ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয় এমন কিছু লিখলেই ব্যবস্থা


Published: 2021-06-09 20:07:04 BdST, Updated: 2021-06-18 09:35:55 BdST

চবি লাইভ: বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে বন্ধ রয়েছে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এদিকে সরকার ঘোষিত লকডাউন শিথিল করে গণপরিবহন, দূরপাল্লার বাস ও দোকানপাট-শপিংমল খুলে দেওয়া হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে বিরুপ কোনো মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি প্রফেসর আনোয়ার বেগমের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপিতে বলা হয়েছে ‘বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হতে পারে’এমন কিছু ‘সামাজিক মাধ্যমে’ না লেখার জন্য একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে।

বুধবার (০৯ জুন) এ বিষয়ে প্রফেসর আনোয়ারা বেগম গণমাধ্যমকে জানান, এটি কোনো প্রকার নিষেধাজ্ঞা নয়। অনেক সময় বিভাগের শিক্ষার্থীরা আবেগপ্রবণ হয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেক কিছুই লিখে থাকে। এতে বিভাগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হয়। এমন পরিস্থিতি যাতে না তৈরী হয় তাই একটি সতর্কতামূলক বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের এমন সিদ্ধান্তের ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এ বিষয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিজ্ঞান বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, শিক্ষার্থীরা তাদের ভোগান্তি নিয়ে লিখতে পারবে না এটি বাকস্বাধীনতার ওপর হস্তক্ষেপ। কারণ গত চার মাসেও স্নাতকের রেজাল্ট প্রকাশ করা হয়নি। বিশ্ববিদ্যালয় কোন অনুগত দাস তৈরির কারখানা নয়।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) বর্তমান ভিসি প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার গণমাধ্যমকে জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে এমন কোনো মন্তব্য শিক্ষার্থীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখবে তা হতে পারে না। আমি বিজ্ঞপ্তিটি সমর্থন করি। বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে কোনো শিক্ষার্থী যদি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উল্টাপাল্টা কিছু লেখেন তবে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ঢাকা, ৯ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।