জাবি লাইভ: ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৭জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে জনি লাংবাং নামের এক শিক্ষার্থীর অবস্থা গুরুতর বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিশ্চিত করেছেন।জাবিতে সংঘর্ষে আহত ৭


Published: 2017-12-06 22:30:00 BdST, Updated: 2017-12-17 15:57:17 BdST


জাবি লাইভ: ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) দু’পক্ষের সংঘর্ষে ৭জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে জনি লাংবাং নামের এক শিক্ষার্থীর অবস্থা গুরুতর বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে চ্যান্সেলর কাপ ফুটবল খেলায় আল বেরুনী ও মীর মশাররফ হোসেন হলের দ্বিতীয়ার্ধের খেলা চলাকালীন সময়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মীর মশাররফ হোসেন হলের খেলোয়াড় সালমান শাহ (ইতিহাস-৪২) বল নিয়ে আক্রমণকালে জনি লাংবাংয়ের বাঁধার মুখে সালমান মাটিয়ে লুটিয়ে পড়েন।

রেফারি তৎক্ষণাৎ সিদ্ধান্তে জনিকে হলুদ কার্ড দেখান। এ সময় সালমানকে ইচ্ছাপূর্বক লাথি দেন জনি।

পরে সালমানও পাল্টা লাথি দেন। এরপর মীর মশাররফ হোসেন হলের খোলোয়াড় মাসুম এগিয়ে এসে জনিকে ঘুষি মেরে মাটিতে ফেলে দেন। বিষয়টি উভয় পক্ষের খেলোয়াড় ও দর্শকদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।

এতে এমএইচ হলের সালমান, ফয়সাল (সরকার ও রাজনীতি-৪৫), অন্তর (নৃবিজ্ঞান-৪৩), এনায়েত (ইংরেজি-৪৬), আল বেরুনী হলের জনি, আব্দুল্লহ আল মামুন (আন্তর্জাতিক সম্পর্ক-৪৩), জামশেদ আলম (আন্তর্জাতিক সম্পর্ক-৪৩) আহত হন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের ডা. শামছুল আলম লিটন বলেন, আহতদের প্রাথমিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেলে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

গুরুতর আহত হওয়ায় জনি লাংবাংকে সাভারের একটি বেসরকারি হাসপালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তিনি মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছেন।

খেলা পরিচালনা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক কৌশিক ক্যাম্পাসলাইভকে সাহা বলেন, আমরা রেফারির সাথে আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নিব।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তপন কুমার সাহা ক্যাম্পাসলাইভকে বলেন, মারধরের বিষয়টি আমরা তদন্ত করছি । তদন্ত শেষে প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঢাকা, ০৬ ডিসেম্বর (ক্যাম্পাসলাইভ২৪.কম)//এআই

ক্যাম্পাসলাইভ২৪ডটকম-এ (campuslive24.com) প্রচারিত/প্রকাশিত যে কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা আইনত অপরাধ।