ড্যাফোডিল ভার্সিটির সেই ভয়ংকর ছাত্র মানসিক ভারসাম্যহীন!


Published: 2019-10-23 13:56:54 BdST, Updated: 2019-11-17 10:24:50 BdST

গাজীপুর লাইভ : ড্যাফোডিল ইউনির্ভাসটির সেই ভয়ংকর ছাত্র ইমরান হাসমিত রাতুল মানসিক ভারসাম্যহীন বলে জানা গেছে। সেমিস্টার ফিল টাকা নিয়ে বিতর্কের এক পর্যায়ে তার হাতেই নির্মমভাবে খুন হন তার বাবা আবদুল ওয়াদুদ ওরফে বাবুল মাস্টার। এর আগে তিনি তার মাকেও মারতে চেয়েছিলেন। পরে ভয়ে তার মাকে অন্যত্র পাঠিয়ে দেন বাবা। সেমিস্টার ফির বাইরে বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরতে যাওয়ার জন্য প্রায়ই টাকার জন্য চাপ দিত রাতুল। টাকা না দিলে উল্টা-পাল্টা আচরণে করতেন তিনি। সর্বশেষ সোমবার রাতে টাকা নিয়ে তর্কের একপর্যায়ে নিজের বাবাকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন তিনি। এঘটনার পর তিনি নিজেই পুলিশের কাছে ফোন করেন। পরে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রাতুল সুস্থ নাকি মানসিক বিকারগ্রস্ত তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গাজীপুরের শ্রীপুরের গোসিংগা ইউনিয়নের লতিফপুর গ্রামে।

গোসিংগা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড মেম্বার খোরশেদ আলম জানান, ইমরান মানসিক ভারসাম্যহীন। সে মাঝে মধ্যে বাড়রি পাশের রাস্তায় দাঁড়িয়ে পথচারীদের সাথে অসামঞ্জস্য কথাবার্তা ও আচার আচরণ করতো। বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাফেরা করার জন্য প্রায়ই তার বাবার কাছে টাকা দাবি করতো। এ নিয়ে তার বাবার সাথে ঝগড়া লেগেই থাকতো। এর মধ্যে গত ৬ মাস আগে তার মাকে সে মারতে গিয়েছিল। পরে তার বাবা তার মাকে ভয়ে অন্যত্র পাঠিয়ে দেন।

শ্রীপুর থানার ওসি লিয়াকত আলী জানান, সোমবার দিবাগত রাত দেড়টায় বাবা-ছেলের মধ্য লেখা পড়ার খরচের টাকা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এসময় ছেলে তার বাবাকে লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত করে। গুরুতর আহত অবস্থায় বাবুল মাস্টারকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুরে শহীদ তাজউদ্দিন নিহত আব্দুল ওয়াদুদ ওরফে বাবুল মাস্টার কাপাসিয়া উপজেলার তরগাঁও ইউনিয়নের কোহিনুর বালিকা উচ্চ
বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করতেন। অন্যদিকে রাতুল ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ইংরেজি বিভাগের ছাত্র।

শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক আব্দুল ওয়াদুদ জানান, মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে বাবুল মাস্টারের মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা, ২৩ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।