শতাধিক সদস্যকে বরণ করে নিল চবি সায়েন্টিফিক সোসাইটি


Published: 2021-04-01 15:15:55 BdST, Updated: 2021-06-19 19:00:31 BdST

চবি লাইভ: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান ভিত্তিক সংগঠন চবি সায়েন্টিফিক সোসাইটির নতুন সদস্য বরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। এতে সংগঠনের নবীণ ১০৩ জন সদস্যকে বরণ করা হয়। পাশাপাশি সংগঠনের ভবিষ্যত পরিকল্পনাও তুলে ধরা হয়।

বুধবার (৩১ মার্চ) রাতে অনলাইন প্লাটফর্মে এই নবীণ বরণ অনুষ্ঠিত হয়। পরে সায়েন্টিফিক সোসাইটি কর্তৃক আয়োজিত ওমেন ইন সায়েন্স অন ক্যানভাস শীর্ষক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আল ফোরকান বলেন, চারদিকে বিজ্ঞান ভাবনাকে প্রসার করতে মূলত এই সংগঠনের যাত্রা শুরু হয়। আমাদের এই সংগঠনের অনুপ্রেরণায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ও এ ধরনের সংগঠন করার অনুপ্রেরণা পাচ্ছে। পুঁথিগত বিদ্যার বাহিরে যারা বিজ্ঞান চর্চার ক্ষেত্রে বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয় অন্যদের সাথে শেয়ার করতে চায় তাদের জন্য এই সংগঠন একটি অনন্য প্লাটফর্ম। এখান থেকে একজন শিক্ষার্থী যেভাবে বিভিন্ন ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দেয়ার যোগ্যতা যেমন অর্জন করে তেমনি বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষতাও অর্জন করে।

উদ্বোধকের বক্তব্যে সংগঠনের অন্য উপদেষ্টা ও একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. লায়লা খালেদা বলেন, এই সংগঠনের একেকজন সদস্য একেকজন উদ্যোক্তা। তারা বিজ্ঞানকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে ও বিজ্ঞানের সহজলভ্যতা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে। এমনকি করোনা মহামারির এই কঠিন সময়েও তারা ঘরে বসে নেই। তারা আমাদের সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের ল্যাবে করোনা পরীক্ষা থেকে শুরু করে অনলাইনে ও অফলাইনে করোনা সচেতনতামূলক বিভিন্ন কাজ করেছে। আশাকরি তারা এর ধারাবাহিকতায় আগামীতেও বজায় রাখবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম তুহিন বলেন, বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রাকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে এই সংগঠনের অবদান অতুলনীয়। অনেকে নানা সীমাবদ্ধতার কারনে বিজ্ঞান বিভাগে পড়তে পারে না, তবে বিজ্ঞানের প্রতি বিশেষ আগ্রহ আছে৷ তারা এই সংগঠনে যুক্ত হয়ে বিজ্ঞানের বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে জেনে নিজেদের মেধা বিকশিত করতে পারবে।

তিনি আরও বলেন, করোনাকালে এই সংগঠন মাঠ পর্যায়ে যে কাজগুলো করছে তা অনুকরণীয়ই বটে। করোনার চোখ রাঙানিকে উপেক্ষা করে তারা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় সচেতনতামূলক পোস্টার লাগিয়েছে, শ্রমজীবী মানুষদের করোনা থেকে বেঁচে থাকার উপায় শিখিয়েছে, অনলাইনে বিভিন্ন ধরনের অনুষ্ঠান করেছে; যা অন্যান্য সংগঠনের জন্য অনন্য নজির হয়ে থাকবে।

সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের সভাপতি দিবস দেব বলেন, সিইউএসএস তার নিয়মিত কার্যক্রম হিসেবে প্রতিবছরই সাধারণ সদস্য গ্রহণ প্রকিয়া পরিচালনা করে থাকে। এই সাধারণ সদস্য সবাই পরবর্তীতে তাদের কাজের ও দক্ষতার ভিত্তিতে কার্যকরী কমিটিতে স্থান প্রাপ্তির মাধ্যমে সংগঠনকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যায়। সিইউএসএস সেজন্য তাদের সকলের মাঝে দায়িত্ববোধ, নেতৃত্ববোধ তৈরী করার জন্য কাজ করে প্রতিনিয়ত যা তাদেরকে দক্ষ করে তোলে পরবর্তীতে। আজকের নবীণরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ গড়ে তুলবে। আর এভাবেই এগিয়ে চলছে আমাদের সিইউএসএস আর এগিয়ে চলেছি আমরা।

সংগঠনের প্রশাসন সম্পাদক মেহেরীণ আফরোজ এবং প্রকাশনা ও প্রচারণা সম্পাদক হুমায়রা ফেরদৌসীর যৌথ সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন, সাধারণ সম্পাদক নওশীন বিনতে জামাল জুঁই, সহ সভাপতি তাহমিদা শামসুদ্দিন, সাবেক সভাপতি মো. মিফতাহ মুশফিক, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহমান অপুসহ আরো অনেকে।

এর আগে ফেব্রুয়ারিতে চবি সায়েন্টিফিক সোসাইটি 'ওমেন ইন সায়েন্স অন ক্যানভাস' শীর্ষক একটি চিত্রকর্মের প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। যার উদ্দেশ্য ছিল হাতে আঁকা চিত্রকর্ম কিংবা ভেক্টর ডিজাইনের মাধ্যমে আজকের দিনে বিজ্ঞানের অগ্রগতির পিছনে নারীদের অবদানকে ফুটিয়ে তোলা। এই প্রতিযোগতায় ৫০ টিরও বেশি চিত্রকর্মের জমা হয়েছিল এবং বাছাইকৃত ১৫ জনের মধ্যে সেরা চার জনকে হাতে আঁকা চিত্রকর্ম ও ভেক্টর আর্ট ক্যাটাগরিতে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।

হাতে আঁকা ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হন চবির মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের শিক্ষার্থী সিমরান বিনতে সামাদ। এতে রানার্স আপ পালি বিভাগের শিক্ষার্থী পঙ্কজ চাকমা। অন্যদিকে ভেক্টর বা ডিজিটাল আর্ট ক্যাটাগরিতে বিজয়ী হয়েছেন ইইই বিভাগের শিক্ষার্থী জান্নাতুল নাইমা। এতে রানার্স আপ হয়েছেন ওশানোগ্রাফি বিভাগের শিক্ষার্থী অনামিকা দাস।

ঢাকা, ০১ এপ্রিল (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজে//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।