সিসিটিভি ফুটেজ : রাবির সাবেক ছাত্রকে যেভাবে হত্যা করা হয়


Published: 2020-10-25 00:40:21 BdST, Updated: 2020-11-30 21:05:24 BdST

লাইভ প্রতিবেদেক : রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র মোস্তাফিজুর রহমান হত্যায় অংশ নেয় ৩জন। শনিবার ভোরে সাভারের সিআরপি এলাকায় সিসিটিভি ফুটেজ থেকে এমন তথ্য পেয়েছে পুলিশ। ওই ফুটেজের সূত্র ধরেই তদন্ত কাজ চালিয়ে যাচ্ছে পুলিশ।

জানা গেছে, রাবিতে পড়াশোনা শেষ করে সাভারের একটি স্কুলে চাকরি নিয়েছিলে মোস্তাফিজুর রহমান। সাভারের সিআরপি এলাকায় ছিল তার কর্মস্থল। শনিবার ভোরে রাজশাহী থেকে নিজ কর্মস্থলে ফিরছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। বাস থেকে নেমে একটু এগিয়ে যেতেই একদল ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন তিনি। তাদের হাত থেকে বাঁচতে দৌঁড় দেন তিনি। তবে বেশিদূর যেতে পারেননি। তাকে ধাওয়া করে ছিনতাইকারীরা ধরে ফেলে। এসময় তারা মোস্তাফিজের ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। শনিবার (২৪ অক্টোবর) ভোরে পুরো ঘটনাটি ধরা পড়েছে পাশের একটি বাড়ির ক্লোজড সার্কিট ক্যামেরায়। ফুটেজে দেখা যায়, মোস্তাফিজকে ছুরিকাঘাত করে তার কাছে থাকা কালো রঙের ব্যাগ নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছেন তিন যুবক।

মোস্তাফিজের বাড়ি রাজশাহীর দুর্গাপুর নওয়াপাড়া গ্রামে। কাজ করেন সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের কমলাপুর এলাকায়‌ গ্লোরিয়াস ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগ থেকে ২০১৯ সালে স্নাতকোত্তর শেষ করে
মোস্তাফিজুর গত এক বছর আগে এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে যোগ দেন।

মোস্তাফিজুরের সহকর্মী সৌখিন আজিজ জানান, গ্রামের বাড়ি থেকে স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে আসতে বাড়ি গিয়েছিলেন তিনি। তবে কোনো কারণে তারা আসেননি। ফলে ফেরেন একাই। ভোরে গাড়ি থেকে নামার কিছুক্ষণ পরই ছিনতাইকারীর হামলার শিকার হন।

সাভার মডেল থানার ওসি এএফএম সায়েদ জানান, ভোরে জরুরি সেবা নম্বর ৯৯৯-এ সিআরপি এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনার খবর জানায় একজন। ঘটনাস্থলে গিয়ে সড়কের ধারে যুবকের মরদেহ দেখতে পায় পুলিশ। মরদেহের পাশে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র দেখে পুলিশ তার পরিচয় নিশ্চিত হয়।


ঢাকা, ২৫ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।