'ঢাবি ছাত্রীকে মজনুর ধর্ষণের আলামত মিলেছে'


Published: 2020-01-15 20:47:30 BdST, Updated: 2020-03-29 18:30:18 BdST

ঢাবি লাইভঃ রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রীকে ধর্ষণের সব আলামত পাওয়া গেছে। সিরিয়াল রেপিস্ট মজনুই তাকে ধর্ষণ করেছে। দুজনের দেওয়া তথ্যে হুবহু মিল পাওয়া গেছে। ফরেনসিক পরীক্ষায়ও একই আলামত মিলেছে।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (উত্তর) উপকমিশনার মশিউর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হাসপাতালে তার কাছ থেকে পাওয়া সব তথ্যের সাথে মজনুকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের হুবহু মিল রয়েছে।

ইতোমধ্যে সমস্ত আলামত পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডিবির কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়া হয়েছে। মজনুকে জিজ্ঞাসাবাদেও অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে এসেছে। দেখা যায়, দুজনের তথ্যের হুবহু মিল রয়েছে। ওই ছাত্রীকে ভবঘুরে মজনুই ধর্ষণ করেছে।

কুর্মিটোলায় যেখানে ওই শিক্ষার্থী ধর্ষণের শিকার হয়েছে, ওই জায়গা থেকে বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছে সিআইডি। সমস্ত আলামত ফরেনসিক ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। ল্যাব থেকে যে প্রতিবেদন পাওয়া যায়, তার সঙ্গে ধর্ষক মজনুর বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রতিবেদনের মিল রয়েছে।

৮ জানুয়ারি গ্রেপ্তারের পরদিন মজনুকে আদালতে উপস্থিত করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি মজনুর ১০ দিনের রিমাণ্ডের জন্য আবেদন করলে আদালত ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সেদিন থেকেই ডিবির হেফাজতে মজনুকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। রিমান্ডে ডিবির কাছে ঢাবি ছাত্রীকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে মজনু। ঢাবি ছাত্রী ছাড়াও মজনু গত ১০ বছর ধরে একাধিক তরুণী, ভবঘুরে, প্রতিবন্ধী ও ভিক্ষুক নারীকে ধর্ষণ করেছে। অনেককে হত্যার হুমকি দিয়েও ধর্ষণ করেছে ধর্ষক মজনু।

ডিবির জিজ্ঞাসাবাদে মজনু জানিয়েছে, ধর্ষণের পর ওই তরুণীর কাছ থেকে সে ৫০০ টাকা দাবি করে। মেয়েটি তার ব্যাগে টাকা আছে জানালে মজনু অন্ধকারে ব্যাগ খুঁজতে থাকে। একপর্যায়ে ব্যাগ পাওয়ার পর ভেতরে টাকা খুঁজতে থাকে সে। আর এই সুযোগেই ঘটনাস্থল থেকে মেয়েটি পালিয়ে যায়।

ঢাকা, ১৫ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।