আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনাশ্রমিক লীগ নেতার বিরুদ্ধে এক নারী নেত্রীর অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ


Published: 2020-09-24 00:44:09 BdST, Updated: 2020-10-31 16:37:04 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: নিজ দলের মহিলা নেত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক করে ফেঁসে যাচ্ছেন জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মমিনুল আযম। তিনি ওই নেত্রীকে বিভিন্ন প্রলোভনে দফায় দফায় শারিরীক সম্পর্ক স্থাপন করে এখন সটকে পড়েছেন। ওই নেত্রী প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা চেয়েছেন। চাকরি ও বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক নারীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক করার অভিযোগ উঠেছে জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার মমিনুল আযমের বিরুদ্ধে।

বুধবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে মাওলানা মোহাম্মদ আকরাম খাঁ হলে এক সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিতভাবে এই অভিযোগ করেন অভিযোগকারী সুমি। তিনি ঢাকা মহানগর উত্তরের পল্লবী থানা শাখা নির্বাহী কমিটির মহিলা সম্পাদিকা। এসব অভিযোগে সুমি গত ৩ সেপ্টেম্বর মমিনুলের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় একটা জিডিও করেছেন।

ওই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সুমি বলেন, সাংগঠনিকভাবেই তার সাথে মমিনুল আজমের পরিচয় হয়। মমিনুল আযম প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় তিনি তার কাছে সরকারি একটি চাকরিতে ঢুকিয়ে দেওয়ার অনুরোধ করেন। মমিনুল তাকে চাকরি না দিয়ে বিয়ে করার প্রস্তাব দেন। মমিনুল বিভিন্ন সময় অর্থনৈতিক প্রলোভন দেখান। এভাবে এক পর্যায়ে তিনি মমিনুলের উপর দুর্বল হয়ে পড়েন।

তাকে বাড়ি থেকে নেওয়ার জন্য মমিনুল তার ব্যক্তিগত গাড়ি পাঠিয়ে দিতেন। আফতাব নগরের এইচ ব্লকের ৩ নম্বর রোডের ৪০ নম্বর বাড়িতে তাদের মধ্যে অনৈতিক সম্পর্ক হয়। এই সম্পর্কের৬/৭ মাস পরে মমিনুল তাকে বিয়ে করতে অসম্মতি জানায়।

চাকরির বিষয়ে ঘুষ দিতে হবে বলে বিকাশের মাধ্যমে দুইবারে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে। বিয়ে না করে মমিনুল তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। এ ঘটনার তিনি সুষ্ঠু বিচার ও শাস্তির দাবি করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, বিষয়টি সমাধান করার জন্য তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনা করেন। বলেন, আমি দলের একজন কর্মী হিসেবে ন্যায় বিচার চাই।

ঢাকা, ২৩ সেপ্টেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম) //বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।