পটুয়াখালীতে ৫৪ টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবন, আতঙ্কে শিক্ষক ও কোমলমতি শিক্ষার্থীরা


Published: 2019-05-02 17:22:37 BdST, Updated: 2019-06-19 05:48:00 BdST

পটুয়াখালী লাইভঃ জেলার স্কুল গুলোর নাজুক অবস্থা। ও্মই জেলার মির্জাগঞ্জে ৫৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবনগুলো রয়েছে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। আর এসব ভবনে জীবনে ঝুঁকি নিয়ে ক্লাস করছে ছোট ছোট কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

তাই সব সময়ই আতঙ্কে থাকছে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা। কখন বিদ্যালয়ের ছাদ ধসে পড়ে ঘটবে প্রাণহানীসহ বড় ধরনের দুর্ঘটনা। ফলে ওইসকল ভবনে পাঠদান হয়ে পড়েছে চরম ঝুঁকিপূর্ণ। এছাড়াও প্রতিবছর কোনো না কোনো খাত থেকে ভবনগুলো সংস্করণ করা হলেও পাঠদানের উপযোগী হয়ে ওঠে না।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, নির্মিত প্রতিষ্ঠানগুলো কিংবা ঠিকাদারদের বিরুদ্ধে। আইনগত কোনো ব্যবস্থা গ্রহন না করার ফলে বছরের পর বছর শিক্ষাখাতে ভবন নির্মানের জন্য অর্থ কোনো কাজে আসছে না। উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে ১৪২ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে।

এর মধ্যে ৫৪টি বিদ্যালয় ঝুঁকিপূর্ণ এবং ৭টি বিদ্যালয়ের অবস্থা খুবই নাজুক। অধিক ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়গুলো হল-দক্ষিন পশ্চিম কালাগছিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, তারাবুনিয়া হাবিবিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম দক্ষিন আমড়াগাছিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চৈতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, উত্তর রানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মজিদবাড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও গাবুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। যদিও বাস্তবে ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয়ের সংখ্যা এর দ্বিগুন।

এ সকল ভবনের কোনোটির ছাদ ধসে পড়েছে, কোনোটির পিলার ভেঙ্গে গেছে, কোনোটির ছাদ দিয়ে পানি পড়ছে। কোনোটির বিভিন্ন স্থান থেকে বড় বড় ফাটল দেখা দিয়েছে। ফলে সারাক্ষনই শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা অতঙ্কের মধ্যে পাঠদানসহ শিক্ষার যাবতীয় কার্যক্রম পরিচালনা করতে হচ্চে।

পশ্চিম দক্ষিন আমড়াগাছিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোসলেহ উদ্দীন মিন্টু জানান, প্রায় ১০ বছর আগেই বিদ্যালয়টি মৌখিক ভাবে পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হলেও এখনও পর্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে পাঠ দান করতে হচ্ছে।

বর্ষা মৌসুমে না পারছি খোলা আকাশের নীচে না পারছি বিদ্যালয় ভবনে পাঠদান করতে। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোসাঃ জিনাত জাহান ঝুঁকিপূর্ণ বিদ্যালয় গুলোর সমস্যার কথা স্বীকার করে বলেন, এসব বিদ্যালয়ের নামের তালিকা করে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়েছে।

ঢাকা, ০২ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//বিএসসি

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।