এই ছেলেটি আর কোনদিন বিশ্ববিদ্যালয়ে আসবে না!


Published: 2017-10-17 12:23:48 BdST, Updated: 2020-07-05 16:55:02 BdST

সিলেট লাইভ : ওমর আহমদ মিয়াদ। বাড়ি সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে। লিডিং ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগে পড়াশোনা চলছিল তার। ৩য় বর্ষে ওঠার পরেই জীবনের ছন্দপতন। রাজনীতির সঙ্গে জড়িয়ে জীবন দিতে হয়েছে তাকে। নিজদলের কর্মীদের হাতেই খুন হয়েছেন তিনি। পতন হয়েছে একটি মেধাবী স্বপ্নের। খালি হয়েছে এক মায়ের কোল। এ ব্যাথা সহ্য করার নয়। বিষয়টি বেদনার, কষ্টের, আফসোসের। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া এক ছাত্রকে এভাবে হারাতে হয়েছে।

এই ছেলেটি আর কোন দিন ক্যাম্পাসে যাবে না। বন্ধুদের সঙ্গে মাতিয়ে তুলবে না আড্ডা। ক্লাস পরীক্ষাতেও দেখা যাবে না তাকে। সহপাঠী, বন্ধু আর পরিবারের সদস্যদের কাঁদিয়ে তিনি চলে গেছেন না ফেরার দেশে। সেখান থেকে কেউ কখনও ফিরতে পারে না।

জানা গেছে, সিলেটের টিলাগড়ে সোমবার কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদের কার্য্যালয়ের সামনে হিরন মাহমুদ নিপু গ্রুপের ছাত্রলীগ কর্মী ওমর আহমেদ মিয়াদ, নাসিমসহ ৪ জনের উপর হামলার ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয়রা মিয়াদ ও নাসিমকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তাররা মিয়াদকে মৃত ঘোষণা করে।

আহত নাসিম জানান, মিয়াদ, নাসিম, তারেক ও রাহাত দুই মোটরসাইকেলে শাহপরান এলাকা থেকে শহরের দিকে আসছিলেন। এসময় সিটি কাউন্সিলর ও মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা আজাদুর রহমান আজাদের টিলাগড়স্থ কার্যালয়ের সামনে আসামাত্র থামতে বলেন আজাদ গ্রুপের কর্মী তোফায়েল। নামার সাথে সাথেই তাদের উপর হামলা চালায় তোফায়েল, আজলা, মোতাচ্ছির ও মানিকসহ আরো কয়েকজন।

এক পর্যায়ে তোফায়েল তার হাতে থাকা ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে মিয়াদ ও নাসিমকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে মিয়াদের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনার পর থেকে সিলেট নগরীতে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।


ঢাকা, ১৭ অক্টোবর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।