এগ্রিকালচারিস্ট বিয়ে করা উচিৎ যে কারণে!


Published: 2018-10-22 07:14:39 BdST, Updated: 2018-11-22 17:09:02 BdST

জুবায়ের রওনক : মানুষের জীবনে বিয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায়, যার প্রভাবে মানুষের জীবন অনেকটাই বদলে যায়। আর বিয়ে নিয়ে মেয়েদের চিন্তার শেষ নেই। কাকে বিয়ে করবেন, কীভাবে সংসার সাজাবেন এ নিয়ে চলে নানা হিসাব-নিকাশ।

কিন্তু পাত্র হিসেবে ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার নাকি অন্য কোন প্রফেশনের ছেলে-মেয়েদের পছন্দ এ নিয়ে রয়েছে অনেক বিতর্ক।

মেয়েদের বিয়ের তালিকায় এগ্রিকালচারিস্টরাও যুক্ত হতে পারে।

এগ্রিকালচারিস্ট বিয়ে করলে কী কী সুবিধা পাওয়া যেতে পারে এই নিয়ে একটি লেখা তুলে নারীদের সামনে তুলে ধরা হলো-

>কমপ্রোমাইজে এগ্রিকালচারিস্টদের জুড়ি মেলা দায়।
কাল মিডটার্ম? ওকে! ক্লাস আছে? প্রাকটিক্যাল সাবমিট করতে হবে? ওকে! নো প্রবলেম!
শুক্রবারেও ৪টা ক্লাস?
ওকে! নো প্রবলেম!

তাই বিয়ের পর আপনি যদি বলেন, আজকে আমার খালতো বোনের শ্বশুরের ভাগ্নের বড় ছেলের প্রতিবেশির মেয়ের গায়ে হলুদের দাওয়াত; এরা সানন্দে মেনে নিবে এবং শত ক্লান্ত থাকা সত্বেও আপনার সাথে হাসিমুখে বের হবে।

> এগ্রিকালচারিস্টদের সাথে ঝগড়া করে আপনি অপার শান্তি লাভ করবেন। কারণ এরা আপনার কোন কথারই উত্তর দিবে না। কারণ এক কান দিয়ে লেকচার ঢুকিয়ে অন্য কান দিয়ে বের করতে এরা বিশেষভাবে পারদর্শী।

> সর্বোপরি, এগ্রিকালচারিস্টদের যতোই প্যারা দিন না কেন, এরা নিতে পারবে। কারণ তারা ১৮০ ক্রেডিটের নরক যন্ত্রণা সহ্য করে এসেছে, তাই এরা সবকিছুই হাসিমুখে সহ্য করতে পারবে।

> এগ্রিকালচারিস্টরা কখনোই আপনার রান্নার খুঁত ধরবে না। সাধারণত তারা হল এবং ক্যাফেটেরিয়ার সুস্বাদু খাবার খেয়েই অভ্যস্ত। আপনার হাতের রান্না যে খেতে পাচ্ছে এটাই তাদের জন্য অনেক! খাবার না রান্না করলে মাটিও খাইয়ে দিতে পারেন। মাটির সাথে তাদের খুব গভীর সম্পর্ক!

> এগ্রিকালচারিস্টরা এরা খুবই কঠিন হিসাবের মানুষ। কয়টা ক্লাস মিস দিলে অ্যাটেন্ডেন্স 60% এর উপরে থাকবে থেকে শুরু করে ফেইল ঠেকাতে আর কত মার্কসের প্রয়োজন, আর কয়টা সাবজেক্টে পাশ করলে পরের সেমিস্টারে যেতে পারবে, এমন জটিল জটিল হিসাব কষে তারা দিন পার করে। তাই মাসিক ইনকাম যাই হোক না কেন, সংসার চালাতে আপনার কোনো সমস্যা হবে না!

> এরা কিঞ্চিৎ স্নেহের কাঙালও বটে। সারাজীবন স্যারদের কাছ থেকে "অপদার্থ, গাধা -গরু -ছাগল, কিচ্ছু পারো না, সব থেকে বেয়াদব ব্যাচ" শুনে অভ্যস্ত। ভাইভাতে মধুর মধুর শব্দ না হয় বাদই রইলো!

তাই দুয়েকটি ভালোবাসার কথা শুনলেই এদের অবস্থা প্রভুভক্তের মতো হয়ে যায়!

তাই নারীগন সানন্দে এগ্রিকালচারিস্টদের জীবনসঙ্গী হিসেবে বেছে নিতে পারেন!

জুবায়ের রওনক
শিক্ষার্থী, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

[বি:দ্র : নিছক বিনোদনের উদ্দেশ্যে লিখাটি দেয়া হয়েছে। কাউকে হেয় করা উদ্দেশ্য নয়]

ঢাকা, ২২ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।