ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা পুনরায় নেয়ার দাবি শিক্ষার্থীদের


Published: 2018-10-21 16:57:31 BdST, Updated: 2018-11-22 17:09:40 BdST

ঢাবি লাইভ: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল বাতিল করে পুনরায় ভর্তি পরীক্ষা নিতে প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীরা ভর্তি পরীক্ষা কমিটির সমন্বয়কারী ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সাদেকা হালিমের পদত্যাগও দাবি করেছেন।

সমাবেশে প্রফেসর আসিফ নজরুল বলেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে সেটা স্বীকার করার পরে পরীক্ষা বাতিল না করার কি কারণ থাকতে পারে? প্রশ্ন ফাঁস মেনে নেয়া মানে মেধাবী ছাত্রদের পরিবর্তে দুর্নীতিবাজদের আধিপত্য মেনে নেয়া। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কারও ব্যক্তিগত সম্পতি না। এটা জনগণের অর্থে পরিচালিত একটি প্রতিষ্ঠান।

রবিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) সন্ত্রাস বিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশ থেকে এ দাবি করা হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আইন বিভাগের প্রফেসর আসিফ নজরুল, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জিএম জিলানী শুভ, ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

ঢাবির সম্মান-ঐতিহ্যের প্রতি বিন্দুমাত্র দায় যদি আমাদের থাকে তাহলে কোনো মেধাবী ছাত্রকে বঞ্চিত করার অধিকার আমাদের নেই। 'ঘ' ইউনিটের পুনরায় পরীক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, সেই পরীক্ষা থেকে সাদেকা হালিমকে অব্যাহতি দিয়ে ইতোপূর্বে বিশ্বস্তভাবে যারা বিভিন্ন ইউনিটের পরীক্ষার দায়িত্ব পরিচালনা করেছেন তাদের যেন দায়িত্ব দেয়া হয়।


ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জিলানী শুভ বলেন, নৈতিকতা না থাকলে বিশ্ববিদ্যালয় কৃতদাস তৈরির কারখানায় পরিণত হয়। সমগ্র শিক্ষাব্যবস্থা যখন রাহুগ্রস্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তা থেকে মুক্ত হতে পারল না। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি তিনি অবিলম্বে নতুন করে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়ার আহ্বান জানান। অন্যথায় ছাত্র সমাজকে নিয়ে কঠোর আন্দোলনেরও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ১২ই অক্টোবর অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষা শুরুর আগেই প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠে। যে অভিযোগ পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্বীকারও করেছে। তবুও গত ১৬ই অক্টোবর ইউনিটটির ফলাফল প্রকাশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

 

 

 


ঢাকা, ২১ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।