ইউআইইউ'র উদ্দ্যেগে স্বল্প খরচের ভেন্টিলেটর উদ্ভাবন


Published: 2020-05-20 16:30:43 BdST, Updated: 2020-05-25 14:54:05 BdST

ইউআইইউ লাইভঃ সারাবিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে আশংকাজনক হারে। প্রতি একশ জনে শতকরা পাঁচজনকে টেনে নিয়ে যায় মৃত্যুর কাছাকাছি। তাদের মৃতপ্রয়া ফুসফুসকে সাহায্য করার জন্য প্রয়োজন হয় ভেন্টিলেটরের।

বাংলাদেশে এখন যে পরিমাণ ভেন্টিলেটর আছে তা প্রয়োজনের তুলনায় নিতান্তই অপ্রতুল। দেশীয় সহজলভ্য উপকরণ ব্যবহার করে ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উদ্দ্যেগে AIMS Lab এবং ANTT Robotics Ltd. এর সমন্বয় সাধন করে শুরু করে গবেষণা।

গবেষণায় উঠে এসেছে ভেন্টিলেটরের মোটর হিসেবে গাড়ির দরজায় ব্যবহৃত মোটর খুবই উপযোগী। এ ছাড়াও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি নিজস্ব গবেষণাগাওে প্রতি সপ্তাহে ২০ টি মান সম্মত ইমারঞ্জেসি ভেন্টিলেটর বানাতে সক্ষম।

বাংলাদেশ সরকার অথবা আঞ্চলিক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে চুক্তিতে উৎপাদন কারখানার সমন্বয়ে বড় আকারের উৎপাদনে যেতে সক্ষম এই উদ্ভাবিত ভ্যান্টিলেটরটি। বর্তমানে ভ্যান্টিলেটরটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল এর জন্য তৈরি যেখানে আই সি ইউ এর উপর বিশেষজ্ঞ কয়েকজন ডাক্তারও সাহায্য করছে।

এ আই এম এস ল্যাব এর ফাউন্ডার ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ খোন্দকার এ মামুন, তিনি এই ভেন্টিলেটর নিয়ে অনেক আশাবাদী এবং মনে করেন বাংলাদেশের করোনা যুদ্ধে অনেক সাহায্য হবে, কেননা যন্ত্রটি দেশীয় প্রযুক্তি দিয়ে তৈরি হয়েছে, যার ফলে খরচ ৪০ হাজার টাকার মধ্যে থাকবে।

এ এন টি টি রোবটিক্স মেড ইন বাংলাদেশ স্লোগানে ২০১৭ সাল থেকে রোবটিক্স নিয়ে রিসার্স ও প্রোডাক্ট তৈরি করছে। যেখানে তারা শিক্ষার্থীদের জন্য বাংলাদেশী তৈরি রোবট দিয়ে প্রোগ্রামিং শিক্ষার কার্যক্রম করে এবং দেশ ও দেশের বাইরে টুলস গুলো বিক্রি করেন।এ এন টি টি রোবটিক্সকে বাংলাদেশ সরাকারের আইসিটি ডিভিশন ও স্টার্টআপবাংলাদেশ অর্থায়ন করে সাহায্য করছে।

ঢাকা, ২০ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।