৩৮তম বিসিএস চ্যালেঞ্জ : সময়টা শুধু আত্মবিশ্বাসীদের


Published: 2017-12-17 11:56:51 BdST, Updated: 2018-09-21 20:33:07 BdST

সত্যজিৎ চক্রবর্ত্তী : এখন আর বলারও সময় নেই Examination is knocking at the door কারণ সময়টা এখন স্টপ ওয়াচ চালু করে গুণার মত। পরীক্ষা অলরেডি entered the room। ৩৮ তম বিসিএস প্রিলি পরীক্ষার কথা বলছিলাম। ৩ লাখ ৮৯ হাজার প্রথমে স্বপ্ন দেখেছিল বিসিএস ক্যাডার হওয়ার। কিন্তু কোনো পরীক্ষা ছাড়াই সেখান থেকে ভয়ে পালিয়ে যায় ৪৩ হাজার। আবেদন করেও পরীক্ষার ফি জমা দেয়নি তারা। অবশেষে এখন আছে ৩ লাখ ৪৬ হাজার। আমি নিশ্চিত, শেষ মুহুর্তে এসে ৫০ হাজারের মত ক্যান্ডিডেট হাত পা ছেড়ে দিয়ে বসে আছে। "আগামী বিসিএসে দেখিয়ে দিব" বলে অনেকেই এই বিসিএসের আশা ছেড়ে দিয়েছেন।

আপনি যতজন ক্যান্ডিডেটের সংখ্যা জানেন, ততজন ক্যান্ডিডেট আসলেই নেই। অর্ধেকেরও বেশি ক্যান্ডিডেট আবেদন করেছে শুধু আবেদন করার মত একটা সুযোগ ছিল এই কারণে। এদের বেশিরভাগেরই প্রিপারেশন নেই। যদি সিরিয়াস ক্যান্ডিডেটের হিসেব করি তবে সেটা ৪৫-৫০ হাজার। আপনার কম্পিটিশন এদের সাথেই যদি আপনি সিরিয়াস ক্যান্ডিডেট হোন। আমি সত্যজিৎ এক্সপার্ট কেউ না। আপনি আমার চেয়ে ভালো বুঝেন। কারণ জীবনটা আপনার। গত কয়েকবছর ধরে ক্যারিয়ার নিয়ে কাজ করছি, খুব কাছ থেকে এসব বিষয় দেখছি, ক্যারিয়ার এক্সপার্টদের সাথে এসব নিয়ে ক্যালকুলেশানও করেছি। তাই একটা পরিসংখ্যান জানিয়ে দিতে এলাম। কারণ অনেকের সাথে ইনবক্সে আউটবক্সে আমার বিভিন্ন কর্পোরেট সেশনে কথা হয়েছে। যদি সবার কথার সারমর্ম দাঁড় করায়, তবে এবারের বিসিএসে মূল ভয় ক্যান্ডিডেটের সংখ্যা।

৫০ তলা থেকে লাফ দিলে কেউ নিচে পড়ে আঘাতের কারণে মরে না, ডাক্তারি পোস্ট মর্টেম রিপোর্ট করলে দেখা যায় এরা হার্ট এটাকে মারা যায়। এর কারণ কী? এর কারণ হলো নিচে পড়লে মারা যাবে এই ভয়ে নিচে পড়ার আগেই এরা ভয়ে হার্ট এটাক করে ফেলে।

যুদ্ধে নামার আগে আত্মবিশ্বাস রাখাটা খুব জরুরি। আত্মবিশ্বাস কী আপনাকে সফলতা এনে দিবে? নারে ভাই। কিন্তু "আমি পারব" আপনার মাঝে এই আত্মবিশ্বাসটুকুই না থাকে তবে আপনার আর প্রস্তুতি নিতে ইচ্ছে হবে না। যে আত্মবিশ্বাসী সে বেশি বেশি চেষ্টা করে, লেগে থাকে। আর যার মধ্যে আত্মবিশ্বাস নেই, সে হাল ছেড়ে দিয়ে বসে থাকে। একারণেই আত্মবিশ্বাসীরা সফল হয়। আত্মবিশাসের কারণে না। আত্মবিশ্বাস করার ফলে তার মধ্যে যে একটা স্পিড এসেছিল সেই স্পিডটাকে কাজে লাগিয়ে সে অন্যদের চেয়ে বেশি চেষ্টা করেছিল বলেই।

ক্যারিয়ার রিলেটেড বাকি লেখাগুলো আমার টাইমলাইনে (Satyajit Chakraborty) ও পত্রিকার ক্যারিয়ার বিষয়ক কলামগুলোতে পাবেন। আজ আর নয়। শুভ কামনা। সিভি নিয়ে কিছু ম্যাসেজ পেয়েছি। সিভি সম্পর্কিত একটা লেখা অলরেডি আমার টাইমলাইনে ও বইতে আছে। জানুয়ারিতে আবার নতুন করে দিব নতুন ট্র্যাটেজিসহ।

Satyajit Chakraborty
Writer, Public Speaker & Corporate Trainer
Founder, Bangladesh Career Club
Ex-president,
Social Law Awareness Association

ঢাকা, ১৭ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//সিএস

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।