দুই ভাইয়ের একসঙ্গে বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডার হওয়ার গল্প


Published: 2017-12-08 20:56:34 BdST, Updated: 2018-12-11 22:24:08 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : মো. হুমায়ুন কবিরের পড়াশোনা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে। ছোট ভাই শাহীনুর ইসলাম শাহীন পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। তাদের বাড়ি ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায়। দুইজন দুই বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করলেও কর্মক্ষেত্রে তাদের পথচলা একসঙ্গে। দুইজনই বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। এখন তারা সহকারী পুলিশ সুপার। যদিও তাদের কর্মস্থল আলাদা আলাদা জায়গায়। ৩৪তম বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে নিয়োগ পেয়ে এখন তারা সফলতার পথে হাঁটছেন। চলুন জেনে নেয়া যাক তাদের সফলতার গল্প :

আপন দুই ভাইয়ের একই সঙ্গে বিসিএস পুলিশ ক্যাডার হয়ে ওঠার গল্পটা নতুন নয়। বাংলাদেশ পুলিশের ইতিহাসে এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। ২৫তম বিসিএসেও আপন দুই ভাই নিয়োগ পেয়েছিলেন। ৩৪তম বিসিএসে আবারও সেই ইতিহাসের প্রতিফলন ঘটলো।

জানা গেছে, দুই ভাই বালিয়াডাঙ্গী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়লেও কলেজ ছিল ভিন্ন। বড়ভাই হুমায়ুন পড়েছেন দিনাজপুর সরকারি কলেজে, আর ছোট ভাই শাহীন ঢাকার নটরডেম কলেজে পড়েছেন। পরে তিনি ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে আর হুমায়ুন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিজ্ঞান বিভাগে।

মু্ক্তিযোদ্ধার সন্তান বলে বাবাকে নিয়ে গর্ব করেন তারা। বাবাকে হারালেও তার আদর্শকে ভুলে যাননি তারা। দেশের মানুষের কল্যাণের জন্য কিছু করে যেতে চান তারা। সেই ব্রত নিয়েই হয়েছেন পুলিশ অফিসার। সম্প্রতি বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ শেষে কর্মক্ষেত্রে যোগ দিয়েছেন তারা। বড় ভাই হুমায়ুন যোগ দিয়েছেন শেরপুর জেলার সহকারি পুলিশ সুপার হিসেবে। আর ছোট ভাই শাহীন কুড়িগ্রাম জেলার সহকারি পুলিশ সুপার।

ঠাকুরগাঁওয়ের প্রত্যন্ত গ্রামের ওই দুই ছেলে এখন দেশের গর্ব, এলাকার গর্ব হয়ে উঠেছেন। তাদেরকে দেখে অনুপ্রাণিত হয়েছেন অনেকে। মা শামসুন নাহার ও বাবার অনুপ্রেরণা ও আত্মত্যাগের কারণেই আজ তারা এ অবস্থানে বলে উল্লেখ করেন পুলিশ কর্মকর্তা দুই ভাই।

তারা স্বপ্ন দেখেন মানুষের সেবা করার। বাংলাদেশ পুলিশ রোল মডেল হয়ে উঠতে পারে। একটি পর্যায়ে এমন বাংলাদেশ দেখতে চাই যেখানে অপরাধ বলে কিছু থাকবে না। এমন স্বপ্ন দেখেন তারা।

[কার্টেসি : চ্যানেলআই]

ঢাকা, ০৯ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।