মিরাজকে ছাড়াই দেশ ছাড়লো বাংলাদেশ


Published: 2018-06-23 22:44:41 BdST, Updated: 2018-07-20 14:52:57 BdST

স্পোর্টস লাইভ: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলতে গতকাল রাতে দেশ ছেড়েছে বাংলাদেশ দল। শুরুতেই ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে টেস্ট সিরিজ খেলবে টাইগাররা।

তবে বিসিবি ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলের সঙ্গে গতকাল যেতে পারেননি তরুণ অফস্পিনার মেহেদী হাসান মিরাজ। এছাড়াও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান যুক্তরাষ্ট্রে শ্বশুরবাড়িতে ছুটি কাটাচ্ছেন। তাই তিনি সেখান থেকেই ২৬শে জুন দলের সঙ্গে যোগ দিবেন। মিরাজের দলের সঙ্গে যেতে না পারার কারণ ভিসা জটিলতা।

বিসিবির একটি সূত্র জানিয়েছে এটি কোনো জটিলতা নয় প্রক্রিয়াগত কারণে বিলম্ব। দুই একদিনের মধ্যে ভিসা পেলেই দলের সঙ্গে যোগ দিবেন মিরাজ। জানা গেছে মামলাজনিত কারণে ভিসা জটিলতায় পড়েছিলেন দলের অন্যতম পেসার রুবেল হোসেনও। তবে শেষ পর্যন্ত ভিসা হাতে পেয়ে গতকালই তিনি দলের সঙ্গে দেশ ছেড়েছেন।

যদিও রুবেলের মামলার বিষয়টিও বিসিবির একটি দায়িত্বশীল সূত্র অস্বীকার করে। এ বিষয়ে রুবেল হোসেন বলেন, ‘আমি ভিসা পেয়েছি। একটু দেরি হয়েছে ভিসা পেতে। জানেনই তো যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পাওয়া কঠিন। তবে আমি মামলা আছে বলে জটিলতা হয়েছে এমন কোনো কিছু শুনিনি। আমি ছাড়াও মিরাজ ও আরিফুলেরও একটু সমস্যা হয়েছে। তবে ওরাও পেয়ে যাবে মনে হয়। এখন এসব নিয়ে ভাবছি না। দলের সঙ্গে যাচ্ছি, বড় দায়িত্ব সুযোগ পেলে কাজে লাগাবো।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ যাচ্ছেন না দলের নিয়মিত ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন। তার পরিবর্তে বিসিবির সিনিয়র মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমামই সেই দায়িত্ব পালন করবেন। পরে ম্যানেজার হিসেবে দলের সঙ্গে যোগ দিবেন সাব্বির খান।

তিনি বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এসব জানিয়েছেন, রাবিদ ইমাম। তবে কেন খালেদ মাহমুদ সুজন দলের সঙ্গে যাচ্ছেন না তা এখনো জানা যায়নি। তাকেও পাওয়া যায়নি মুঠোফোনে। এ বিষয়ে রাবিদ ইমাম বলেন, ‘নিয়মিত ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন যাচ্ছেন না এটি নিশ্চিত। আপাতত আমি যাচ্ছি দলের সঙ্গে। ম্যানেজারের দায়িত্ব আপাতত আমিই পালন করবো। পরে দলের সঙ্গে ম্যানেজার হিসেবে যোগ দিবেন সাব্বির খান।’

এছাড়াও জানা গেছে বাংলাদেশ শুরুতেই দুবাই হয়ে নিউইয়র্কে নামবে। সেখানে একদিন অবস্থান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজে পৌঁছাবে ২৪শে জুন। তার দু’দিন পর দলের সঙ্গে যোগ দিবেন সাকিব আল হাসান। ২৮-২৯শে জুন দু’দিনের একটি প্রস্তুত ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে টাইগারদের ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে টেস্ট মিশন।

এরপর সিরিজের প্রথম টেস্ট ৪ঠা জুলাই থেকে মাঠে গড়াবে। এরপর ১৪ই জুলাই থেকে দ্বিতীয় টেস্ট মাঠে গড়াবে জ্যামাইকাতে। বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের টেস্টে প্রথম বড় সাফল্য এসেছিল ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতেই। প্রথমবারের মতো বিদেশের মাটিতে শুধু টেস্ট ম্যাচই জিতেনি দেখিয়েছিল হোয়াইটওয়াশ করার কৃতিত্বও।

শুরুতে মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বে সেবার টেস্টে মাঠে নেমেছিল। কিন্তু ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়েন সিরিজ থেকে। দ্বিতীয় ম্যাচে দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান। এবার সাকিব আবারো নেতৃত্ব দেবেন ক্যাবিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এটি বাংলাদেশের ৭ম দ্বি-পাক্ষিক টেস্ট সিরিজ। এর আগে ৬ সিরিজে খেলে একটিতেই জয়ের দেখা পেয়েছিল। সেটিও তাদের মাটিতে। এরপরে টেস্ট সিরিজ খেলতে গিয়ে ২-০ তে হোয়াইটওয়াশ হয়ে দেশে ফিরেছিল টাইগাররা।

এবার অবশ্য নয়া প্রধান কোচ স্টিভ রোডস সিরিজ জয়ের স্বপ্ন নিয়ে দেশ ছেড়েছেন। তবে ক্যারিবীয় কন্ডিশনে সিরিজ জয় কতটা কঠিন তা সবারই জানা। তাই বড় চ্যালেঞ্জই অপেক্ষা করছে সাকিব আল হাসানের দলের বিপক্ষে।

অন্যদিকে টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ শেষ করে শুরু হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজে একটি হয়ে বাকি ও সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচ মাঠে গড়াবে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডাতে। যে কারণে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পাওয়া এখন টাইগারদের লাগবেই। সেটি না হলে ট্রানজিট ভিসা হলেই চলতো। জানা গেছে, যে দুই একজনের ভিসা নিয়ে বিলম্ব হচ্ছে সেই সমস্যা অচিরেই কেটে যাবে।

 

ঢাকা, ২৩ জুন (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এমআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।