এনএসইউ নিয়ে বিভ্রান্তিমূলক তথ্য প্রকাশ, কর্তৃপক্ষের বক্তব্য


Published: 2021-10-17 21:24:22 BdST, Updated: 2021-11-28 05:46:08 BdST

এনএসইউ লাইভ: দেশের প্রথম এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার র‌্যাঙ্কিংয়ে এ শীর্ষে অবস্থানকারী আন্তর্জাতিক মানের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি (এনএসইউ) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই অত্যন্ত সুনামের সাথে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম চালিয়ে আসছে এবং সকল ধরনের জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় র‌্যাঙ্কিংয়ে এ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শীর্ষে অবস্থান করছে।

এনএসইউ এর শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং অভিভাবকদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায়ই এই অর্জন সম্ভব হয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একমাত্র নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি বিশ্বখ্যাত র‌্যাঙ্কিং সংস্থা কিউএস এমপ্লয়াবিলিটি র‌্যাঙ্কিং এ বিশ্বের শীর্ষ ৫০০ বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় স্থান লাভ করেছে। এটি আমাদের তথা দেশের জন্য অনন্য অর্জন।

করোনা মহামারির মধ্যেও এনএসইউ অনলাইনে সফল ভাবে নিয়মিত ক্লাস পরিচালনা অব্যাহত রেখেছে। এসকল শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি ৯৫ % এর বেশি পাওয়া। সম্প্রতি স্বার্থান্বেষী একটি মহলের মদদে একটি গোষ্ঠী ভুল তথ্য দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম নষ্ট করার চেষ্টা করছে যা এনএসইউ কর্তৃপক্ষের নজরে এসেছে।

এ ব্যাপারে এনএসইউ কর্তৃপক্ষের বক্তব্য নিম্নরূপ:
• প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়েছে, ক্যাম্পাস উন্নয়নের নামে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে সেমিস্টার প্রতি ৫ হাজার টাকা গ্রহণ করা হচ্ছে যা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট। নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এ ধরনের কোন ফি গত এক দশকেও গ্রহণ করে নাই এবং এনএসইউ’র টিউশন ফি এখনও দেশের শীর্ষস্থানীয় অন্যান্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এর তুলনায় কমই রাখা হচ্ছে।

• নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি সব সময়ই মুক্তিযুদ্ধ এবং অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্ভুদ্ব এবং মাদক ও জঙ্গিবাদে জিরো টলারেন্স নীতিতে বিশ্বাসী। প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়েছে, রাজীব হায়দার হত্যাকান্ডে সাজাপ্রাপ্ত জঙ্গি নাফিস ইমতিয়াজকে ১০ বছর পর আবারও এনএসইউতে ভর্তির সুযোগ দেওয়া হয়েছে যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। তাকে নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটি থেকে ১০ বছর আগেই বহিষ্কার করা হয়েছে এবং তার পুনঃ ভর্তির কোন সুযোগ নাই।

• এনএসইউ ট্রাস্ট আইনে পরিচালিত একটি অবাণিজ্যিক আন্তর্জাতিক মানের বিশ্ববিদ্যালয়। এনএসইউ টিউশন ফি থেকে প্রাপ্ত উদ্বৃত্ত অর্থ যথাযথভাবে সংরক্ষণ ও সঞ্চয় করে বলেই বর্তমানে নিজস্ব ক্যাম্পাসে কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এনএসইউ মেডিকেল রিসার্চ সেন্টার এবং সকল আবাসিক সুবিধাসহ আগামী দিনের একটি পূর্ণাঙ্গ আন্তর্জাতিক মানের ক্যাম্পাস নির্মাণের লক্ষ্যে পূর্বাচলে আবাসিক ক্যাম্পাসের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে এবং সঞ্চয়কৃত অর্থ ক্যাম্পাস নির্মাণ এবং উন্নয়ন কর্মকাণ্ডেই ব্যয় করা হচ্ছে।

• বিভিন্ন সময়ে দেয়া শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসি’র পরামর্শসমূহ বাস্তবায়নে এনএসইউ সবসময় নিয়মনীতি মেনেই কাজ করে যাচ্ছে এবং নিয়মিতভাবে মন্ত্রণালয় এবং ইউজিসিকে অবহিত করছে।

• এনএসইউ’র আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা প্রদান করে থাকে এবং সকল শিক্ষকমন্ডলী বিদেশি ডিগ্রিধারী। উল্লেখ্য যে, এনএসইউ’র গ্রাজুয়েটদের ডিগ্রী বিশ্বজুড়ে সমাদৃত এবং ক্রেডিট ট্রান্সফার করা যায়।

• উল্লেখ্য যে, এনএসইউ বর্তমানে করোনাকালীন সময়ে শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি ধারাবাহিকভাবে গত পাঁচ সেমিস্টার যাবত ২০ শতাংশ হারে মওকুফ করেছে এবং করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ শিক্ষার্থীদের পরিবারের জন্য অতিরিক্ত ১০০ % পর্যন্ত বিশেষ টিউশন ফি মওকুফ করেছে। এছাড়া এ পর্যন্ত ১৩০০ এর অধিক মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানগন সম্পূর্ণ বিনা খরচে এনএসইউতে শিক্ষা গ্রহণ করে যাচ্ছে।

• প্রকাশিত তথ্যে বলা হয়েছে, এনএসইউ এর নতুন ক্যাম্পাস সম্প্রসারণের জন্য ক্রয়কৃত জমি নিয়ে অনিয়মের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। প্রকাশ থাকে যে, সকল নিয়ম কানুন মেনেই সবধরনের স্বচ্ছতা রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্প্রসারণের প্রোয়োজনে জমি ক্রয় করা হয়েছে।

• আন্তর্জাতিক মানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এনএসইউ’র সামগ্রিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য এবং আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যবৃন্দ ও বিদেশী অতিথিদের ব্যাবহারের জন্য যথাযথ নিয়ম অনুসরণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে গাড়ি ক্রয় করা হয়েছে।

অতএব প্রকাশিত ভুল তথ্য সম্বলিত সংবাদের ব্যাপারে এনএসইউ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে এ সংশোধনী প্রকাশ করা হলো। আন্তর্জাতিক মানের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়, এনএসইউ’র বিভিন্ন কার্যক্রম দেশে এবং আন্তর্জাতিকভাবে প্রশংসিত হচ্ছে, তাই এ ধরনের বিভ্রান্তিমূলক সংবাদ প্রচার থেকে বিরত থাকার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা একান্তভাবে কাম্য।

ঢাকা, ১৭ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।