Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | মঙ্গলবার, ২৩শে এপ্রিল ২০২৪, ৯ই বৈশাখ ১৪৩১
teletalk.com.bd
thecitybank.com

‘আমি প্রতিবাদ না করলে এ ঘটনা আরো চলতো’

প্রকাশিত: ২২ মার্চ ২০২৩, ০২:৫৫

ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রথমবর্ষের ছাত্রী ফুলপরী খাতুন

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফিন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রথমবর্ষের ছাত্রী ফুলপরী খাতুন। সম্প্রতি ঘটে যাওয়া ছাত্রী নির্যাতনের ঘটনায় তিনি যেন এখন প্রতিবাদী চরিত্রের মডেল। এঘটনায় তার সাহসী ভূমিকা প্রসংশিত হয়েছে সবমহলে।

এরআগেও এমন অনেক র‌্যাগিংয়ের ঘটনা ঘটেছে। তবে তাদের মধ্যে অনেকেই ক্যাম্পাস ছেড়েছেন, আবার কেউ লোকলজ্জা, আত্মসম্মান ও প্রভাবশালীদের ভয়ে চুপ করে সবকিছু সহ্য করেছেন। তবে ফুলপরী ছিল সবার থেকে ভিন্ন। নির্যাতনের শিকার হয়ে পালিয়ে বাড়িওতে গিয়েছিলেন। তবে ফের ক্যাম্পাসে ফিরেছেন প্রতিবাদী হয়ে। প্রতিবাদী ফুলপরীর সাথে কথা হয়েছে ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কমের। সাহসী ফুলপরী এখন কেমন আছেন সেই গল্প তুলে ধরছেন ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কমের ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি আবির হোসেন

ক্যাম্পাসলাইভ: আপনি কেমন আছেন? শারীরিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ আছেন?

ফুলপরী: জ্বি, আমি ভালো আছি। এখনো শারিরীকভাবে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠিনি। নির্যাতনের আঘাতের কারণে এখনো মাঝে মাঝে মাথা ব্যথা করে।


ক্যাম্পাসলাইভ: নতুন হলে উঠে কেমন সময় কাটছে?

ফুলপরী: হলের সবার সঙ্গে আমি ভালোভাবেই মিশে গেছি। সবার সঙ্গে মিলেমিশে খুব ভালো সময় কাটছে। হলের সবাই আমার সঙ্গে খুব ভালো ব্যবহার করে। আমি একাডেমিক পড়াশোনায় একটু পিছিয়ে থাকার কারণে এখন বেশিরভাগ সময় পড়াশোনা করেই পার করছি।


ক্যাম্পাসলাইভ: শিক্ষক, সহপাঠী ও হলের আবাসিক ছাত্রীদের কাছ থেকে কেমন সহযোগিতা পাচ্ছেন?
ফুলপরী: আমার শিক্ষকরা নিয়মিত খোঁজ খবর রাখছেন। আমি পড়াশোনায় পিছিয়ে থাকায় সহপাঠীরাও আমাকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন। হলের আপুদের কাছেও সবধরনের সাহায্য পাচ্ছি।


ক্যাম্পাসলাইভ: নির্যাতনের রাতের কথা কি এখনো আপনার মনে পড়ে? মনে পড়লে কেমন বোধ করেন?
ফুলপরী: সেই রাতের ভয়াবহতা এখনো আমাকে পীড়া দেয়। যখন একাকী বসে থাকি তখন বেশি মনে পড়ে। ওই ঘটনা মনে পড়লে খুব কষ্ট হয়। তবে আমার সঙ্গে যা হয়েছে তা তো আমি আর ফিরে পাবো না। আমি চাই, অন্য কারো সঙ্গে যাতে এমন ঘটনা না ঘটে।


ক্যাম্পাসলাইভ: প্রতিবাদী হয়ে ওঠার মূল অনুপ্রেরণা কোথা থেকে পেলেন?
ফুলপরী: অন্যায় দেখলে প্রতিবাদ করাই আমার অভ্যাস। ছোটবেলা থেকে কখনো অন্যায়কে প্রশ্রয় দিইনি। আমার বাবা-মা আমাকে এমনভাবেই বড় করেছেন। তবে মূল অনুপ্রেরণা আমার বাবা।


ক্যাম্পাসলাইভ: পড়াশোনা করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে আসতে আপনাকে কতটুকু প্রতিবন্ধকতা পার করতে হয়েছে?
ফুলপরী: আমি দরিদ্র পরিবারের সন্তান। ভ্যানচালক বাবার আয় আমাদের পরিবারের একমাত্র আয়ের উৎস। আমাদের চার ভাইবোনের পড়াশোনার খরচ চালাতে বাবার অনেক কষ্ট হচ্ছে। বড় ভাই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করেছেন। বড় বোন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ বর্ষে ও ছোট ভাই এবার এসএসসি পরীক্ষা দেবে। আর্থিক সমস্যার কারণে অনেক প্রতিবন্ধকতা পার করে আসতে হয়েছে। আমার বাবার ইচ্ছা তার সব সন্তানেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বে৷ শত প্রতিবন্ধকতা আসলেও বাবার স্বপ্ন পূরন করতে চাই।


ক্যাম্পাসলাইভ: আপনি অভিযুক্তদের কেমন শাস্তি চান?
ফুলপরী: আমি তাদের স্থায়ী বহিষ্কার চাই। তা না হলে তারা আবার ক্যাম্পাসে ফিরে এমন ঘটনা ঘটাবে।


ক্যাম্পাসলাইভ: কোনো হুমকি-ধমকি পেয়েছেন?
ফুলপরী: প্রথম থেকে এখনো পর্যন্ত কোন হুমকি পায়নি।


ক্যাম্পাসলাইভ: যারা আপনার মতো এমন নির্যাতনের শিকার কিন্তু ভয়ে মুখ খোলে না, তাদের জন্য আপনার পরামর্শ কি?
ফুলপরী: আমার মনে হয় প্রত্যেকের অন্যায়ের প্রতিবাদ করা উচিৎ। হোক সে অন্যায় ছোট কিংবা বড়। আমরা প্রতিবাদ করলে অন্যায় থেমে
যাবে। আমি প্রতিবাদ না করলে এ ঘটনা আরো চলতো। এমনকি আমাকে আগামী পাঁচটি বছরও তাদের বিভিন্ন নির্যাতন সহ্য করে চলতে হতো। আমি মনে করি আমার প্রতিবাদের মধ্যদিয়ে এ ক্যাম্পাসে আর কোন র‌্যাগিং বা নির্যাতন হবে না।


ক্যাম্পাসলাইভ: ওই রাতের নির্যাতনের ঘটনা কেমন ছিল?
ফুলপরী: আমার সাথে যেটা হয়েছে সেটা যেন অন্য কারো সাথে না হয়। ওই স্মৃতি মনে করতে চাই না।কারো জীবনে যেন কখনো এমন পরিস্থিকির মুখোমুখি না হতে হয়।


ক্যাম্পাসলাইভ: আপনাকে ধন্যবাদ সময় দেওয়ার জন্য।
ফুলপরী: ক্যাম্পাসলাইভকেও ধন্যবাদ। সেই সাথে ধন্যবাদ জানাতে চাই যারা আমার পাশে থেকে বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগীতা করেছেন। সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।


ঢাকা, ২১ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমএফ

 


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ