সরকারি বিদ্যালয়ে ৬৫ হাজার ‘হিসাবরক্ষক’ নিয়োগ : প্রস্তুতি যেভাবে


Published: 2019-02-19 02:57:52 BdST, Updated: 2019-07-21 02:38:04 BdST

লাইভ প্রতিবেদক : দেশে বর্তমানে ৬৫ হাজার ৯৯টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। প্রতিটি বিদ্যালয়ে একজন করে হিসাবরক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। ওই হিসাবে সারা দেশে নিয়োগ পাবেন ৬৫ হাজার ৯৯ জন হিসাবরক্ষক। ইতিমধ্যে ওই প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। নিয়োগ পেতে চাইলে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। চলুন জেনে নেই কিভাবে প্রস্তুতি নিতে পারেন :

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অন্যান্য পদের মতো হিসাবরক্ষক পদেও লিখিত ও ভাইভার মাধ্যমে প্রার্থী বাছাই করা হতে পারে। বাংলা, ইংরেজি, গণিত, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, সাধারণ জ্ঞান প্রভৃতি বিষয়ে এমসিকিউ পদ্ধতিতে প্রশ্ন হতে পারে। কাজে দেবে বিগত সালের বিসিএস, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান।

সাধারণ জ্ঞান : বাংলাদেশ বিষয়াবলিতে ভৌগোলিক অবস্থান ও ভূ-প্রকৃতি, জনসংখ্যা, বাংলাদেশের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা, সংবিধান ও প্রশাসনিক কাঠামো, কৃষিজ, খনিজ ও বনজ সম্পদ, শিল্প-বাণিজ্য-অর্থনীতি, সংস্কৃতি-ঐতিহ্য, সংস্থা-সংগঠন-একাডেমি, স্থাপত্য ও পুরাকীর্তি, পুরস্কার-সম্মাননা, খেলাধুলা প্রভৃতি বিষয়ে জানতে হবে।

আর আন্তর্জাতিক অংশে দেশ-মহাদেশ, রাজধানী, মুদ্রা ও পার্লামেন্ট, প্রণালী, দ্বীপ ও মহাসাগর, বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব, শিল্প, বাণিজ্য ও অর্থনীতি, স্থাপত্য ও স্থাপনা, যুদ্ধ-বিগ্রহ ও প্রতিরক্ষা, চুক্তি-সনদ-সম্মেলন, সংস্থা ও সংগঠন, পুরস্কার ও সম্মাননা, খেলাধুলা, ইতিহাস ও সভ্যতা থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। বাজারে প্রচলিত ভালো মানের একটি সাধারণ জ্ঞানের বই থেকে প্রস্তুতি নেওয়া যেতে পারে। ভালো করতে চাইলে নিয়মিত পত্রিকা পড়ার কোনো বিকল্প নেই।

ইংরেজি : Parts of Speech, Number, Article, Degree, Tense, Sentence, Voice, Narration, Appropriate Preposition, Fill in the Blanks, Correct Spelling, Correction, Synonyms and Antonyms, Phrases & Idioms and Word meaning, Translation প্রভৃতি বিষয় সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। এ বিষয়গুলো থেকে বেশি প্রশ্ন আসতে পারে। বাজারে প্রচলিত ভালো মানের একাধিক গ্রামার বই থেকেও প্রস্তুতি নেওয়া যেতে পারে। এতে আপনার আত্মবিশ্বাস আরো বেড়ে যাবে।

বাংলা সাহিত্য ও ব্যাকরণ : বাংলা সাহিত্যের প্রস্তুতির জন্য প্রাচীন যুগ, মধ্য যুগ, আধুনিক যুগের বিকাশ, সাহিত্যকর্ম ও রচয়িতা, উপজীব্য ও চরিত্র, পঙক্তি ও উদ্ধৃতি, ছদ্মনাম, উপাধি, পত্রিকা ও সাময়িকী প্রভৃতি বিষয়ে ভালো করে জানতে হবে। আর ব্যাকরণ অংশে ভাষা, বর্ণ ও ধ্বনি, শব্দ, সন্ধি, লিঙ্গ ও বচন, পদ প্রকরণ, কারক ও বিভক্তি, সমাস, প্রত্যয়, শুদ্ধ বানান, সমার্থক বা প্রতিশব্দ, বিপরীত শব্দ, উপসর্গ, দ্বিরুক্ত শব্দ, এককথায় প্রকাশ, বাগধারা, প্রবাদ-প্রবচন প্রভৃতি বিষয় থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। ড. হুমায়ুন আজাদের লেখা লাল নীল দীপাবলি বই থেকে প্রস্তুতি নেওয়া যেতে পারে। এছাড়া ও নবম-দশম শ্রেণির বোর্ড ব্যাকরণ বইটি বেশ কাজে দেবে।

গণিত : পাটিগণিতে সংখ্যার ধারণা, ল.সা.গু ও গ.সা.গু, ভগ্নাংশ, সরলীকরণ, অনুপাত-সমানুপাত, গড়, ঐকিক নিয়ম, সময়, দূরত্ব ও গতিবেগ, শতকরা, লাভ-ক্ষতি, সুদকষা, ক্ষেত্রফল ও পরিমাপ প্রভৃতি আয়ত্তে আনতে হবে।

বীজগণিতে বীজগণিতীয় সূত্রাবলি ও প্রয়োগ, উত্পাদকে বিশ্লেষণ, সূচক ও লগারিদম, সরল সমীকরণ ও প্রয়োগ, সেট বেশি বেশি চর্চা করা যেতে পারে।

অন্যদিকে জ্যামিতির ক্ষেত্রে ত্রিভুজ, চতুর্ভুজ, বৃত্ত ভালো করে জানতে হবে। গণিতে ভালো করতে হলে নিয়মিত চর্চার বিকল্প নেই। পঞ্চম থেকে দশম শ্রেণির গণিত বই থেকে প্রস্তুতি নিলে ভালো করা যাবে। হিসাববিজ্ঞান থেকেও কিছু প্রশ্ন আসতে পারে, তবে ঘাবড়ানোর কিছু নেই।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : পদার্থবিজ্ঞান, মহাকাশ বিজ্ঞান, পরিবেশ বিজ্ঞান, কম্পিউটার বিজ্ঞান, রসায়ন, উদ্ভিদবিজ্ঞান, প্রাণিবিজ্ঞান, মানবদেহ, রোগ ও চিকিত্সা, খাদ্য ও পুষ্টি, ভূগোল, আবিষ্কার-আবিষ্কারক ও বৈজ্ঞানিক যন্ত্রের ব্যবহার ভালোভাবে জানতে হবে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে প্রস্তুতির জন্য সহায়ক বই হিসেবে অষ্টম ও নবম-দশম শ্রেণির সাধারণ বিজ্ঞান বই থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। এ ছাড়া বাজারে প্রচলিত ভালো মানের একটি সহায়ক বই পড়তে হবে। তবেই প্রস্তুতি যথেষ্ট।

ঢাকা, ১৯ ফেব্রুয়ারি (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।