হাতে নিতে হয়৷ যার মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সব জায়গায় যেন কৃতীত্বের স্বাক্ষর রাখতে পারে৷ তারা যেন কোন প্রকারের সেশনজটের কবলে না পড়ে সেজন্য সেমিনার, ওয়ার্কসপ, যুগ-উপযোগী শিক্ষা ও হাতে কলমে প্রশিক্ষণ, ইন্ডাষ্ট্রির সাথে এলাইনস করে আমাদের একাডেমিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে৷ নানা জায়গায় কোলাবরেশন প্রোগ্রাম চালু করতে হবে৷ তাহলে শিক্ষার্থীরা সেরা শিক্ষা কার্যক্রম পাবে এবং নানা সুযোগ সুবিধা তারা পাবে৷

ক্যাম্পাসলাইভ: ছাত্র রাজনীতি নিয়ে ক্যাম্পাসের সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখতে কি কি পরিকল্পনা গ্রহণ করা যায়?

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: ছাত্র রাজনীতি খুবই ইতিবাচক৷ বাংলাদেশের শিক্ষা কার্যক্রমটাকে সুংসগঠিত করতে ছাত্র রাজনীতির গুরুত্ব রয়েছে৷ শিক্ষার্থীরা যেন সহনশীল রাজনীতি এবং ছাত্র-শিক্ষার্থীবান্ধব রাজনীতির ধারা সূচনা করতে পারে এজন্য তাদেরকে উৎসাহিত করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শের ধারায় তাদেরকে সানিত করা৷ স্মার্ট বাংলাদেশ ও আগামীর বাংলাদেশ বিনিমার্ণে ছাত্ররাজনীতির যথেষ্ট গুরুত্ব আছে। আলোকিত ও সমাদ্রিত ধারণ করতে বিভিন্ন স্থানে নানা ফোরামে সম্পকৃত করতে আমাদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা প্রদান করতে হবে। নেতিবাচক রাজনীতিটা পরিহার করতে হবে৷ যে রাজনীতি শিক্ষা কার্যক্রম ও উন্নয়নকে ব্যহত করে সেই রাজনীতি থেকে দূরে থাকা উচিৎ৷ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান ছাত্ররাজনীতি ইতিবাচক ধারায় পরিচালিত হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

ক্যাম্পাসলাইভ: শিক্ষার্থীদের অভিযোগ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে "বাজেট নেই" বলা হয় এমন মন্তব্যে আপনার মতামত কি?

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: আমরা এখন বৈশ্বিক সংকটে আছি৷ সারা পৃথিবীজুড়ে যে অর্থনৈতিক সংকট চলছে সেখানে আমরা কিন্তু এর ব্যতিক্রম না৷ বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আমাদের উচিৎ সরকারকে সহযোগিতা করছি৷ আমরা চেষ্টা করছি শিক্ষার্থীদের যে বাজেট সংকট সেখান থেকে বের হয়ে তাদের প্রয়োজন গুলো সমাধান করা৷ অনেক চ্যালেঞ্জিং সেখান থেকে আমরা চেষ্টা চালাচ্ছি৷ কিন্তু কষ্ট হচ্ছে৷ শিক্ষার্থীদের জন্য আরও বেশি মাত্রায় কাজ করতে পারতাম তাহলে ভালো লাগতো৷ আমি মনে করি, ইনশাল্লাহ সুদিন ফিরে আসবে৷ বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কল্যাণে আমাদের কর্মপ্রয়াস থাকবে৷

ক্যাম্পাসলাইভ: এক কথায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়কে কোথায় দেখতে চান?

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: বাংলাদেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি হবে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এটা আমার স্বপ্ন৷ আমি মনে করি, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা অত্যন্ত মেধাবী৷ নানা সংকটের মধ্য দিয়েও বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্বের নামকরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি বা মাস্টার্সের জন্য যাচ্ছে পাশাপাশি অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, বিসিএসসহ বিভিন্ন সরকারী, বেসরকারী, মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির চাকরিতে সাফল্যের সাথে অবদান রাখছে। এখনকার শিক্ষকরা অত্যন্ত আলোকিত তাদের যে মেধা জ্ঞান খুবই যুগ-উপযোগী৷ দেশী বিদেশী নামকরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ডিগ্রি নিয়ে এখানে জয়েন করে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের পাঠদান দিয়ে চলেছে।

ক্যাম্পাসলাইভ: সময় দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ৷

ড. মো. বদরুজ্জামান ভূঁইয়া: ক্যাম্পাসলাইভকে অসংখ্য ধন্যবাদ।

ঢাকা, ২০ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ