শেষ ম্যাচ বাতিল, দেশে ফিরছে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা


Published: 2019-03-15 19:18:29 BdST, Updated: 2019-04-20 18:56:55 BdST

স্পোর্টস লাইভ: নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে টেস্ট খেলতে বর্তমানে ক্রাইস্টচার্চ এলাকাতেই অবস্থান করছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সদস্যরা। দেশটির হেগলি পার্কে তারা অনুশীলন করছিলেন। সেসময়ই সেখানকার দুটি মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এতে ব্যাপক হতাহতের খবর পাওয়ার গেছে।

ভয়াবহ এ ঘটনার মুখোমুখি হতে হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের কয়েকজন সদস্যকেও। নামাজ পড়তে তারা ওই সময় মসজিদে ঢুকছিলেন। প্রবেশের ঠিক আগেই মসজিদে গোলাগুলি শুরু হয়।

রয়টার্স জানিয়েছে, তারা সকলেই নিরাপদে ওই স্থান ত্যাগ করতে পেরেছেন। ঘটনার পর থেকে প্রায় ২ ঘন্টা হেগলি পার্কের হোটেলে অবরুদ্ধ ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সদস্যরা।

হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিতব্য সিরিজের শেষ টেস্ট ম্যাচ বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। সমঝোতার ভিত্তিতেই ম্যাচটি বাতিল করা হয়। দলের সদস্যরা কবে দেশে ফিরবেন সে ব্যাপারে খুব শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেবে দুই দেশের ক্রিকেট বোর্ড।

জানা যায়, বাংলাদেশ ক্রিকেট দল যখন তাদের বাস নিয়ে মসজিদের কাছে একজন রক্তাক্ত নারীকে দেখতে পান। এসময় পাশের আরেক নারী তাদেরকে সাবধান করে বলেন যে, ভেতরে গোলাগুলি হচ্ছে। তিনি সাবধান না করলে হয়ত ক্রিকেটাররা ভেতরে ঢুকেই যেতেন। ঘটনার পর ফেসবুকে বাংলাদেশ দলে ক্রিকেটাররাও তাদের ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা লিখেছেন।

সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম লিখেছেন, ক্রাইস্টচার্চ মসজিদে হামলার সময় আল্লাহ আজ আমাদের রক্ষা করেছেন। আমরা অত্যন্ত ভাগ্যবান। তামিম ইকবাল ফেসবুকে লিখেছেন, পুরো দল বন্দুকধারীদের হামলা থেকে রক্ষা পেয়েছে!!! ভয়াবহ অভিজ্ঞতা হলো, সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের মুখপাত্র জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, বাসে করে দলের বেশিরভাগ সদস্যই মসজিদে গিয়েছিল। ঠিক যখন হামলার ঘটনাটি ঘটে তারা মসজিদের ভেতর প্রবেশ করছে। তিনি সংবাদ সংস্থা এএফপিকে নিশ্চিত করেছেন যে, তারা নিরাপদে আছে। তবে তারা মানসিকভাবে তারা হতবাক। তাদেরকে আপাতত হোটেল থেকে বের না হওয়ার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের খবর সংগ্রহের দায়িত্বে থাকা সাংবাদিক মোহাম্মদ ইসাম হামলার বিষয়ে টুইটারে লিখেছেন, ক্রিকেট দল হেগলি পার্কের কাছে একটি মসজিদে বন্দুকধারীর হামলার ঘটনা থেকে বাঁচতে পেরেছেন। তবে এখনো ভেতরে আমার বন্ধুরা রয়েছে। আমার বন্ধু বেঁচে আছে কি-না সেটা নিয়ে আমি ভীত।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড ইতিমধ্যে টুইটারে এটি নিশ্চিত করেছে। ফলে আশা করা হচ্ছে, শীঘ্রই বাংলাদেশে ফিরছে ক্রিকেট দলের সদস্যরা। তবে কখন তারা ফিরবেন তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

 


ঢাকা, ১৫ মার্চ (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।