Azhar Mahmud Azhar Mahmud
teletalk.com.bd
thecitybank.com
livecampus24@gmail.com ঢাকা | বুধবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ই ফাল্গুন ১৪৩০
teletalk.com.bd
thecitybank.com

বরগুনায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ৬০

প্রকাশিত: ৩১ অক্টোবার ২০২২, ২৩:১১

আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

বরগুনা লাইভ: বরগুনার আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীসহ প্রায় ৬০ জন আহত হয়েছে।

রবিবার (৩০ অক্টোবর) আমতলী পৌরসভা কার্যালয়ের সামনে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আফজাল হোসেনের সামনে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় আট সাংবাদিক ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জি এম মুসা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জি এম হাসানসহ দুই পক্ষের অন্তত ৬০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আহতরা বর্তমানে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জি এম মুসা জানান, আমতলী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমানের নির্দেশে তার ক্যাডার বাহিনী বাদল খান তাদের ওপরে হামলা চালিয়েছে। মতিউর রহমান তার আধিপত্য দেখাতে গিয়ে ক্যাডার বাদল খানের মাধ্যমে তাদের ওপরে অতর্কিত হামলা চালায়। এতে তার ৪০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক একজন সিনিয়র সাংবাদিক জানান, আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মারামারির ভিডিও ও স্থিরচিত্র ধারণ করতে গেলে সাংবাদিকদের ওপরে ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালায় বাদল খানের লোকজন। এ সময় মঞ্চে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা এবং বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ জাহাঙ্গীর কবিরসহ জেলার বেশির ভাগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তাদের সামনেই সাংবাদিকদের ওপর হামলা করা হয়েছে। সবাই চুপ ছিলেন। এসময় আটজন সাংবাদিক আহত হয়েছেন। পরে পুলিশ এসে সাংবাদিকদের উদ্ধার করেন।

এ বিষয়ে বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাংবাদিক ইমরান হোসেন টিটু জানান, আহত সাংবাদিকরা লজ্জায় তাদের নাম প্রকাশ করতে চাচ্ছে না। তবে রাতেই আহত সাংবাদিকদের সাথে মিটিং করবে বরগুনা সাংবাদিক ইউনিয়ন। সেখানে হামলাকারীদের নামে মামলা করার সিদ্ধান্ত আসতে পারে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অভিযুক্ত বাদল খান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার রহমানকে পাওয়া যায়নি।

তবে হামলার ঘটনা ঘটার শেষে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বরগুনা-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু সাংবাদিকদের শান্ত হতে বলেন। তিনি এ বিষয়টি সমাধান করবেন বলে আশ্বাস্ত করেন।

এ বিষয়ে আমতলী থানার ওসি এ কে এম মিজানুর রহমান বলেন, সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঢাকা, ৩১ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড


আপনার মূল্যবান মতামত দিন:

সম্পর্কিত খবর


আজকের সর্বশেষ