ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা, চাচার বিরুদ্ধে অভিযোগ!


Published: 2019-08-04 21:41:22 BdST, Updated: 2019-08-25 20:20:02 BdST

নাটোর লাইভ : এবার কলেজ ছাাত্রীকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে চাচার বিরুদ্ধে। আপত্তিকর এমন কাজ ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে ওই ছাত্রীর চাচা তাকে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

নাটোরের সিংড়ার ইটালী ইউনিয়নের দেওগাছা গ্রামে রোববার ওই ঘটনা ঘটে। চাচা শাহাদৎ হোসেনকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী। নিহত রেশমী খাতুন স্থানীয় বামিহাল অনার্স কলেজের এইচএসসি ২য় বর্ষের ছাত্রী ও দেওয়াগাছা গ্রামের দিন মজুর আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, উপজেলার পাকুরিয়গ্রামে রেশমী খাতুনের বড় দাদা মারা যায়। রেশমীর বাবা-মা সহ বাড়ির সবাই সেই জানাযায় যায়। এসময় রেশমী খাতুন বাড়িতে একাই অবস্থান করছিল। এই সুযোগে আপন চাচা বখাটে শাহাদৎ হোসেন ভাতিজী রেশমী খাতুনকে ধর্ষণ করে মাটির ঘরের দোতলায় রেলিংয়ের ওপর শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।

পরে রেশমীর ছোট বোন স্থানীয় দেওগাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রী বাড়িতে এসে বড় বোনের লাশ দেখতে পায়। পাশেই লম্পট চাচাকে দেখে সে চিৎকার চেচামেচি শুরু করে। পরে এলাকাবাসীরা চাচা শাহাদৎ হোসেনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। আটক শাদাহৎ হোসেন মসলেম আলীর ছেলে।

রেশমী খাতুনের মা সোনাভান বেগম অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়েকে ধর্ষণ করে হত্যা করেছে ঘাতক শাহাদৎ হোসেন।

সিংড়া থানার ওসি মনিরুল ইসলাম বলেন, রেশমীকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগে ঘাতক শাহাদাত হোসেকে আটক করা হয়েছে।

ঢাকা, ০৪ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//আরএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।