জাবিতে ভিসি অপসারণের দাবিতে আবারও বিক্ষোভ


Published: 2020-02-17 20:19:00 BdST, Updated: 2020-04-10 02:21:12 BdST

জাবি লাইভঃ উন্নয়ন প্রকল্পের অর্থ কেলেঙ্কারি, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর নির্যাতন ও শিক্ষার্থী লাঞ্ছনার অভিযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসি প্রফেসর ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে আবারও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন আন্দোলনকারীরা।

সোমবার দুপুর পৌনে ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ থেকে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর ব্যানারে মিছিলটি শুরু হয়ে কয়েকটি সড়ক ঘুরে নতুন প্রশাসনিক ভবনে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মধ্য দিয়ে তা শেষ হয়।

গতকাল রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনে অনুষ্ঠিত শিক্ষা পরিষদের সভার আগে ভিসি আন্দোলনকারীদের লাঞ্ছিত করেন বলে সমাবেশে আন্দোলনকারীরা অভিযোগ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক সংকট সমাধানে ভিসিকে অনতিবিলম্বে অপসারণের দাবি জানান তারা।

সমাবেশে ছাত্র ইউনিয়ন জাবি সংসদের দফতর সম্পাদক আতাউল হক চৌধুরী আফ্রিদি বলেন, জনগণের অর্থ লোপাট ও শিক্ষার্থীদের লাঞ্ছিত করার পরে কেউ ভিসি পদে বহাল থাকতে পারেন না। ফারজানা ইসলামকে অপসারণ করা হোক, এই দাবি এখন সকলের। নির্লিপ্ততা ভেঙে ফারজানা ইসলামকে অপসারণের জন্য রাষ্ট্রকে দ্রুত উদ্যোগী হতে হবে। তাকে অপসারণের লক্ষ্যে আমাদের এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

জাবি ছাত্র ফ্রন্টের সভাপতি মাহাথির মুহাম্মদ জানান, গতকাল একাডেমিক কাউন্সিলের মতো পবিত্র সভায় ফারজানা ইসলামের মতো কলঙ্কিত কেউ যেন প্রবেশ করতে না পারে সে কারণে আমরা পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান নেই। কিন্তু ভিসি ও তার সমর্থক শিক্ষকেরা আমাদের পদদলিত করে সভায় অংশ নেন। এই ভিসির অপসারণে রাষ্ট্রের নির্লিপ্ততা বিশ্ববিদ্যালয়কে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে।

এসময় সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার সভাপতি আরমানুল ইসলাম খান জানান, ভিসি আমাদের আন্দোলনকে ছাত্রলীগ ও শিক্ষকদের একটি অংশ দিয়ে দমন করার চেষ্টা করেছেন। গতকাল আমাদের জোরপূর্বক পদদলিত করে অহমিকা দেখিয়ে একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় গিয়েছেন। এজন্য তাকে ধিক্কার জানাই। এই ভিসি অবিলম্বে অপসারণ করতে হবে।

ঢাকা, ১৭ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।