হ্যাকারদের কবলে ৩৪২ জবি শিক্ষার্থীর ফেসবুক আইডির তথ্য


Published: 2021-04-08 20:56:50 BdST, Updated: 2021-05-10 02:02:29 BdST

জবি লাইভ: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ফেসবুক ব্যবহারকারী ৩৪২ জন শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির একাউন্টের তথ্য ফাঁস হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এসব তথ্য প্রকাশ করে একটি লো-লেভেল হ্যাকিং প্ল্যাটফর্ম প্রযুক্তি বিশ্বে সাড়া ফেলে দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রযুক্তি কর্মী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত এক সাংবাদিককে ফাঁস হওয়া শিক্ষার্থীদের তথ্য প্রদান করেন। এতে ব্যবহারকারীর ফোন নম্বরসহ অ্যাকাউন্টে থাকা ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করেছে চক্রটি। গত শনিবার বিজনেস ইনসাইডার এ তথ্য সবার আগে প্রকাশ করেছে বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়।

ফাঁস হওয়া তথ্যের মধ্যে জবিতে অধ্যায়নরত ও কর্মরতদের মধ্যে ৩৪২ জনের তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে, ফেসবুক ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর, ফেসবুক আইডি নম্বর, পুরো নাম, ঠিকানা, কর্মস্থল, প্রোফাইল এবং কিছু ক্ষেত্রে জন্ম তারিখ ও ইমেইল ঠিকানা। এই তালিকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। আইডি খোঁজার ক্ষেত্রে তারা 'Jagannath University, jagannath university এবং কী-ওয়ার্ড ব্যাবহার করেছে। সেক্ষেত্রে কেউ যদি আইডিতে বাংলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় লিখে থাকেন বা আইডিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম না লিখে থাকেন তাহলে তার আইডির তথ্য চুরি হলেও সেটা খুঁজে বের করা সম্ভব নয়।

তবে এই ৩৪২ জনের ফেসবুক আইডিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য যুক্ত রয়েছে। এছাড়া আইডিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যযুক্ত নেই এমন অনেকেই থাকতে পারেন, তাই তাদের জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী হিসেবে চিহ্নিত করা সম্ভব হচ্ছে না। এই সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের শিক্ষার্থী কাউসার ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, "ফাঁস হওয়া নাম্বার সমূহের সংশ্লিষ্ট সকল নিরাপত্তায় হস্তক্ষেপ করার সুযোগ রয়েছে চক্রটির। এ সংক্রান্ত সব ক্ষেত্রে তথ্য ফাঁস হওয়া ব্যক্তিদের ক্ষতি করতে পারবে। এছাড়াও কোন অপরাধী চক্র ওই নাম্বার সমূহের দ্বারা প্রযুক্তির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর অন্য ব্যক্তিগত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে ক্ষতি করতে পারবে। এতে যে কাউকে লক্ষ্য করে তার সব তথ্য নিয়ে আলাদা প্রোফাইল রেডি করে তা অন্য জায়গায় ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।"

এ বিষয়ে জবির আইটি দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. উজ্জ্বল কুমার আচার্য্য ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, "যাদের তথ্য ফাঁস হয়েছে ভবিষ্যতে তাদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি বা হেনস্তা কররা সম্ভাবনা থেকে যায়। ফাঁস হওয়া আইডিগুলোর সংশ্লিষ্ট সকল নিরাপত্তায় হস্তক্ষেপ করার সুযোগ রয়েছে চক্রটির। কোন অপরাধী চক্র ওই নাম্বার সমূহের দ্বারা প্রযুক্তির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর অন্য ব্যক্তিগত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংগ্রহের মাধ্যমে ক্ষতি করতে পারবে। তারা যে কাউকে লক্ষ্য করে তার সব তথ্য নিয়ে আলাদা প্রোফাইল রেডি করে তা অন্য জায়গায় ব্যবহারের সুযোগ রয়েছে।"

প্রাথমিক সতর্কতা জন্য করণীয় সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, "এক্ষেত্রে যাদের নাম আছে, তারা থানায় জিডি করে রাখতে পারেন। ফেসবুকে ইমেইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন। এছাড়াও প্রোফাইলে থাকা এমন কোনো তথ্য যা ক্ষতি বয়ে আনতে পারে সেগুলো প্রোফাইল থেকে এমন সরিয়ে ফেলতে হবে।"

উল্লেখ্য, পৃথিবীর ১০৬ টি দেশের ৫৩ কোটি ৩০ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর নাম রয়েছে হ্যাকিং এর তালিকায়। এসব তথ্য প্রকাশ করে একটি লো-লেভেল হ্যাকিং প্ল্যাটফর্ম প্রযুক্তি বিশ্বে সাড়া ফেলে দিয়েছে। এতে ব্যবহারকারীর ফোন নাম্বার সহ একাউন্টে থাকা ব্যক্তিগত সব তথ্য ফাঁস করেছে চক্রটি। অনেকটা বিনামূল্যে এসব তথ্য অনলাইনে বিক্রি করা হচ্ছে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

১০৬ দেশের মধ্যে এতে সবচেয়ে বেশি ৩ কোটি ২০ লাখ তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ফেসবুক ব্যবহারকারীদের। রয়েছে যুক্তরাজ্যের এক কোটি ১০ লাখ ও ভারতের ৬০ লাখ ব্যবহারকারীর গোপনীয় তথ্য।

তবে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো অফিসিয়াল মন্তব্য প্রদান করেনি। এর আগে গত কয়েক বছরে বেশ কয়েকবার বিশ্বের বৃহত্তম এ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের তথ্য ফাঁস হয়েছে।

ঢাকা, ০৮ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআইএস//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।