নানা বাহানায় ২০ ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর শিক্ষক!


Published: 2019-08-04 20:54:33 BdST, Updated: 2019-08-24 00:54:37 BdST

বরগুনা লাইভ: নানা বাহানায় অন্তত: ২০ ছাত্রীর সঙ্গে আপত্তিকর কর্মকাণ্ডের অভিযোগ উঠেছে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। কখনও স্কুলে আবার কখনও কোচিংয়ে তিনি ছাত্রীদের যৌন হয়রানি করেন। রাতের বেলায়ও তিনি ছাত্রীদের কোচিংয়ের কথা বলে তাদের সঙ্গে আপত্তিকর কর্মকাণ্ড করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

পাথরঘাটার কালমেঘা ইউনিয়নের দক্ষিণ-পূর্ব ঘুটাবাছা নুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হালিমের বিরুদ্ধে এমন গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় তার বিরুদ্ধে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার পৃথক দুটি কমিটি গঠন করেছেন। জানা গেছে, স্কুলের এক ছাত্রীর অভিভাবক ২৮ জুলাই উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেন।

তিনি অভিযোগে উলে­খ করেন, রমজান মাস থেকে ওই প্রধান শিক্ষক আবদুল হালিম প্রতিদিন স্কুল শুরুর আগে এবং রাতে ছাত্রীদের কোচিং করান। তিনি ছাত্রীদের কাছে ডেকে নানা বাহানায় যৌন হয়রানি করে আসছিলেন। এমন আরও ১৯ ছাত্রীকে ওই শিক্ষক নানা বাহানায় যৌন হয়রানি করেছেন। অভিযুক্ত শিক্ষক আবদুল হালিম বলেন, আমি চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের রাতে কোচিং করাই।

তবে আমার স্কুলের সহকারী শিক্ষক নেছার উদ্দিন আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। হাসানিয়া ও হরিদ্রাবাড়িয়া স্কুলে চাকরি করাকালীন ছাত্রীদের যৌন হয়রানির বিষয়টি তুললে তিনি জবাব দিতে পারেননি। বরগুনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মিজানুর রহমান বলেন, তদন্ত কমিটি হয়েছে। ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলেও উল্লে­খ করেন তিনি।

ঢাকা, ০৪ আগস্ট (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//আরএইচ

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।