প্রথম বিসিএসেই দেশসেরা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র!


Published: 2017-11-01 02:05:57 BdST, Updated: 2017-11-18 12:25:20 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : ইসমাইল হোসেন। যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল থেকে এসএসসি আর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেছেন। দুই পরীক্ষাতেই তিনি জিপিএ-৫ পেয়েছেন। তাই স্বপ্নটাও ছিল অাকাশছোঁয়া। ভেবেছিলেন চিকিৎসক হবেন। জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করবেন। সেভাবেই নিজেকে প্রস্তুত করছিলেন। তবে শেষতক মেডিকেলে চান্স পেলেন না তিনি। তাই বলে দমে যাওয়ার পাত্র নন ওই স্বপ্নবাজ তরুণ। প্রতিজ্ঞা করলেন এমন একটা কিছু করার যাতে তাক লাগিয়ে দেয়া যায়। সেভাবেই প্রস্তুতি নিলেন। ভর্তি হলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগে। ৩৬তম বিসিএসে প্রথমবার অংশ নিয়েই বাজিমাত করে দিয়েছেন তিনি। প্রশাসন ক্যাডারে হলেন দেশসেরা।

রসায়ন পড়তে ভালো লাগত না তার। বাধ্য হয়েই পড়তেন তিনি। প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন বিসিএসে পরীক্ষা দেয়ার। সংকল্প করলেন পরীক্ষা যেহেতু দিচ্ছি, একবারই দেব। আর যেন দিতে না হয়। স্নাতক শেষ সেমিস্টারে এসে বিসিএসের জন্য টুকটাক পড়াশোনা করতে শুরু করেন। মাস্টার্সের প্রথম সেমিস্টারের পর ৩৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা দিলেন।
টিকে গেলেন তিনি। এ সময় আবার মাস্টার্স শেষ সেমিস্টারের পরীক্ষা। দুটো পরীক্ষার প্রস্তুতি নেওয়া কঠিন হলেও হাল ছাড়েননি তিনি। শেষ সেমিস্টারের পরীক্ষা শেষ হতে না হতেই বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হলো।

পড়াশোনার পাশাপাশি নিয়মিত টিউশনি করতেন বলে ভালো পারতেন ইংরেজি আর বিজ্ঞান। এ ছাড়া বিজ্ঞান বিভাগ থেকে পাস করেছেন বলে গণিতেও বেশ ভালো দখল ছিল। ইসমাইল লিখতে ভালোবাসতেন। কোনো কিছু গুছিয়ে লেখা তার পুরোনো অভ্যাস। লিখিত পরীক্ষায় এই দক্ষতাই কাজে লাগালেন তিনি। পরীক্ষা ভালো হলো। অনেকটা নিশ্চিত ছিলেন, লিখিততে নির্বাচিত হবেন। এই ধাপও শেষ করলেন। সময় এল মৌখিক পরীক্ষার। পরীক্ষা দিলেন। খুব ভালো বা খারাপ কোনোটাই নয়, পরীক্ষা হলো মাঝামাঝি রকমের। প্রথম পছন্দ প্রশাসনে হলেও তিনি আশা করছিলেন, অন্তত শিক্ষা ক্যাডার পাবেন।

এবার অপেক্ষা চূড়ান্ত ফলের। তবে যেদিন চূড়ান্ত ফলাফল দেয়া হবে, সেদিন আমি ফোনের রিংটোন অফ করে রেখেছিলেন তিনি। সন্ধ্যা গড়াতেই হাতে ফোন নিয়ে দেখেন এক বন্ধু ফোন দিয়ে বললেন, “তুই প্রশাসন ক্যাডারে প্রথম হয়েছিস।” যেন নিজেকে বিশ্বাস করতে পরছিলেন না তিনি। পরে ফলাফল দেখে আনন্দে কেঁদে ফেলেন ইসমাইল। তার স্বপ্ন পূর্ণ হয়েছে। আর কোন পরীক্ষা দেবেন না তিনি। বিসিএস ক্যাডার হয়ে দেশ সেবা করাই এখন তার স্বপ্ন।

বিসিএসে চান্স পেতে ইসমাইলের পরামর্শ :

>>> যেকোনো কাজ ঠিকভাবে সম্পন্ন করার জন্য খুব ভালো পরিকল্পনা দরকার। প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার পরিকল্পনা আমি আগেই সাজিয়ে নেয়া ভাল।

>>> এলোমেলোভাবে পরিশ্রম করলে সেটা কোনো কাজে আসে না। পরিশ্রম করতে হলে সেটা সঠিক পদ্ধতিতে করতে হবে। বিসিএস পরীক্ষার ক্ষেত্রে কৌশলী হতে পারলে সেটা ভালো ফলাফলে সহায়ক হয়।

>>> পড়াশোনায় মন দেওয়ার জন্য বন্ধুদের সঙ্গে অহেতুক আড্ডা বাদ দিন।

>>> নিজেকে নিজে পুরস্কৃত করুন। বড় কাজগুলোকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে ফেলুন। তারপর ছোট ছোট কাজগুলোতে সফল হলে নিজেকে ছোট ছোট পুরস্কার দিন নিজেকে।

>>> বেশি বেশি মডেল টেস্ট দিন। এতে করে আপনার দুর্বলতাগুলো জানতে পারবেন। আত্মবিশ্বাসও বাড়বে।


ঢাকা, ০১ নভেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।