‘‘আমার কোনো গ্রুপ নেই’’


Published: 2020-01-29 19:33:13 BdST, Updated: 2020-09-18 14:16:39 BdST

চবি লাইভঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ছাত্রলীগের গ্রুপিং রাজনীতি সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

শিক্ষা উপমন্ত্রী জানান, ‘আপনারা বারবার বলেন, আমার গ্রুপ। আমার কীসের গ্রুপ? আপনারা বলতেছেন গ্রুপের কথা, আমি বলছি নাকি? আমি কি বলছি, আমি গ্রুপ করি?’

বুধবার বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির ৫৪তম ব্যাচের ক্যাডেটদের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষা উপমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নোত্তরে এসব কথা জানান।

এর পূর্বে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।

সে সময় শিক্ষামন্ত্রী জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক সময় ছাত্র আন্দোলন থাকে। কিন্তু কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে যদি কারও দাবি থাকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে তা নিয়ে আন্দোলনের প্রয়োজন নেই। ‘শেখ হাসিনার সরকারের সময়ে দাবি করতে হয় না। যা প্রয়োজন তা যদি প্রধানমন্ত্রী শুধু অবহিত হন, তাহলেই সে যৌক্তিক দাবি তিনি পূরণ করেন। তাই কারও কোনো প্রকার আন্দোলনে যাওয়ার প্রয়োজন নেই।’

চবিতে ছাত্রলীগের গ্রুপিং এর সমস্যাটি স্থানীয় নেতাদের কারণে হচ্ছে এমন ইঙ্গিত করে ডা. দীপু মনি জানান, ‘বিভিন্ন রাজনৈতিক দলে বিভিন্ন ইস্যূ নিয়ে কারও কারও মাঝে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। সেগুলো স্থানীয় সমস্যা। স্থানীয় সমস্যা স্থানীয় পর্যায়েই সমাধান করে ফেলতে হবে।’

উল্লেখ্য যে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আধিপত্য বিস্তার করাকে কেন্দ্র করে শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন বিজয়, সিক্সটি নাইন, সিএফসি, ভিএক্স, বাংলার মুখ এবং রেড সিগন্যালের কর্মীরা নিজেদের মধ্যে গত ২ মাসে অন্তত ১০ বার ঝামেলায় জড়িয়েছে।

এ সময়ে তাদের কারণে বন্ধ রাখতে হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম।

সর্বশেষ গত সোমবার দুপুরে সিক্সটি নাইনের কর্মীরা রেড সিগন্যালের ২ কর্মীর সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করলে রাতে বিশ্ববিদ্যালয় অবরোধের ঘোষণা দেয় রেড সিগন্যাল। যদিও মঙ্গলবার সকালে তা শিথিল ঘোষণা করে।

শাখা ছাত্রলীগের বগি ভিত্তিক সংগঠন সিএফসি ও বিজয়ের নেতা-কর্মীরা দীর্ঘদিন ধরে প্রয়াত মেয়র চট্টলবীর এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারি হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

পরে তার মৃত্যুর পর সিএফসি ও বিজয়ের নেতা-কর্মীরা নিজেদেরকে মহিউদ্দিন পুত্র নওফেলের অনুসারি হিসেবেও পরিচয় দিয়ে থাকেন।

আরেকদিকে ক্যাম্পাসে ভিএক্স, বাংলার মুখ, সিক্সটি নাইন এবং রেড সিগন্যালের কর্মীরা চট্টগ্রামের বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের অনুসারি বলে নিজেদের পরিচয় দিয়ে থাকে।

ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।