একটি নাম, একটি আন্দোলন: নেত্রকোনার সৈয়দ আলমগীর


Published: 2019-03-31 21:58:23 BdST, Updated: 2019-05-24 15:41:08 BdST

লাইভ প্রতিবেদকঃ সৈয়দ আলমগীর। একটি নাম। একটি প্রতিভা। একটি আন্দোলন। তিনি মার্কেটিং জগতে ঝড় তুলেছেন। সারা জাগিয়েছেন তরুণ-নবীন ও প্রবীণদের মাঝে। নতুন এক দিক নির্দেশনা দিয়েছেন মার্কেটিং জগতে। প্রথমবারের মতো চ্যানেল আই-বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম মার্কেটিং সুপারস্টার অ্যাওয়ার্ড সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।

জুড়ি বোর্ডের সদস্যদের মনোনয়নে এ বছর অ্যাওয়ার্ডের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন এসিআই কনজ্যুমার ব্র্যান্ডস-এর নির্ব‍াহী পরিচালক স্বনামধন্য মার্কেটিং গুরু ও এই প্রজন্মের অহংকার সৈয়দ আলমগীর।

গত ২৮শে মার্চ ঢাকার একটি অভিজাত হোটেলে সৈয়দ আলমগীরের হাতে বিশেষ সম্মাননা পদক তুলে দেন চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এবং শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন।

তাছাড়া সৈয়দ আলমগীরকে বিশেষ গাউন, ক্যাপ, সার্টিফিকেট এবং ফুলের তোড়া প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের পরিচালক সৈয়দ ফারহাত আনোয়ার, টেলিকম বিশেষজ্ঞ মেহবুব চৌধুরী, চ্যানেল আই-এর পরিচালক ও বার্তাপ্রধান শাইখ সিরাজ এবং বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরিফুল ইসলাম।

বাংলাদেশে মার্কেটিংয়ের পথপ্রদর্শক এবং কিংবদন্তিদের সম্মাননা জানানোর জন্য যৌথভাবে উদ্যোগ নেয় শীর্ষস্থানীয় বেসরকারি টিভি প্রতিষ্ঠান চ্যানেল আই এবং ব্র্যান্ড-মার্কেটিং বিষয়ক শীর্ষ প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম।

সৈয়দ আলমগীর ১৯৭৬ সালে তার ক্যারিয়ার শুরু করেন ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিতে, তৎকালীন মে অ্যান্ড বেকার প্রতিষ্ঠানে। যা এখন সানোফি বাংলাদেশ নামে পরিচালিত।

সর্বশেষ ১৯৯৮ সালে তিনি এসিআই-এর সঙ্গে যাত্রা শুরু করেন এবং দীর্ঘ দুই দশকে তিনি প্রতিষ্ঠানটিকে দেশের শীর্ষস্থানীয় ভোক্তাপণ্য উৎপাদনকারী হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেন।

তার দেয়া পথ অনুসরণ করে শত শত যুবক পেয়েছেন নতুন কর্মসংস্থানের সন্ধান। পেয়েছে রুটি রোজগারের নতুন ঠিকানা। নতুন, নতুন ক্ষেত্র।

ক্যাম্পাসলাইভ পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা

ঢাকা, ৩১ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এজেড

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।