সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে মানববন্ধন (ভিডিও)


Published: 2020-01-13 18:13:59 BdST, Updated: 2020-07-14 16:48:33 BdST

ঢাবি লাইভঃ সরস্বতী পূজা এবং নির্বাচন একই দিনে হওয়ায় সরস্বতী পূজার সাথে সমঞ্জস্য রেখে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের জন্য নির্বাচন কমিশনারের প্রতি আহ্বান জানিয়ে মানববন্ধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সচেতন শিক্ষক- শিক্ষার্থীবৃন্দ।

সোমবার ১১টা ৩০মিনিটে এ মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধনে শিক্ষক -শিক্ষার্থীসহ প্রায় দেড় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে জগন্নাথ হলের সাবেক প্রাধ্যক্ষ অসীম সরকার বলেন, "আগামী ৩০ জানুয়ারি সরস্বতী পূজায় আমরা জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই একটা ধর্মীয় উৎসবে অংশগ্রহণ করি, আনন্দ করি। কিন্তু সেই পূজার দিনে ঢাকা উত্তর এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে, এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত বেদনাদায়ক এবং দুঃখজনক।

আমরা বিদ্যা ও জ্ঞান অর্জনের জন্য মায়ের পূজা করে থাকি। শুধুমাত্র হিন্দু সম্প্রদায় নয় এখানে সকল ধর্মের মানুষ শতঃস্ফুতভাবে অংশগ্রহণ করে। আমরা আশা পেষণ করি নির্বাচন কমিশন আমাদের অনুভূতি সাথে একাত্মতা পেষণ করে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করবে।

জগন্নাথ হলের সাবেক প্রাধ্যক্ষ নীল চন্দ্র ভূমিক বলেন, "আমরা জানি, স্বাধীন বাংলাদেশের সংবিধান একটি ধর্ম নিরপেক্ষ সংবিধান, যা পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠ সংবিধান হিসাব পরিচিত হয়েছে। আমরা নির্বাচন কমিশনকে বলব, আপনারা ৩০ জানুয়ারি নির্বাচনের তারিখটা পরিবর্তন করেন। আপনারা ৩০ বা ২৯ তারিখ নয় এর পরবতী কোন তারিখ নির্ধারণ করুণ।

তিনি বলেন, ৩০ জানুয়ারি নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করে নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশ যে চেতনার ভিত্তিতে স্বাধীন হয়েছে সেই চতনায় আঘাত করেছে।

ভিডিও দেখতে লিঙ্কটিতে ক্লিক করুন: https://www.facebook.com/Campuslive24/videos/2655064644549172/

সংস্কৃত বিভাগের চেয়ারপার্সন ড. নমিতা মণ্ডল বলেন, "আবহমান বাংলার ইতিহাস অসাম্প্রদায়িকতার ইতিহাস। 'ধর্ম যার যার উৎসব সবার' মতবাদে বিশ্বাসী বাঙালিরা সব সময়েই ধর্ম-জাতি-বর্ণের উর্ধ্বে থেকে ধর্মীয় উৎসবগুলো পালন করে আসছেন। বর্তমানে নীতিনির্ধারকদের সিদ্ধান্তে আমরা বিচক্ষণহীনতা দেখতে পাচ্ছি।"

স্বরস্বতী পূজার দিনে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের দিন নির্ধারণ করে ইসি হিন্দু সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে পীড়নের বীজ বপন করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন, ইসির এ ধরনের সিদ্ধান্তের পেছনের কারণ ও উদ্দেশ্য খতিয়ে দেখা প্রয়োজন।

সংস্কৃত বিভাগের শিক্ষার্থী সীমা সরকার বলেন, "বঙ্গবন্ধু যেহেতু অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের চেতনা গ্রহণ করেছেন, তাই প্রধানমন্ত্রী ও নির্বাচন কমিশনারের প্রতি আমাদের আহবান থাকবে তারা যেন ৩০ জানুয়ারির কাছাকাছি সময়ে নির্বাচনের তারিখ ধার্য করেন।"

ঢাকা, ১৩ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।