স্কুলছাত্রের বুদ্ধিমত্তায় রক্ষা পেলো ট্রেনের ৫০০ যাত্রী


Published: 2019-05-09 14:52:54 BdST, Updated: 2019-06-19 11:32:18 BdST

লাইভ প্রতিবেদক: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে আবুল হোসেন নামে নবম শ্রেণির ছাত্রের সচেতনতায় সম্ভাব্য দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেলো চট্টগ্রাম অভিমুখী আন্তনগর উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেন। আবুল হোসেন মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের শমশেরনগর ইউনিয়নের ঈদগাহ টিলার খোকন মিয়ার ছেলে। সে কমলগঞ্জের কামুদপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র।

স্থানীয়রা জানান, রাত সাড়ে ১০টায় আবুল হোসেন স্থানীয় সায়েদ কবিরাজের বাড়ি থেকে ফেরার পথে শমশেরনগর ইউনিয়নের ঈদগাহ টিলায় সিলেট-আখাউড়া রেলপথের ৩০৬/২নং রেলপথ এলাকায় একটি রেলপাত ভেঙে ফাঁক হয়ে থাকতে দেখে। এ অবস্থায় ট্রেন চলাচল করলে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে ভেবে সে বিষয়টি গ্রামবাসীদের জানায়।

গ্রামবাসী বিষয়টি দ্রুত শমশেরনগর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য শেখ রায়হান ফারুকের মাধ্যমে শমশেরনগর রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার কবির আহমদ ও শ্রীমঙ্গল রেলওয়ের গণপূর্ত বিভাগকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভাঙা পাত সরিয়ে সেখানে নতুন এক টুকরো পাত বসান। এর প্রায় একঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

শমশেরনগর রেলওয়ে স্টেশনের মাস্টার কবির আহমদ বলেন, ‘আবুল হোসেনের সচেতনতায় সম্ভাব্য একটি রেল দুর্ঘটনা থেকে বাঁচা গেলো। ওই ট্রেনে ৫-৬ শত যাত্রী থাকেন।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, রাত সাড়ে ১০টার দিকে শমশেরনগর স্টেশনে চট্রগ্রাম অভিমুখী আন্তনগর উদয়ন ট্রেন আটকা পড়েছিল। ওই সময় রেলপাত ভাঙার বিষয়টি জানাজানি না হলে বড় দুর্ঘটনায় পড়তো ওই ট্রেন।

শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে গণপূর্ত বিভাগের ঊর্ধ্বতন উপ-সহকারী প্রকৌশলী মনির হোসেন বলেন, বর্তমানে রেলপথ ঝুঁকিমুক্ত। সময়মতো যদি স্কুলছাত্রটি খবর না জানালে উদয়ন ট্রেনটি বড় দুর্ঘটনায় পড়ে যেতো।

 


ঢাকা, ০৯ মে (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।